শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বোরকা পরে সমাবর্তনে যাওয়ায় প্রথম হয়েও স্বর্ণপদক পেলেন না নিশাত জগন্নাথপুরে কাল শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ থাকবে না মিরপুরে প্রতীক বরাদ্দের আগেই প্রচারণায় প্রার্থীরা! জগন্নাথপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে টমটম চালকের আত্মহত্যা জগন্নাথপুরে শিল্পকলা একাডেমির সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুর বাজারকে সিসি ক্যমেরার আওতায় আনতে মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে বিদ্যালয় সমূহে পরিছন্নতা সামগ্রী ও প্রচারপত্র বিতরণ কার্যক্রম শুরু রাতভর ৪ ক্যাসিনোতে অভিযান নারায়ণগঞ্জে মা ও দুই মেয়েকে গলা কেটে হত্যা যুক্তরাজ‌্যে বসবাসতরত জগন্নাথপুরের আ.লীগ পরিবারের মিলনমেলা

ইসরায়েলের পার্লামেন্টে মাইকে আজান নিষিদ্ধ

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১০ মার্চ, ২০১৭
  • ৩০ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডের মসজিদগুলোতে মাইকে আজান প্রচারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারির একটি বিতর্কিত বিলের প্রথম পর্যায়ের অনুমাদন দিয়েছে ইসরায়েলের পার্লামেন্ট নেসেট।

এ আইন বাস্তবায়ন হলে ‘আসসালাতু খাইরুম মিনান নাউম’ বা ঘুম থেকে নামাজ উত্তম বলে মুসল্লিদের ফজর নামাজের জন্য শব্দ করে আজান দেওয়া যাবে না। যদি কেউ নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ করে, তাহলে তাকে ইসরায়েলি মুদ্রায় ১০ হাজার শেকেল বা দুই হাজার ৭০০ ডলার জরিমানা করা হবে।

বুধবার (৮ মার্চ) ৫৫-৪৮ ভোটে বিলটি পাস হয়। ক্ষমতাসীন জোট সরকারের সদস্য ও আরব এমপিদের তীব্র বাদানুবাদ ও বিতর্কের পর বিলটির ওপর ভোট গ্রহণ করা হয়। বিতর্কের সময় উভয় পক্ষের এমপিরা পরস্পরের প্রতি চিৎকার করে প্রতিবাদ জানান। অনেক আরব এমপি বিলের কপি টেনে ছিঁড়ে ফেলেন। এজন্য তাদেরকে হাউস থেকে বের করে দেওয়া হয়।

নেসেটের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, প্রাথমিকভাবে মসজিদগুলোতে রাত ১১টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত মাইকে আজান দেওয়া নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। এরপর দ্বিতীয় ও চূড়ান্ত পর্যায়ে উপাসনালয়ে মাইকের ব্যবহার সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেওয়া হবে।

যদিও বিলটিতে কোনও বিশেষ ধর্মের উপাসনালয়ের কথা বলা হয়নি। তবে বিলটির নাম থেকেই এটির লক্ষ্য স্পষ্ট হয়। বিলটির শিরোনাম ‘মুয়াজ্জিন বিল’। মসজিদ থেকে প্রতিদিন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের জন্য মাইকে আজান প্রচার করা হয়। আর যিনি আজান দেন, তাকে বলা হয় মুয়াজ্জিন। এটা ইসলামের একটি বহুল প্রচলিত পরিভাষাও বটে।

অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে এই বিতর্কিত বিলের সমালোচনা করেছেন মুসলিম, খ্রিস্টান এমনকি ইহুদি জনগণও। কিন্তু ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু এই বিলের সমর্থক। নেতানিয়াহু বলেছেন, আজানের কারণে অতিরিক্ত ‘কোলাহল’ সৃষ্টি হয় বলে তিনি বিলটি সমর্থন করেন।

এর আগে কট্টর ডানপন্থী জুইশ হোম পার্টির নেতা মটি জোগেভ বিতর্কিত আইনটির প্রস্তাব করেছিলেন। এতে সব সময়ের জন্য সশব্দে মাইকে প্রার্থনার আহ্বান বন্ধের প্রস্তাব ছিল। এর ফলে শুক্রবার সন্ধ্যায় ইহুদিদের ‘সাব্বাথ’ প্রার্থনার জন্য সাইরেন বাজানোও নিষেধাজ্ঞায় পড়তো। এ কারণে ইসরায়েলি আইনসভা নেসেট আইনটি প্রত্যাখ্যান করে। পরে আইনটি সংশোধন করে শুধু রাত ১১টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত উচ্চ শব্দে প্রার্থনার আহ্বান নিষিদ্ধ করার কথা বলা হয়।

সূত্রঃ আল জাজিরা

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24