মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৬:৫৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে ফুটবল এসোসিয়েশনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন উপলক্ষে প্রস্তুতিসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে পারাপারের সময় খেলা নৌকা থেকে পড়ে মৃগী রোগির মৃত্যু জগন্নাথপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহতের স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ও বেগম রোকেয়া দিবস পালন, ৫ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান জগন্নাথপুরে মুক্ত দিবস পালিত জগন্নাথপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত দুই যুবকের জানাজায় শোকাহত মানুষের ঢল জগন্নাথপুরে আইনশৃংঙ্খলা সভায়-আনন্দ সরকারের হত্যাকারিদের গ্রেফতারের দাবি জগন্নাথপুরে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ও বেগম রোকেয়া দিবস পালন, ৫ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান জগন্নাথপুরে দুর্নীতি বিরোধী দিবসে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত ১৭ ডিসেম্বর থেকে হাওরের বাঁধ নির্মাণ কাজ শুরু

আ’লীগের দু গ্রুপের সংঘর্ষে যুবলীগ কর্মী নিহত

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ১৯ জুন, ২০১৭
  • ৪৫ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: কুষ্টিয়ার মিরপুরে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে শাহাবুদ্দিন আহমেদ শাহিন (২৮) নামে এক যুবলীগ কর্মী নিহত হয়েছে।

এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধসহ কমপক্ষে ৬জন আহত হয়েছে। আহতদেরকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রোববার বিকালে উপজেলার আমলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শাহিন আমলা এলাকার শাহার আলীর ছেলে। ঘটনার পর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, আমলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুল মালিথা কয়েকটি দেশ সফর শেষে এলাকায় ফিরলে তার সমর্থকরা আনন্দ মিছিল বের করে। মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় তার সমর্থকরা আমলা বাজারে যুবলীগের কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ভাংচুর চালায়। দুটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করে তারা। ভাংচুরের খবরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ মিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কামারুল আরেফিনের সমর্থকরা মালিথার সমর্থকদের তাড়া দিলে সংঘর্ষ বেঁধে যায়।

এসময় কয়েক রাউন্ড গুলি ও বোমার বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া যায়। গুলিবিদ্ধসহ ৭জন আহত হয়।

এদের মধ্যে গুরুতর আহত শাহিনকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আনার পর চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

এছাড়া বাকি আহত আতিয়ার রহমান, শাহার আলী ও সাইদুল ইসলামসহ কয়েকজনকে একই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গুলিবদ্ধি সাইদুলের অবস্থাও গুরুতর বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

আমলা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল মালিথা জানান, আমার সংবর্ধনা মিছিলে উপজেলা চেয়ারম্যানের সমর্থকরা ক্ষুব্ধ হয়ে হামলা চালায়। এতে আমার কয়েকজন কর্মী আহত হয়। একজন মারা গেছে।

উপজেলা চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন জানান, যারা আমার ওপর বোমা হামলা চালিয়েছিল সেইসব বিএনপি ক্যাডারদের সঙ্গে নিয়ে আনোয়ারুল মালিথা আমার এলাকায় যুবলীগের অফিসে ভাংচুর চালিয়েছে। ৫টি মোটরসাইকেল ভাংচুর করেছে।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার মেহেদী হাসান জানান, আমলার ঘটনায় একজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে বেশ কয়েকজন। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক নাসিমুজ্জামান বলেন, মৃত অবস্থায় শাহিনকে হাসপাতালে আনা হয়। আগেই সে মারা গেছে। তার ঘাড়ে বড় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ৬ রাউন্ড ফাঁকা গুলি করেছে। এ ঘটনায় এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24