শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে তিনদিন ব্যাপি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন ব্রিটেনের নির্বাচনে আফসানার বড় জয়ে জগন্নাথপুরে উৎসবের আমেজ ব্রিটিশ পালার্মেন্টে ঝড় তুলবে বিজয়ী বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ৪ নারী এমপি ব্রিটেনের নির্বাচনে একটি আসনে বিশাল জয় পেয়েছেন জগন্নাথপুরের আফসানা বেগম অপরাধীদের প্রতি মহানবীর আচরণ যেমন ছিল সুদখোরদের ধরতে জেলা ও উপজেলায় মাঠে নামছে প্রশাসন জগন্নাথপুরে হাওরের জরিপ কাজ শেষ, কাজের তুলনায় বরাদ্দ কম, প্রকল্প কমিটি হয়নি একটিও জগন্নাথপুরে ডিজিটাল বাংলাদেশ উপলক্ষ্যে র‌্যালি, চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ জগন্নাথপুরে শিশু সাব্বির হত্যার ঘটনার গ্রেফতার-১ এনটিভি ইউরোপের জগন্নাথপুর প্রতিনিধি নিয়োগ পেলেন আব্দুল হাই

আগামী বাজেট হবে শ্রেষ্ঠ বাজেট: অর্থমন্ত্রী

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১১ মে, ২০১৭
  • ৮৬ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, আগামী বাজেট হবে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাজেট। সামনে জাতীয় নির্বাচন। তাই যা কিছু চাপাচাপি করা হবে এবারই করা হবে।

তিনি বলেন, আগামী বাজেটে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুতে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। এছাড়া ১ জুলাই থেকে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়িত হবে। ভ্যাটের হারও কমানো হবে।

বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকার সম্পাদক, প্রকাশক ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার শীর্ষ নির্বাহীদের সঙ্গে প্রাক বাজেট আলোচনায় এসব কথা বলেন অর্থমন্ত্রী।

আলোচনায় জাতীয় দৈনিকের সম্পাদক ও প্রকাশকরা আমদানি করা নিউজপ্রিন্টের শুল্ককর কমানো, বিজ্ঞাপনের দর বৃদ্ধি, ব্যাংকিং খাতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা, রফতানিকে উৎসাহিত করা ও মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করার জন্য বরাদ্দ আরও বাড়ানোর পরামর্শ দেন।

প্রাক বাজেট আলোচনায় সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার বলেন, আমদানি করা নিউজপ্রিন্টের শুল্ককর অত্যন্ত বেশি। এতে করে সংবাদপত্র শিল্পের উৎপাদন খরচ ব্যাপক বেড়ে যাওয়ায় চাপ সৃষ্টি হচ্ছে। এই শিল্পের স্বার্থ সুরক্ষায় আমদানি করা নিউজপ্রিন্টের ১৫ শতাংশ মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট), ৫ শতাংশ অগ্রিম আয়কর প্রত্যাহারের পরামর্শ দেন তিনি।

জবাবে অর্থমন্ত্রী এ প্রস্তাব সক্রিয় বিবেচনার আশ্বাস দেন।

সমকাল সম্পাদক আরও বলেন, শিক্ষা খাতে দেওয়া বরাদ্দের টাকার বেশিরভাগ ব্যয় হচ্ছে বেতন ভাতা ও অন্যান্য খাতে। শিক্ষার প্রসার ও মান নিশ্চিত করতে হলে এ জন্য আরও বেশি বরাদ্দ দিতে হবে।

সমকাল প্রকাশক ও এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি এ কে আজাদ বলেন, ব্যাংক কোম্পানি আইন সংশোধন করে একই পরিবার থেকে চারজন পরিচালক এবং টানা ৯ বছর থাকার যে নিয়ম করা হয়েছে এই বিধান কার্যকর হলে ব্যাংক খাতে বিশৃঙ্খলা বাড়বে। লুটপাটের সুযোগ তৈরি হবে। বেসরকারি ব্যাংকগুলোতে পরিবারতন্ত্র কায়েম হবে। বেনামে ঋণ বেড়ে যাবে। এ প্রস্তাব পুনর্বিবেচনার দাবি জানান তিনি।

প্রাক বাজেট আলোচনায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম, নিউজ টুডে সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ, আমাদের অর্থনীতি সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান, ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত প্রমুখ।

এছাড়া ইলেকট্রনিক মিডিয়া প্রতিনিধিদলের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাছরাঙা টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন চৌধুরী, চ্যানেল আই পরিচালক (বার্তা) শাইখ সিরাজ, বাংলাভিশনের চেয়ারম্যান আবদুল হক, আরটিভির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক রহমান, এটিএন বাংলার হেড অব নিউজ জ ই মামুন প্রমুখ।

আলোচনা সভায় একজন সম্পাদক জানতে চান, আগামী বাজেটে ‘চাপাচাপিটা’ কী হবে। জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘চাপাচাপি মানেই জনগণকে বেশি কর দিতে হবে। এখন রাজস্ব আদায়ে প্রবৃদ্ধি আছে ১৬ শতাংশ। আগামী বাজেটে এই লক্ষ্যমাত্রা হবে ৩০ শতাংশ। ফলে এই লক্ষ্য অর্জন করতে হলে জনগণকে বেশি করে ট্যাক্স দিতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘এটি হবে আগামী বাজেটের ওপর বড় অভিঘাত (চাপ)।’

আগামী বাজেটে কোনো ‘সারপ্রাইজ’ থাকবে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘হ্যাঁ, থাকবে।’ তবে কী থাকবে সেটি তিনি পরিষ্কার করেননি।

মুহিত জানান, আগামী বাজেটে অনগ্রসর এলাকার জনগণের জন্য বিশেষ বরাদ্দ দেওয়া হবে। এছাড়া পাইপলাইনে আটকে থাকা বিদেশি সাহায্য ছাড় করার ব্যাপারে বিশেষ পরিকল্পনার ঘোষণা থাকবে।

নতুন ভ্যাট আইন কার্যকর হলে জনগণের ওপর চাপ পড়বে কি-না এ প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘হ্যাঁ, চাপ থাকবে। তবে এই চাপ সহ্য করার ক্ষমতা জনগণের আছে। কেননা, দেশের অর্থনীতি আগের যেকোনো সময়ের তুলনায় এখন গতিশীল। মানুষের আয় বেড়েছে। আমাদের প্রবৃদ্ধি পৃথিবীর অনেক দেশের তুলনায় এখন ভালো। কাজেই জনগণের বেশি করে কর দেওয়ার সক্ষমতা আছে।’ সুত্র- সমকাল।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24