সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৭:৩২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে সড়ক রক্ষায় ১০ টন ওজনের অধিক যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা মিরপুর ইউপি নির্বাচনে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ, আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচারণা প্রার্থীরা গরুর মাংস বিক্রি: ভারতে খ্রিস্টান যুবককে পিটিয়ে হত্যা জগন্নাথপুরের ব‌্যবসায়ী ফেরদৌস মিয়া খুনের ঘটনায় সানিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড, তিনজনের যাবজ্জীবন ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ওপর ছাত্রলীগের ‘হামলা’ আহত ২৫ অনেকেই গা ঢাকা দিয়েছে, অনেককেই নজরদাড়িতে রাখা হয়েছে: কাদের বিরিয়ানি খেলে শিক্ষকসহ ৪০ জন অসুস্থ আল কোরআন অনুসরণের আহ্বান রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের! জগন্নাথপুরে নৌপথে বেপরোয়া ‘চাঁদাবাজি’,চাঁদা না দিলে শ্রমিকদের মারধর করে লুটে নেয় মালামাল

এমসি কলেজে ভাংচুরের ঘটনায় জগন্নাথপুরের নিউটনসহ ১০ ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১৬ জুলাই, ২০১৭
  • ২৮ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ভাংচুরের ঘটনায় টিটু চৌধুরীসহ ১০ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের কাজিপুর গ্রামের এক ছাত্রলীগ নেতা রয়েছেন। রোববার বিকেলে নগরীর শাহপরাণ থানায় দ্রুত বিচার আইনে এ মামলা দায়ের করেন কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক নিতাই চন্দ্র চন্দ।

মামলায় ছাত্রলীগ নেতা টিটু চৌধুরীকে প্রধান আসামী করা হয়েছে। ১০ জনের নাম উল্লেখ ছাড়াও অজ্ঞতানামা আরো ২০/২৫ জনকে আসামী করা হয়েছের। এঘটনায় ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

হোস্টেলে অতর্কিত হামলা, ভাংচুর ও শিক্ষার্থীদের সর্বস্ব লুটপাঠের অভিযোগ এনে মামলায় বাদি উল্লেখ করেন, সকালে ঘুমন্ত অবস্থায় ছাত্রলীগ নেতা টিটু চৌধুরীর নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের একদল সশস্ত্র অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী হোস্টেলে প্রবেশ করে ভাংচুর চালায়। এতে কলেজ হোস্টেলের ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়।

উল্লেখ্য গত বৃহস্পতিবার সকালে ছাত্রলীগের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষের জের ধরে এমসি কলেজ ছাত্রবাসে ব্যাপক ভাংচুর করা হয়। টিটু চৌধুরীর নেতৃত্বে ছাত্রলীগের একাংশ ওই হামলা চালায় বলে অভিযোগ ওঠে। ওইদিনই কলেজ কর্তৃপক্ষ শাহপরাণ থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন। এছাড়া তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করে কলেজ কর্তৃপক্ষ। এর দুইদিন পর রোববার বিকেলে কলেজ অধ্যক্ষ বাদি হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার হোসেনবলেন, ভাংচুরের দিন জালালাবাদ থানা পুলিশ কুমারগাও থেকে ৫ জনকে আটক করেছিলো। এছাড়া আমরা আনোয়ারুল ইসলাম নামে একজনকে ওইদিনই আটক করি। এই ছয়জনকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমারগাও এলঅকা থেকে আটককৃতরা হলেন- সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার জাওয়ার আবদুল মান্নানের ছেলে কাউসার, তাহিরপুর উপজেলঅর রতনশ্রী গ্রামের মোজাম্মেল হোসেনের ছেলে শাওন, সুনামগঞ্জ সদরের অচিন্তপুর এলাকার ইলিয়াস মিয়ার ছেলে রাফিজুল ইসলাম, জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের কাজীপুর গ্রামের অরবিন্দ চৌধুরীর ছেলে নিউটন চৌধুরী, তাহিরপুর উপজেলার কালিজুড়ি রামনগর এলাকার আব্দুল হাসিমের ছেলে সোহাগ মিয়া, দিরাই উপজেলার কাউয়াজুড়ি গ্রামের আকিল আলীর ছেলে সুমন এবং মৌলভীবাজার জেলার রাজনগর উপজেলার উত্তরভাগ গ্রামের সুভাষ আচার্য্যের ছেলে সৌরভ আচার্য্য। তারা সবাই ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24