বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৮:০২ পূর্বাহ্ন

জগন্নাথপুরে সৎ মেয়েকে ধর্ষনকারী লম্পট পিতার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ৩০ জুলাই, ২০১৬
  • ৪৪ Time View

স্টাফ রিপোর্টার::
জগন্নাথপুরের পল্লীতে সৎ পিতা কর্তৃক সপ্তম শ্রেনীতে পড়ুয়া ১৩ বছরের কিশোরী মেয়েকে ধর্ষনের ঘটনায় লম্পট পিতার ‍দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন সচেতন জগন্নাথপুরবাসী। পুলিশ লম্পট নুর মিয়া (৪৫) কে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার আদালতে প্রেরন করেছে। ধর্ষিতা কিশোরীকে পুলিশ ডাক্তারী পরীক্ষা শেষে তার মামা নুরুল হকের হেফাজতে দিয়েছে। চাঞ্চল্যকর ধর্ষনের ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের মোল্লারগাঁও গ্রামে। ধর্ষিতার মামা উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের পাড়ারগাঁও গ্রামের আপ্তাব আলীর পুত্র নুরুল হক ধর্ষনের ঘটনার বিষয়ে জানান, তার বোন হাওয়ারুন বেগমকে প্রায় ১৫বছর পূর্বে একই ইউনিয়নের সাদিপুর গ্রামের আর্শ্বাদ আলীর সাথে বিয়ে দেন। আর্শ্বাদ আলীর ঔরশে ধর্ষিতা কিশোরীর জন্ম হয়। হাওয়ারুন বেগম প্রায় ৮বছর আর্শ্বাদ আলীর সাথে সংসার জীবন কাটালে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কলোহ সৃষ্টি হওয়া তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। হাওয়ারুন বেগম তার ধর্ষিতা কন্যাকে নিয়ে পিত্রালয়ে বসবাস করেন। প্রায় ৬বছর পূর্বে হাওয়ারুন বেগমকে দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামের আব্দুল কাদিরের পুত্র নুর মিয়ার কাছে দ্বিতীয় বিয়ে দেন। চলতি বছরের মে মাসের মাঝামাঝি সময়ে হাওয়ারুন বেগম তার একমাত্র কন্যা ধর্ষিতা কিশোরীকে তার দ্বিতীয় স্বামী নুর মিয়ার কাছে রেখে গৃহকর্মী হিসেবে সৈৗদি আরবে পাড়ি জমান। হাওয়ারুন বেগম তার মেয়ের লেখা পড়াসহ সব সময় সুনজরে রাখতে তার স্বামী ধর্ষক নুর মিয়াকে অনুরোধ করে যান। এর পর থেকেই একা ঘরে লম্পট নুর মিয়া কিশোরীর প্রতি লুলুপ দৃষ্টি দেয়। সম্প্রতি হাওয়ারুন বেগম সৌদি আরব থেকে স্বামী নুর মিয়ার কাছে টাকা পাঠায়। টাকা হাতে পেয়েই লম্পট নুর মিয়া কিশোরীকে প্রলোভন দিয়ে ২৪ জুলাই রবিবার প্রথমে সুনামগঞ্জ শহরে একটি আবাসিক হোটেলে ২৫জুলাই সোমবার সিলেট শহরের একটি আবাসিক হোটেলে রাত্রী যাপন করে এবং সেখানে লম্পট নুর মিয়া দুটি রাতেই সৎ মেয়েকে ধর্ষন করে। ২৭ জুলাই বুধবার কিশোরীর শারিরিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় দুপুরে লম্পট নুর মিয়া তাকে নিয়ে স্থানীয় বাজারে চিকিৎসা করানোর জন্য গেলে রাস্তা থেকে কিশোরী পালিয়ে মামার বাড়ি পাড়ারগাঁও গ্রামে এসে বৃদ্ধ নানী রাজবানুর কাছে পাষন্ড লম্পট ধর্ষক নুর মিয়া কর্তৃক দুটি রাতের পাশবিক নির্যাতনের ঘটনা বর্ননা করে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। এ ব্যাপারে ঐদিনই ধর্ষিতার মামা নুরুল হক থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে রাত সাড়ে ৯টায় ওসি তদন্ত খান মো: মাইনুল জাকিরের নেতৃত্বে পুলিশ তার নিজ বাড়ি থেকে ধর্ষক নুর মিয়াকে গ্রেফতার করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই আব্দুল কাদের জানান, বৃহস্পতিবার ২৮জুলাই ধর্ষক নুর মিয়াকে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে এবং ধর্ষিতা কিশোরীর ডাক্তারী পরীক্ষা শেষে মামলার বাদি তার মামা নুরুল হকের হেফাজতে দেয়া হয়েছে। এদিকে চাঞ্চল্যকর সৎ পিতা কর্তৃক মেয়েকে ধর্ষনের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এলাকাবাসী ধর্ষককে ধিক্কার ও তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী জানিয়েছেন জগন্নাথপুরের বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24