শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:২৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
যুবলীগ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী রোববার মিটিং ডেকেছেন : ওবায়দুল কাদের দেশে দারিদ্র কমলেও বৈষম্য বাড়ছে:পরিকল্পনামন্ত্রী জগন্নাথপুরে শুক্রবার সকাল ৬টা ১২টা ও শনিবার ৮ থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ থাকবে না জগন্নাথপুরে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত প্রমাণ পেলে বহিরাগতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব- জগন্নাথপুরে ডিসি জগন্নাথপুরে কলেজছাত্রীর ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযাগ,বখাটের হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় পরিবার জগন্নাথপুরে দিনভর বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প পরির্দশন শেষে ডিসি-জনগনের দোরগোড়ায় সেবা পৌছে দেয়া হচ্ছে জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সন্মেলন ৬ নভেম্বর যুবলীগের চেয়ারম্যানের গণভবনে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা! সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩৫

ঘুমন্ত স্বামী-স্ত্রীর ওপর দুর্বৃত্তরে হামলা,গলাকেটে স্কুল শিক্ষককে হত্যা

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১২ মার্চ, ২০১৫
  • ১১৭ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক- খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি উপজেলায় গভীর রাতে এক স্কুল শিক্ষকের বাসায় ঢুকে তাকে গলাকেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। ওই শিক্ষকের পাশে ঘুমিয়ে থাকা তার স্ত্রীর ওপরও হামলা হয়েছে। আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার রাত দেড়টার দিকে পশ্চিম ক্যায়াংঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে মহালছড়ি থানার ওসি মো. সেমাউন কবীর চৌধুরী জানান।নিহত মিলন বিকাশ চাকমা নিম্নক্যাংগালছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন।
তার স্ত্রী বীরলতা চাকমার (৫০) গলা ও হাতে কোপ লেগেছে। তাকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাসপাতালে বীরলতা বলেন, তারা দুজনে রাতে ঘুমিয়ে ছিলেন। হঠাৎ ঘুম ভেঙে তিনি ভাবেন তাকে স্বপ্নে কেউ আঘাত করছে, কিন্তু ব্যথা অনুভবের পর চোখ খুলে দেখেন তাদের দুজনের শরীর ও কাপড়ে শুধু রক্ত। আত্মরক্ষার জন্য তিনি চিৎকার দিলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

ওসি সেমাউন কবীর বলেন, দুর্বৃত্তরা দরজা ভেঙে মিলনের ঘরে ঢুকে বিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। এরপর তারা ওই দম্পতিকে ঘুমন্ত অবস্থায় গলায় কিরিচ ও ছুরির মতো ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই মিলন মারা যান। বীরলতার চিৎকারে প্রতিবেশিরা ছুটে এসে তাকে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

পরে বৃহস্পতিবার সকাল ৬টার দিকে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠায়।

কে বা কারা এ হামলা করেছে সে বিষয়ে কিছু বলতে পারেনি পুলিশ।

“তদন্তের পর জানা যাবে কারা এই হত্যাঘরেকাণ্ড কী উদ্দেশ্যে ঘটিয়েছেন। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ওই স্কুল শিক্ষকের কর্মস্থলে কোনো ধরনের সমস্যা থেকে এটা ঘটতে পারে,” বলেন ওসি।

মিলন ও বীরলতার দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। তবে ওই বাসায় শুধু স্বামী-স্ত্রী থাকতেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24