শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯, ০৮:২৪ পূর্বাহ্ন

জগন্নাথপুরের আটঘর ক্রীড়া ও উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে সড়কবাতি স্থাপন

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯
  • ১০৩ Time View

স্টাফ রিপোর্টার ::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের আটঘর গ্রামের সব ক’টি গ্রামীণ রাস্তায় সড়কবাতি স্থাপন করেছে আটঘর ক্রীড়া ও উন্নয়ন সংস্থা নামে একটি সামাজিক সংগঠন। ফলে রাতের আধার কেটে আলোকিত হয়ে উঠেছে গ্রামের রাস্তা-ঘাট। এতে খুশি গ্রামের লোকজন।
বৃহস্পতিবার স্থানীয় আটঘর সরকারী বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আনুষ্ঠিতভাবে সড়কবাতির সংযোগ উদ্বোধন করা হয়েছে।
এ উপলেক্ষে সংগঠনের সভাপতি লিতু খানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এম এম সুলতান মিয়ার পরিচালনায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য দেন আটঘর জামে মসজিদের মুতোওয়াল্লি আব্দুল সহিদ খান, যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবুল মুনসুর খান, অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল মুক্তাদির খান, আটঘর জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা গিয়াস উদ্দিন,সংগঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি মুর্শেদ খান।
সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ক্রীড়া সম্পাদক আফজল খান। এ সময় মধ্যে হাজী সিদ্দিকুর রহমান খান, হাজী নুনু মিয়া খান, আনিছ খান, সুন্দর আলী, ছামির আলী, সইরত খান, সংগঠনের উপদেষ্টা ক্বারী মশাহিদ খান, মাষ্টার সুনীল চন্দনাথ, সাজর আলী, সংগঠনের যুগ্ন সম্পাদক রোকন খান শিশু, সাংগঠনিক সম্পাদক রিপন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক লুকু খান, কোষাধ্যক্ষ হাসান খান, সহ কোষাধ্যক্ষ রুমান খান, রেদোয়ান খান, সহ দপ্তর সম্পাদক রুবেল মিয়া, ত্রান ও দুর্যোগ সম্পাদক মারুফ খান, সহ সমাজ সেবা সম্পাদক মজির উদ্দিন, সহ প্রচার সম্পাদক মুরাদ খান,সদস্য সফি খান,সাজুর খান,সালমান খান,আরমান খানসহ এলাকাবর বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
গ্রামের বাসিন্দা অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুল মুক্তাদির খান জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আমাদের গ্রামের কোন সড়কবাতি ছিল না। গ্রামের যুবকদের সমন্বয়ে গঠিত সামাজিক সংগঠন আটঘর ক্রীড়া ও উন্নয়ন সংস্থা নামক এ সংগঠনটি অনেকদিন ধরেই আত্মসামাজিক উন্নয়নের কাজ করে আসছে। এবার সংগঠনিক উদ্যোগে পুরো গ্রামের সব কটি সড়কের মোড় মোড় বাতি লাগালো হয়েছে। সত্যিই এটি প্রসংশিত প্রচেষ্ঠা।
আটঘর ক্রীড়া ও উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি লিতু খান জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আটঘর গ্রামের ৩ থেকে ৪টি গ্রামীন রাস্তা রয়েছে। আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রায় দুই লাখ টাকা ব্যয়ে প্রতিটি সড়কের মোড়ে ৭০টি লোমপোষ্ট স্থাপন করা হয়েছে। প্রতিমাসের বিদ্যুতের বিল সংগঠন থেকে পরিশোধ করা হবে। তিনি বলেন, সড়কবাড়ির লাগানোর ফলে গ্রামবাসী রাতের বেলা যাতায়াতের সুফল পাবেন। পাশাপাশি এলাকায় চুরি-ডাকাতিসহ রাতের অপরাধমুলক ঘটনা রোধেও সহায়ক হবে।
মীরপুর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জমির উদ্দিন জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এটি একটি মহতি উদ্যোগ। একটি সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে গ্রামের অন্ধকার কেটে এখনও আলোকিত হয়ে উঠেছে। আমরা আয়োজকদের অভিনন্দন জানাই।
জগন্নাথপুর উপজেলা বিদ্যুৎ প্রকৌশলী আজিজুল ইসলাম সত্যতা নিশ্চিত করে জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আমরা তাদেরকে সহযোগিতা করবো।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24