সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:৪২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:

আমি মন্ত্রী থাকি বা না থাকি, রাজনীতি করি বা না করি জনগণের জন্য কাজ করে যাব: সৈয়দ আশরাফ

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ১১ জুলাই, ২০১৫
  • ৫১ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক:: লাভের জন্য আমি রাজনীতি করি না। আমার বাবা বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে বেঈমানি করেননি। তিনি মৃত্যুকে বরণ করে নিয়েছেন। আমার শরীরেও সেই রক্ত। শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে এক ইফতার পার্টিতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এ সব কথা বলেন।
ঢাকাস্থ হোসেনপুর সমিতি এ ইফতার মাহফিলের আয়োজন করে। নূরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সাবেক অতিরিক্ত সচিব শাহ মো. মনসুরুল হক, আইডিবি’র প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা মো. আব্দুস ছাত্তার ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা আনোয়ারুল কবীর প্রমুখ বক্তব্য দেন।
সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, আমি মন্ত্রী থাকি বা না থাকি, রাজনীতি করি বা না করি; কিশোরগঞ্জ-হোসেনপুরের জনগণের জন্য কাজ করে যাব।
ইফতারের প্রায় ১৫ মিনিট আগে বক্তব্য দেয়ার জন্য মাইক হাতে নিলেও দুই মিনিট বক্তব্য দিয়ে তিনি বক্তব্য শেষ করেন।
এর আগে বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত হোসেনপুর সমিতির নেতারা বক্তব্যে আশরাফের সততা ও নিষ্ঠা নিয়ে বক্তব্য দেন। অনেকে সৈয়দ আশরাফের দফতর কেড়ে নেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।
আশরাফের অব্যাহতির গুঞ্জনের শুরু হয় গত মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায়। তবে ওই দিন সন্ধ্যায় নিজ জেলা কিশোরগঞ্জ শহরে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত ইফতারে অংশ নেওয়ার সময় তিনি বিষয়টিকে গুজব বলে অভিহিত করেন। গত বৃহস্পতিবার সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের (এলজিআরডি) দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে দপ্তরবিহীন মন্ত্রী করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।
কিশোরগঞ্জ থেকে নির্বাচিত সাংসদ আশরাফ ছাত্রজীবনে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর জেলখানায় তার পিতা সৈয়দ নজরুল ইসলামসহ জাতীয় চার নেতাকে হত্যার পর লন্ডনে চলে যান আশরাফ। সেখানেও আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন তিনি।
১৯৯৬ সালে দেশে ফিরে সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পর, তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকারের বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী হন সৈয়দ আশরাফ। এক-এগারোর সরকারের সময় আওয়ামী লীগের চরম দুর্দিনে দলের হাল ধরেন প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিল্লুর রহমান এবং সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24