মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ০২:৪৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
রাধারমন দত্ত এ দেশের লোক সংস্কৃতির ভান্ডার কে সমৃদ্ধ করেছেন: জেলা প্রশাসক ‘আওয়ামী লীগে দুঃসময়ের কর্মী চাই, বসন্তের কোকিল না’ জগন্নাথপুরে মূল্য তালিকা না থাকায় ভ্রাম‌্যমান আদাতের অভিযানে জরিমানা আদায় ঈদে মীলাদুন্নবী (সা:) উপলক্ষে জগন্নাথপুরে র‌্যালি ও আলোচনাসভা জগন্নাথপুরে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত সুনামগঞ্জে নৌকাডুবিতে প্রহরীর মৃত্যু দেখে নিন যে স্থানে জন্মগ্রহণ করেছিলেন মহানবী (সা.) বাবরি মসজিদ ধ্বংসকারী সেই বলবীর সিং এখন মুসলিম! রাধারমণের মৃত্যুবার্ষিকীতে ‘ক্লোজআপ ওয়ান’র সেরা প্রতিযোগি সালমা জগন্নাথপুর আসছেন সোমবার সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় সিলেটের নুরুল নিহত

ইতালিতে জগন্নাথপুরের রাহুলের মৃত্যুতে কান্না থামছেনা মা-বাবার

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
  • ১৩৮ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি ::
জীবনবাজি রেখে দালালের মাধ্যমে ৬ লাখ ৬৫ হাজার টাকা চুক্তিতে ইতালিতে পাড়ি জামানো সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের বালিকান্দি গ্রামের দিনমজুর আব্দুল হান্নান এর ছেলে বালিকান্দি আলীম মাদ্রাসার শিক্ষার্থী রাহুল আমীন (২০) এর মৃত্যুর খবরে পরিবারের কান্না যেন থামছে না।
শনিবার সরেজমিনে বালিকান্দি গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, ছেলের মৃত্যুর খবর শোনার পর থেকে তার বৃদ্ধা মা বার বার কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছেন। তিনি উচ্চসুরে কেঁদে কেঁদে বলছেন, আমার টাকা পয়সার দরকার নেই,তোমরা আমার ছেলেকে এনে দাও। তার কান্নায় পরিবারের সকল সদস্যরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়ছেন। প্রতিবেশীরা শান্তনা দিতে বাড়িতে ভীড় করছেন।
রাহুলের পরিবার ও তার স্বজনরা জানান, গত ২০ মে স্থানীয় এক দালালের মাধ্যমে ছয় লাখ ৬৫ হাজার টাকা চুক্তিতে বাড়ি থেকে লিবিয়া হয়ে ইটালী রওয়ানা হয়। এক মাস পর ইটালী পৌঁছার পর অবৈধ অধিবাসী হিসেবে ইটালী সরকারের কাতানিয়া ক্যাস্পে আশ্রয় মিলে তার। সেখানে বেশ কয়েকজন বাংলাদেশীর সঙ্গে পরিচয় ঘটে। এক পর্যায়ে অন্যক্যাম্পে থাকা সুনামগঞ্জের কয়েকজন যুবকের সাথে ঘনিষ্ট সম্পর্ক গড়ে উঠে। একদিন বেড়াতে গিয়ে তাদের মধ্য ঝগড়া বাধলে ওই যুবকরা তাকে মারধর করে গুরুতর আহত করে সড়কে ফেলে যায়। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। কিছুটা সুস্থ হলে তাকে ক্যাম্পে পাঠানো হয়।
রুহুল আমীনের ভাই জুয়েল আমীন বলেন, গত বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) আমাকে ফোন করে ভাই বলে আব্বা-আম্মাকে বলো আমার জন্য চিন্তা না করতে। তাদেরকে বলো আমার জন্য যেন দোয়া করেন। পরদিন দেশে কথাবলার জন্য মোবাইল কার্ড পাব। তারপর মা-বাবার সাথে কথা বলব। পরদিন ভাইয়ের মৃত্যুর খবর পাই।
তার চাচাতো ভাই নোমান আহমদ বলেন, রাহুল আমাকে মোবাইল ফোন করে জানিয়েছে, তাকে ভীষন মারধর করা হয়েছে। এতে সে অসুস্থ হয়ে পড়ে।তার মৃত্যুর খবরে আমরা হতবাক। আমাদের ধারনা তাকে হত্যা করা হয়েছে।
রাহুলের বাবা আব্দুল হান্নান বলেন, সংসারের অভাব দূর করার জন্য আমার ছেলে বায়না ধরে বিদেশ যাওয়ার জন্য। তাই বাধ্য হয়ে জায়গা জমি বিক্রি করে টাকা পয়সা ধার দেনা করে ছেলেকে বিদেশ পাঠাই। তিন মাসের মধ্যে ছেলের অস্বাভাবিক মৃত্যুর খবরে হতবাক হয়ে যাই। তিনি বলেন,আমার ছেলেকে অজ্ঞাতনামা হিসেবে তাড়াহুড়া করে লাশ দাফনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছিল। সেখানে ছাতকের এক ইমাম আমাদের কলেজের অধ্যক্ষের সাথে যোগাযোগ করে আমাদেরকে বিষয়টি জানান। তিনি বলেন, আমরা সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করছি লাশ দেশের আনার জন্য।
ক্যাম্পের পাশের মসজিদের ইমাম ছাতক উপজেলার বাসিন্দা মাওলানা মিসবাহ জানান, প্রতিবেশী উপজেলার বাসিন্দা জগন্নাথপুরের ছেলের মৃত্যুর খবর পেয়ে আমি জগন্নাথপুর শাহজালাল মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ এম এ মতিনের সাথে যোগাযোগ করে ছেলেটিকে অজ্ঞাতনামা হিসেবে লাশ দাফন না করতে ক্যাম্পের লোকজনকে অবহিত করি। পরে তারা লাশ সংরক্ষনের ব্যবস্থা করা হয়।
শাহজালাল মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ এম এ মতিন জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, লিবিয়া হয়ে ইটালী যাওয়া তরুণদের জীবন বিপন্ন হয়ে পড়েছে। দরিদ্র কৃষকের সন্তান রুহুলের মৃত্যুর ঘটনা অবৈধভাবে বিদেশ যাত্রার একটি দৃষ্টান্ত মাত্র ।তিনি বলেন বালিকান্দি গ্রামের কৃষক বাবার আদরের  ছেলেটির লাশ দেশে আনতে পরিবারের লোকজন স্হানীয় সংসদ সদস্য অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।
জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি হারুনুর রশীদ চৌধুরী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ইটালীতে জগন্নাথপুরের তরুণের মৃত্যুর খবর শুনেছি। লাশ দেশে আনতে আমাদের সহযোগীতা লাগলে আমরা করব।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24