মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে পঞ্চাশ ঊর্ধ্ব ব্যক্তির বয়স ২৪ বছর! এ অভিযোগে মনোনয়ন বাতিল, গেলেন আপিলে জগন্নাথপুরে নদীর পাড় কেটে মাটি উত্তোলনের দায়ে দুই ব্যক্তির কারাদণ্ড জগন্নাথপুর বাজার সিসি ক্যামেরায় আওতায় আনতে এসআই আফসারের প্রচারণা জগন্নাথপুরে নিরাপদ সড়ক ও যানজটমুক্ত রাখতে প্রশাসনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুর উপজেলা ক্রিকেট এসোসিয়েসনের নতুন কমিটি গঠন মিরপুরে আ.লীগ প্রার্থী আব্দুল কাদিরের সমর্থনে কর্মীসভা অনুষ্ঠিত ফেসবুকে ক্ষমা চেয়েছেন ছাত্রলীগের সাবেক সম্পাদক রাব্বানী প্রায়ই বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকেন শিক্ষক জগন্নাথপুরে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার, থানায় জিডি সংস্কারের দাবীতে জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে মঙ্গলবার থেকে আবারও অনিদিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট

ডিসেম্বরে জগন্নাথপুরসহ ২৪৫ পৌরসভার নির্বাচন- প্রবাস থেকে প্রার্থীরা আসছেন দেশে

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০১৫
  • ৪১ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক:: আগামী ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে জগন্নাথপুরসহ ২৪৫ পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। একই সঙ্গে সারা দেশের সাড়ে ৪ হাজার ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন করার চিন্তা করছে ইসি। তাই আসন্ন পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠনের প্রস্তুতি নিয়ে ব্যস্ত নির্বাচন কমিশন। চলতি বছরের শেষে বা আগামী বছরের শুরুতে এসব নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য আগাম প্রস্তুতি শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়। এক্ষেত্রে নভেম্বর বা ডিসেম্বরে এসব নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হতে পারে। এদিকে জগন্নাথপুরসহ ২৪৫ পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র চেয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগকে চিঠি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়।
জানা গেছে, চলতি বছরের ১১ নভেম্বর থেকে আগামী বছরের ১১ মার্চের মধ্যে ২৪৫ পৌরসভায় নির্বাচন করতে হবে। তাই আগামী বছরের মার্চের মধ্যে সারা দেশের ২৪৫ পৌসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠানের আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এ ছাড়া চলতি বছরের অক্টোবর থেকে নির্বাচনের সময় হয়ে আসছে সাড়ে ৪ হাজার ইউনিয়ন পরিষদে। আগামী বছরের জুনের মধ্যে এসব ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন করতে হবে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি)। এ জন্য আগাম প্রস্তুতির কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনরের কর্মকর্তারা। সব মিলিয়ে ইসির নির্বাচনী ক্যালেন্ডারে আগামী বছর জুড়েই থাকবে স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন নির্বাচন।এদিকে নতুন অর্থবছরে ইসির জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে অনুন্নয়ন খাতে ৫১২ কোটি ৩৬ লাখ টাকা এবং উন্নয়ন খাতে ৯৬৪ কোটি ৫৬ লাখ টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এর মধ্যে প্রস্তাবিত বাজেটে নির্বাচন খাতে ৩২১ কোটি ৪৩ লাখ ৭৬ হাজার টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। ইসি কর্মকর্তারা জানান, আগামী অর্থবছরে দেশজুড়ে সাড়ে ৪ হাজার ইউনিয়ন পরিষদ ও তিন শতাধিক পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ সময় স্থানীয় সরকারের কিছু উপনির্বাচনও অনুষ্ঠিত হবে।আসন্ন পৌরসভা নির্বাচন সম্পর্কে জানতে চাইলে একজন নির্বাচন কমিশনার বলেন, কোন সময় কতগুলো পৌরসভা নির্বাচন করা যায় তা নিয়ে প্রাথমিক আলোচনা চলছে। নির্বাচনের বিষয়ে সুস্পষ্ট কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি এখনো। পৌরসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক না হলেও সম্ভাব্য প্রার্থীরা নানাভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছেন। পাশাপাশি তৃণমূল পর্যায়ের নানা উন্নয়ন কর্মকাণ্ড, বিভিন্ন দিবস উপলক্ষে জনসংযোগ, দলীয় ও স্থানীয় সভা-সমাবেশ এবং সামাজিক কর্মকাণ্ডে অংশ নিচ্ছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। পাশাপাশি দলীয় সমর্থন পেতে আগে ভাগেই স্থানীয় সংসদ সদস্য ও সিনিয়র নেতাদের আস্থাভাজন হওয়ারও চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। প্রবাসী অধ্যুষিত জগন্নাথপুরের প্রবাসী প্রাথীরা ইতিমধ্যে দেশে আসা শুরু করে দিয়েছেন। আগামী ১৩ আগষ্ট দেশে আসছেন জগন্নাথপুর পৌরসভার প্রথম পৌর চেয়ারম্যান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক প্রয়াত আওয়ামীলীগ নেতা হারুনুর রশীদ হিরন মিয়া পুত্র সাবেক পৌর মেয়র মিজানুর রশীদ ভূঁইয়া। ইতিমধ্যে তিনি দেশে থাকা স্বজন ও আওয়ামীলীগের শীর্ষনেতাদের সাথে যোগাযোগ করছেন। এছাড়াও সাবেক পৌর মেয়র আব্দুল মনাফ প্রবাস থেকে দেশে এসে মাঠে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। মাঠে রয়েছেন গত নির্বাচনে অংশগ্রহনকারী যুক্তরাজ্য প্রবাসী আব্দুল হান্নান ও নুরূল করিম। এছাড়াও গত নির্বাচনে অংশ নেয়া সাবেক পৌর কমিশনার লুৎফুর রহমান ফাজিলপুর বালি মহাল ইজারা দেয়ার ঘটনায় সুনামগঞ্জে তোলপাড় : প্রধান বিচারপতির হস্তক্ষেপ কামনা রয়েছেন। কিছুদিনের মধ্যে তিনি দেশে অাসছেন বলে তার ঘনিষ্টজনরা জানিয়েছেন।
নির্বাচন শাখার কর্মকর্তারা জানান, প্রতিটি নির্বাচনের আগাম প্রস্তুতি নিতে হয়। এর অংশ হিসেবে পৌরসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করেছেন তারা। নির্বাচনযোগ্য পৌরসভাগুলোর একটি তালিকা তৈরি করে ইতিমধ্যেই তারা কমিশনকে দিয়েছেন। এ ছাড়া স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের কাছে পৌরসভার তালিকা চাওয়া হয়েছে। ওই তালিকা পাওয়ার পর যেসব পৌরসভায় নির্বাচন করার উপযোগী হবে তা নির্ধারণ করা হবে।নভেম্বরে নির্বাচন উপযোগী হচ্ছে পৌরসভা : চলতি বছরের ১১ নভেম্বর থেকে আগামী বছরের ১১ মার্চের মধ্যে ২৪৫ পৌরসভায় নির্বাচন করতে হবে। সারা দেশে পৌরসভা রয়েছে ৩১৭টি। এর মধ্যে নির্বাচন উপযোগী রয়েছে ২৮৫টি। তবে সীমানা জটিলতার কারণে এই মুহূর্তে ২৬টিতে নির্বাচন করা সম্ভব হচ্ছে না। কিছু পৌরসভায় সীমানা নির্ধারণের কাজ চলছে। আর কয়েকটিতে সম্প্রতি নির্বাচন হয়েছে।১২ জানুয়ারি ২০১১ থেকে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত এসব পৌরসভায় নির্বাচন হয়েছিল। এসব পৌরসভায় প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারির প্রথম ও দ্বিতীয় সপ্তাহে। সেই হিসাব অনুযায়ী পূর্ববর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার বিধান রয়েছে।অক্টোবরে নির্বাচন উপযোগী হচ্ছে ইউপি : চলতি বছরের অক্টোবর থেকে আগামী বছরের জুনের মধ্যে সাড়ে ৪ হাজার ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন সম্পন্ন করার পরিকল্পনা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। স্থানীয় সরকারের সবচেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ এই নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে সম্প্রতি প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ বলেন, মামলাসহ সব ধরনের জটিলতা দূর করে এ নির্বাচন দেওয়া হবে। ২০১১ সালের মার্চে শুরু হয়ে জুনের মধ্যে সম্পন্ন হয় ৪ হাজার ৫০১টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯-এ বলা আছে, পরিষদ গঠনের জন্য কোনো সাধারণ নির্বাচন ওই পরিষদের জন্য অনুষ্ঠিত পূর্ববর্তী সাধারণ নির্বাচনের তারিখ থেকে ৫ বছর পূর্ণ হওয়ার ১৮০ দিনের (৬ মাস পূর্বে) মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে। অতএব ২০১১ সালের মার্চে যেসব ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল, সেগুলো এ বছরের অক্টোবরের পর নির্বাচন উপযোগী হবে। আর বাকি ইউনিয়ন পরিষদগুলোর নির্বাচন ২০১৬ সালের জানুয়ারি থেকে করা যাবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24