বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৫৬ পূর্বাহ্ন

জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কের সংস্কার কাজের প্রতিশ্রুতি দিলেও কাজ হয়নি

বিশেষ প্রতিনিধি::
  • Update Time : রবিবার, ২১ জুলাই, ২০১৯
  • ৩৯২ Time View

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে এক সপ্তাহের মধ্যে সড়কের সংস্কার কাজ শেষ করার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও কাজ সম্পন্ন হয়নি।
আজ রোববার পর্যন্ত সড়কের কোথাও কাজ করতে দেখা যায়নি।
স্থানীয় পরিবহন শ্রমিকরা জানান,  জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ-রশিদপুর সড়কের বেহালদশায় সড়ক সংস্কারের দাবিতে গত রোববার  (১৪ জুলাই) পরিবহন শ্রমিক ও মালিক সমিতির অনিদিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘটের ঘোষনা দেয়। সকাল ৬টা থেকে দুপুর পর্যন্ত কর্মসুচিও চলছিল। এরমধ্যে স্থানীয় প্রশাসন ও এলজিইডির পক্ষ থেকে প্রতিশ্রুতি প্রদান করা হলেও এক সপ্তাহের মধ্যে সড়কের সংস্কার কাজ শেষ হবে। এই আশ্বাসে দুপুরের দিকে ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে। ধর্মঘট প্রত্যাহারের দিন সড়কের সামান্য ইটের খোয়া ফেলে সংস্কার কাজ শুরু করা হলেও আজ পর্যন্ত কাজ হয়নি আর।
জগন্নাথপুরের পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি নিজামুল করিম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন,উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রতিশ্রুতির প্রেক্ষিতে আমরা পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করি। আজ তাদের প্রতিশ্রুতি এক সপ্তাহ শেষ হয়েছে। এই একসপ্তাহের মধ্যে সংস্কার কাজ না হওয়ায় আমরা ক্ষুব্দ ও হতাশ। তিনি জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বিভাগীয় শহর সিলেট ও রাজধানীতে যাতায়াতের প্রধান সড়কটি যানচলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এঅবস্থায় যানচলাচল সম্ভব নয়। শ্রীঘ্রই আমরা সভা ডেকে পরবর্তী পদক্ষেপ নিব।
এলাকাবাসী ও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্র জানায়, ২০১৭ সালে জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কের জগন্নাথপুরের ১৩ কিলোমিটার অংশ সংস্কারের জন্য প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হলে সুনামগঞ্জের ঠিকাদারি ষ্ঠান মেসার্স নূরা এন্টার প্রাইজ সড়কে নামমাত্র কাজ করে বিল তুলে নেয়। সড়কে নি¤œমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে কাজ করায় সংস্কার কাজের তিনমাসের মাথায় সড়কজুড়ে ভাঙাচোর, গত আর খানাখন্দ দেখা দিলে ২০১৮ সালে ১০ লাখ টাকার জরুরী সংস্কার করা হয়। চলতি বছর সড়কের বেহালদশা দেখা দিলে মানুষ বিক্ষুব্দ হয়ে উঠে। পরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর সড়কে অস্থানীয় মেরামতের জন্য ১৩ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়। কাজ পায় সুনামগঞ্জের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স রেনু এন্টার প্রাইজ। গত ঈদুল ফিতরের আগের দিন সড়কের হামজা কমিউনিটি সেন্টারে সামনে যৎ সামান্য অস্থানীয় মেরামত করে কাজ বন্ধ করা হয়। গত ১৪ জুলাই পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিলে ওই দিন  ঠিকাদার সামান্য কাজ করে আবারও কাজ বন্ধ রাখে।
জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক জয়দ্বীপ সূত্রধর বীরেন্দ্র জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, সড়কের বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় ভারত নিবাসের সামনে গত কয়েকদিন ধরে বন্যার পানিতে সড়কটি যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হতে চলেছে। বার বার স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদদপ্তরের সুদৃষ্টি আকর্ষণ করলেও তারা নীরব ভূমিকা পালন করছে। তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের গাফিলতি ও দায়িত্বহীনতার কারনে সড়কটি সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করছে।
সুনামগঞ্জের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স রেনু এন্টার প্রাইজের ঠিকারদার রেনু মিয়ার সঙ্গে মুঠোফোন যোগাযোগ করেও তাঁকে পাওয়া যায়নি।
স্থানীয় সরকার জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) গোলাম সারোয়ার জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, আমরা ঠিকাদার কে তাগদা দিয়েছি দ্রুত ১৩ লাখ টাকার সংস্কার কাজ শেষ করার জন্য। তিনি বলেন, গত কয়েকদিনের বৃষ্টির কারণে কাজ করা যায়নি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24