বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০৭:৪৫ অপরাহ্ন

আবারও মান বাঁচালো জগন্নাথপুরের মাজহারুল

স্টাফ রিপোর্টার::
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০১৯
  • ৮৫৯ Time View
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠান থেকে একমাত্র শিক্ষার্থী হিসেবে জিপিএ-৫ পেয়েছে মাজহারুল ইসলাম। সে ২০১৭ সালেও দাখিল পরীক্ষার একমাত্র জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী। যে কারনে মাদ্রাসা পযার্য়ে এবারও মান বাঁচাও মাজহারুল। মাজহারুল ইসলাম জগন্নাথপুর পৌরএলাকার ইসহাকপুরের মৃত উকিল আলীর ছেলে।
জানা যায়, এবারের আলিম পরীক্ষায় জগন্নাথপুরের সাতটি মাদাসা প্রতিষ্ঠান থেকে ২৮৬ জন অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয় ২৬৫ জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে একমাত্র জিপিএ-৫ অর্জনকারী শিক্ষার্থী মাজারুল ইসলাম। সে উপজেলার আল জান্নাত এডুকেশন ইনষ্টিটিউট থেকে জিপিও-৫ পেয়েছে। জগন্নাথপুরে মাজহারুল ব্যথিত মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠান থেকে আর কোন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পায়নি। ২০১৭ সালের দাখিল পরীক্ষায় ও মাজহারুল ইসলাম আল জান্নাত এডুকেশন ইনষ্টিটিউট থেকে জিপিএ-৫ অর্জনে সক্ষম হয়। ওই বছর মাজহারুল ছাড়া জগন্নাথপুরে মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠান থেকে অন্য কোন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পায়নি।
গতকাল বুধবার সারাদেশে ন্যায় জগন্নাথপুরেও এইচএসসি ও আলিম পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়। তবে স্থানীয় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস থেকে স্থানীয় গনমাধ্যককে জানানো হয়, জগন্নাথপুরে কলেজ পযার্য়ে তিনজন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেলেও মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠানে কোন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পায়নি।
আলিম পরীক্ষায় জগন্নাথপুর থেকে একমাত্র জিপিএ-৫ অর্জনকারী আল জান্নাত এডুকেশন ইনষ্টিটিউটের দরিদ্র শিক্ষার্থী মাজহারুল ইসলাম আজ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমের অফিসে এসে এ প্রতিবেদককে জানায়,
এবারের আলিম পরীক্ষায় আমিই একমাত্র শিক্ষার্থী হিসেবে জিপিএ-৫ পেয়েছি। কিন্তু স্থানীয় প্রশাসনের তালিকায় আমার নাম নেই। ২০১৭ সালের দাখিল পরীক্ষায়ও একমাত্র জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী হিসেবে আমি ছিলাম। সে জানায়, ৬ বছর পূর্বে তার বাবা মারা যাওয়া পর তার মা অনেক কষ্ঠ করে ৪ ভাই ও ১ বোনের পড়াশুনার খরছসহ সংসারের যোগান দিচ্ছেন। পরিবারের বড় ছেলে হিসেবে সে লেখাপড়ার পাশাপাশি টিউশনি করে নিজের ও ভাই-বোনের লেখাপড়ার খরছ এবং মাকে সংসারে সহযোগিতা করে আসছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একাডেমি সুপারভাইজার অরূপ রায় জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, জগন্নাথপুরের মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে তাৎক্ষনিকভাবে মুঠোফোনের মাধ্যমে ফলাফলের তথ্য পেয়েছি আমরা। অনিচ্ছাকৃত ভুলে হয়তো জিপিএ-৫ এর তথ্য সঠিক হয়নি। বিষয়টি গুরুত্বসহকারে দেখা হচ্ছে।
এ বিষয়ে জানতে আল জান্নাত এডুকেশন ইনষ্টিটিউশনের প্রিন্সিপাল শহিদুল ইসলাম নিজামীর সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্ঠা করেও তাঁকে পাওয়া যায়নি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24