সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৭:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুর মুক্ত দিবস আজ ডাকাত আতঙ্কে আজও নিদ্রাহীন মিরপুর ইউনিয়নবাসি, চলছে পাহারা জগন্নাথপুরে হালিমা খাতুন ট্রাষ্টের মেধা বৃত্তি পরীক্ষায় প্রথম স্থান অর্জন করেছে তাওহিদা কলকলিয়া ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী- তোমাদের স্বপ্নের বাংলাদেশ আসছে জগন্নাথপুরে আমার বিদ‌্যালয়, আমার অহংকার, নিজেরাই করি সুন্দর ও পরিস্কার প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে বন্ধুকে নিয়ে বেড়াতে গিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই বন্ধু নিহত ছাতকে একই স্থানে আ.লীগের দুই পক্ষের সমাবেশ,১৪৪ ধারা জারি আজ কলকলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সন্মেলন ভারমুক্ত না নতুন নেতৃত্ব? কাশফুলের শাদা যন্ত্রণা ||আব্দুল মতিন জগন্নাথপুরের মিরপুরে ডাকাত আতঙ্ক, রাত জেগে দলবেঁধে পাহারা চলছে

এক ভোটের ‘এমপি’

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ১ ডিসেম্বর, ২০১৮
  • ১২৭ Time View
জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::
টানা পাঁচবার এমপি নির্বাচন করেছেন ৭০ বছরের বৃদ্ধ সুধীর রঞ্জন বিশ্বাস। প্রতিবারই ভোটে পেয়েছেন একটি করে।
খুইয়েছেন জামানত। এলাকার লোকজন মজার ছলে তাঁকে ‘এমপি সুধীর’ বলে ডাকেন। বারবার ব্যর্থ হওয়ার পরও নির্বাচনে জেতায় দৃঢ়প্রতিজ্ঞ তিনি। তাই আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও ফের প্রার্থী হয়েছেন। পিরোজপুর-৩ (মঠবাড়িয়া) আসনে ষষ্ঠবারের মতো স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে আলোচনার শীর্ষে চলে এসেছেন তিনি।স্থানীয়দের সূত্রে জানা গেছে, মঠবাড়িয়া উপজেলার দাউদখালী ইউনিয়নের গিলাবাদ গ্রামের মৃত যোগেশ চন্দ্র বিশ্বাসের ছেলে সুধীর রঞ্জন বিশ্বাস। একসময় সচ্ছল কৃষক ছিলেন তিনি। এইচএসসি পর্যন্ত পড়ালেখা করেছেন। ২৯ বছর আগে তাঁর স্ত্রী অঞ্জলি রানী বিশ্বাস দাউদখালী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য পদে নির্বাচন করে হেরে যান।

এর কয়েক দিন পরই তাঁর স্ত্রী মারা যায়। এতে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে স্বাভাবিক জীবনবোধ হারান সুধীর রঞ্জন। তালগোল পাকানো কথাবার্তায় এলাকার মানুষ তাঁকে নিয়ে তামাশা করেন। তবে সুধীর রঞ্জন ওসবে একদমই পাত্তা দেন না। স্বাধীনচেতা সুধীর কারো কাছে হাত না পেতে জমি আর বাড়ির গাছপালা বিক্রি করে এমপি পদে নির্বাচনে দাঁড়ান। টানা পাঁচবার ভোটযুদ্ধে নেমেছেন। কিন্তু একবারও মনোনয়নপত্রে নাম প্রস্তাবকারী আর সমর্থনকারীরও ভোট পান না তিনি। তবে নিজের ভোটটি নিজেকে ঠিকমতোই দেন। ভোটে জিততে না পারলেও তাঁর আক্ষেপ নেই। কারণ তাঁর নিজস্ব কর্মীবাহিনী নেই। নিজেই নিজের নির্বাচনী পোস্টার লাগান, লিফলেট বিলি করেন। এবারও তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন।

বৃদ্ধ সুধীর রঞ্জনের এমন কর্মকাণ্ডে বিব্রত তাঁর পরিবারের সদস্যরা। বড় ছেলে বরুণ বিশ্বাস ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পদে ঢাকার টঙ্গীতে চাকরি করছেন। মেজো ছেলে পবিত্র কুমার বিশ্বাস সরকারি প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক। ছোট ছেলে টুটুন বিশ্বাস ঢাকায় ইলেকট্রনিক ব্যবসা করছেন। আর মেয়ে মণি বিশ্বাসের বিয়ে হয়ে গেছে। তাঁর পরিবারের স্বজনরা কেউ গ্রামের বাড়িতে থাকেন না। সুধীর রঞ্জনও চার সন্তানের সঙ্গে তেমন যোগাযোগ রাখেন না। একাই বাড়িতে নিভৃতে জীবনযাপন করেন। নিজে রান্না করে খান। কারো ওপর নির্ভরশীল নন তিনি। নির্বাচনে সন্তানদের কাছে কোনো সহায়তাও চান না।

সুধীর রঞ্জন ভোটের লড়াইয়ের জন্য জমানো টাকার পাশাপাশি বসতবাড়ির একটি রেইনট্রি গাছ বিক্রি করে ৩০ হাজার টাকা নিয়ে গত বুধবার গ্রামের বাড়ি থেকে হেঁটে একাই উপজেলা পরিষদে যান। এরপর নিজের হাতেই উপজেলা সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জি এম সরফরাজের হাতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেন। প্রতিবারের মতো এবারও তিনি ইলিশ মাছ প্রতীক চেয়েছেন।

স্বতন্ত্র প্রার্থী সুধীর রঞ্জন দাবি করেন, তিনি এলাকায় একজন পল্লী চিকিৎসক হিসেবে মানুষের সেবা করে আসছেন। প্যারালিসিস, স্ট্রোক আর বাতের মতো জটিল চিকিৎসায় তিনি বহু মানুষকে সুস্থ করেছেন। আর এ চিকিৎসা তিনি বিনা মূল্যে করেছেন।

সুধীর রঞ্জন বিশ্বাস কালের কণ্ঠকে আরো বলেন, ‘আমার প্রয়াত স্ত্রী অঞ্জলির স্মৃতি রক্ষায় মৃত্যু অবধি আমি এমপি নির্বাচন করে যাব। আমি সব সময় মানুষের কল্যাণ ও দেশের উন্নয়নে কাজ করতে চাই। ’

স্থানীয় মিরুখালী স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ আলমগীর হোসেন খান বলেন, ‘সুধীর রঞ্জন প্রতিবার স্বতন্ত্র প্রার্থী হন। তাঁর ভোটে দাঁড়ানোর অধিকার আছে। তাই এবারও তিনি প্রার্থী হয়েছেন। কিন্তু দুর্ভাগ্য প্রতিবারই তিনি শুধু নিজের একটা ভোটই পান। ’

পিরোজপুর-৩ আসনে ১৩ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে রয়েছে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা ও বর্তমান সংসদ সদস্য ডা. রুস্তুম আলী ফরাজী, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন দুলাল, কর্নেল শাজাহান মিলন, আশরাফুর রহমান, ডা. আনোয়ার হোসাইন, ডা. এম নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

সৌজন্যে কালের কণ্ঠ

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24