রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৭:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে মাদ্রাসা ছাত্র সাব্বিরের হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল জগন্নাথপুরে পৃথক দুই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় এখনও মামলা হয়নি সাংবাদিকতার উজ্জ্বল পরিম-লে কামকামুর রাজ্জাক রুনু এক স্বপ্নচারী পুরুষ শেখ রাসেলের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে জগন্নাথপুরে আ.লীগের আলোচনাসভা জগন্নাথপুরে শ্রমিকলীগের কমিটি বিলুপ্ত জগন্নাথপুরের তিন রাজনীতিবীদ জেলা আ,লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মনোনীত হলেন জগন্নাথপুরে দুইপক্ষের বিরোধে বলি হলো মাদ্রাসার ছাত্র সাব্বির জগন্নাথপুরে ছিনতাইকৃত গ্রামীণফোনের রিচার্জ কার্ড-অর্থসহ ডাকাত গ্রেফতার জগন্নাথপুরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে শিশু নিহত জগন্নাথপুরে অটোচালককে হত‌্যা করে লাশ ডোবায় ফেলে দিল দুবৃর্ত্তরা

জগন্নাথপুরে দুই মাস পেরিয়ে গেলেও শেষ হয়নি একটি বাঁধেও কাজ

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯
  • ১৭১ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি ::
দুই মাস পেরিয়ে গেলেও সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে বোরো ফসলরক্ষা বেড়িবাঁধের কাজ একটিও শেষ হয়নি।
মঙ্গলবার জগন্নাথপুরের সর্ববৃহৎ নলুয়া হাওরের ভুরাখালি গ্রামের দক্ষিণ অংশের নলুয়া পোন্ডার-১ এর ৭ নং প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির ( (পিআইসি) বাঁধের সামান্য কিছু স্থানে মাটি ফেলে রাখা হয়েছে। বাঁধের বেশিভাগ স্থানে মাটি পড়েনি। বাঁেধ কাজ করতেও কাউকে দেখা যায়নি। নীতিমালা অনুয়ায়ী বাঁধের কাজের বিবরণ উল্লেখ করে সাইনর্বোড লাগানোর নিদের্শনা থাকলেও গতকাল পদির্শনকালে সাইনর্বোড দেখা যায়নি। সরেজমিনকালে পাওয়া যায়নি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির (পিআইসি) সভাপতি চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য শান্তনা ইসলাম, সম্পাদক আব্দুর রহিম কিংবা অন্যসদস্যদের। একাধিকবার সভাপতি ও সম্পাদকের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলেও তারা ফোন ধরেন নি।
৭ নং প্রকল্প বাাঁধের পাশের ৮নং ও ৯নং প্রকল্পের কাজ চলমান। মাটি ভরাটের কাজ চলছে। কিছু স্থানে মাটি ভরাট হয়নি এখনও। তবে দুই প্রকল্পের সভাপতি জানিয়েছেন নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই তারা বাঁধের শতভাগ কাজ শেষ করবেন।
নলুয়া হাওরের ৮ নং প্রকল্পের বেড়িবাঁধের সভাপতি কয়েছ আহমদ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আমরা দ্রুত কাজ শেষ করার চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছি। তিনি বলেন, ইতিমধ্যে বাঁেধর ৬০ থেকে ৭০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। অবশিষ্ট কাজ নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই শেষ করা হবে।
৯ নং প্রকল্পের সভাপতি সাব্বির আহমদ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ৬৫ থেকে ৭০ ভাগ কাজ শেষ। বাকি কাজ দ্রুত সময়ের মধ্যে শেষ করা হবে। কিন্তুু এখন পযর্ন্ত কাজের বিল দেওয়া হয়েছে মাত্র এক কিস্তি। যারা কাজের অনুপাতে নিতান্ত কম।

এদিকে নলুয়া হাওরের ভুরাখালি গ্রামের পশ্চিমের ৬ নং প্রকল্পের ভুরাখালি স্লুইসগেট থেকেদাসনাগাঁও কুরেরপার অংশে মাটি কাটার শেষ হয়েছে। তবে ভুরাখালি লম্বাহাটির এলাকার কিছু অংশে মাটি পড়েনি।
প্রকল্পের বাস্তবায়ন কমিটির (পিআইসি) সভাপতি আহমদ আলী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, কাজের তুলনায় টাকা দেওয়া হয়েছে নিতান্তই কম। ধার-কর্যা করে বাঁধের কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। সঠিক সময়ের মধ্যে টাকা না পাওয়া গেলে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করা কঠিক হয়ে পড়বে।

হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির যুগ্ম আহবায়ক সিদ্দিকুর রহমান জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এখনও একটি বাঁধের কাজও সম্পন্ন হয়নি। কাজ চলছে ধীরগতিতে। ২৫-৩০ ভাগ কাজ হয়েছে। যে সময় ঝড় বৃষ্টির কারণে বাঁধের কাজে বিঘিœত হাওয়া আশঙ্কা রয়েছে। আমরা দাবী জানাচ্ছি সঠিকভাবে যথাসময়ের মধ্যে কাজ সম্পন্ন করার জন্য। তা না হলেও আমরা আন্দোলনে নামবো।
জগন্নাথপুর উপজেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের আঞ্চলিক কার্যালয় সুত্র জানায়, এ বছর জগন্নাথপুর উপজেলায় ৫০টি প্রকল্প বাস্তবায়ক কমিটি (পিআইসি) গঠনের মাধ্যমে হাওরের ফসলরক্ষা বেড়িবাঁধের কাজ শুরু হয়েছে। এতে বরাদ্দ পাওয়া গেছে ৫ কোটি টাকা। পাউবোর নীতিমালা অনুয়ায়ী গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর থেকে বাঁধের কাজ শুরু করে আগামী ২৮ ফ্রেরুয়ারীর মধ্যে শেষ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তুু গত জানুয়ারী মাসের প্রথম সপ্তাহের কাজ শুরু হয় এ উপজেলায়।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের জগন্নাথপুর উপজেলা আঞ্চলিক কার্যালয়ের দায়িত্বরত কর্মকর্তা হাসান গাজী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করতে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির (পিআইসি) সদস্যদের নির্দেশ করা হয়েছে। গতকাল (মঙ্গলবার) পযর্ন্ত ৪৫ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আমরা সার্বক্ষনিক হাওরের বাঁধের কাজ তদারকি করছে। চলতি সপ্তাহেই ২য় পর্যায়ের টাকা দেয়া হবে কাজের মান দেখে। আমরা আশাবাদী নির্ধারিত সময়ের পূর্বে বাঁধের কাজ শেষ করা হবে।
জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শওকত ওসমান মজুমদার বলেন, এবার জগন্নাথপুর নলুয়া হাওরসহ উপজেলার ছোট-বড় ১৫টি হাওরে ২১ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো ফসল চাষাবাদ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24