সোমবার, ২৬ অগাস্ট ২০১৯, ০১:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
কাশ্মীরে প্রতিবাদের ঝড় বইছে, পাথরই হাতিয়ার, নিহত ট্রাক চালক ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ,গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ ফারুক হত্যা মামলায় এক রোহিঙ্গা ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত জগন্নাথপুরে বিদ্যালয় সমূহে পরিচ্ছিন্ন রাখতে ডাষ্টবিন বিতরণ শুরু জগন্নাথপুরে কমিউনিটি পুলিশিং সভায় পুলিশ সুপার- সুনামগঞ্জের শান্তি শৃঙ্খলা নিশ্চিতে কাজ করতে চাই বিশ্বনাথে পাইপগানসহ গ্রেফতার-১ মাহী বি চৌধুরীকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ ভিডিও কেলেঙ্কারি : জামালপুরে নতুন ডিসি নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জগন্নাথপুরে সৈয়দপুর গ্রামবাসীর উদ্যোগে সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের নির্বাচন সম্পন্ন:সভাপতি পঙ্কজ দে,সেক্রেটারী মহিম

কাদের জন্য শহীদি মর্যাদা?

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭
  • ৫৭ Time View

সাইদুর রহমান : আমরা মনে করি, যারা আল্লাহর পথে যারা নিহত হয় তারাই শহীদ। আসলেই কী তাই ? হাদীসে সাত শ্রেণির মৃত্যুকে শহীদ আখ্যায়িত করা হয়েছে। সেই সাত শ্রেণির মানুষ শহীদের মর্যাদা পাবে। হাদীসে এসেছে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন : তোমাদের নিকট শাহাদাৎ কি ? তারা বলল : আল্লাহর রাস্তায় মারা যাওয়া। তিনি বললেন : আল্লাহর রাস্তায় মারা যাওয়া ছাড়াও সাত প্রকার শাহাদাৎ রয়েছে : প্লেগ বা মহামারিতে মৃত ব্যক্তি শহীদ; পানিতে ডুবে মৃত ব্যক্তি শহীদ; ফুসফুসে রোগাক্রান্ত মৃত ব্যক্তি শহীদ; পেটের রোগে মৃত ব্যক্তি শহীদ; আগুনে পুড়ে মৃত ব্যক্তি শহীদ; ধ্বংসস্তুপের নিচে চাপা পড়ে মৃত ব্যক্তি শহীদ; আর যে নারী পেটে বাচ্চা নিয়ে মারা যায় সেও শহীদ। (আহমদ : ২৩৮০৪, আবূ দাউদ : ৩১১১, নাসায়ী : (১৮৪৬)

তাছাড়া স্বাভাবিক মৃত্যু হলেও জানাযার নামাযে বেশী সংখ্যক মানুষ শরীক হলে সে ব্যাপারে জান্নাতের সুসংবাদ দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে কোনো মৃত ব্যক্তির উপর মুসলমানদের বৃহৎ একটি জামাত জানাযা পড়ে, যাদের সংখ্যা একশত পর্যন্ত পৌঁছে আর তারা সবাই তার জন্য সুপারিশ করে, তবে অবশ্যই তার ব্যাপারে তাদের সুপারিশ গ্রহণ করা হবে। নাসায়ি : (১৯৯১), তিরমিযি : (২৯)

বর্ণিত আছে, কুরাইব থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, ইবনে আব্বাসের একজন সন্তান দাড়ালো ছুরির আঘাতে অথবা নির্যাতনের কারণে মারা যায়, তিনি বললেন, হে কুরাইব, দেখ তো কি পরিমাণ মানুষ তার জন্য জমায়েত হযেছে ? সে বলল : আমি বের হয়ে দেখলাম তার জন্য অনেক মানুষ জড়ো হয়েছে। আমি তাকে সংবাদ দিলাম। তিনি বললেন : তুমি বলছ তারা চল্লিশ জন হবে। সে বলল : হ্যাঁ। তিনি বললেন : তাকে বের কর। কারণ, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বলতে শুনেছি : কোন মুসলিম ব্যক্তি যখন মারা যায়, অতঃপর তার জানাযার জন্য এমন চল্লিশ জন লোক দাঁড়ায়, যারা কেউ আল্লাহর সাথে শরিক করে না। তবে আল্লাহ তার ব্যাপারে তাদের সুপারিশ অবশ্যই গ্রহন করবেন। মুসলিম : ৯৪৮

আরো এসেছে, আনাস বিন মালেক – রাদিআল্লাহ আনহু- থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন : লোকেরা একটি জানাযা নিয়ে গেল, অতঃপর তারা মৃত ব্যক্তির প্রশংসা করল। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, অবধারিত হয়ে গেল। কিছুক্ষণ পর তারা আরেকটি জানাযা নিয়ে গেল, এবার তারা মৃত ব্যক্তির দুর্নাম করল। তিনি বললেন: অবধারিত হলে গেল। ওমর -রাদিআল্লাহ আনহু – বললেন, কি অবধারিত হল ? তিনি বললেন : এ ব্যক্তির তোমরা প্রশংসা করেছ, তাই তার জন্য জান্নাত অবধারিত হল। আর তার তোমরা দুর্নাম করেছ, তাই তার জন্য জাহান্নাম অবধারিত হল। এ পার্থিব জগতে তোমরা আল্লাহর সাক্ষ্যি। বুখারি : (১৩৬৭), মুসলিম : (৯৪৯)

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24