বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০৬:২২ পূর্বাহ্ন

দিরাইয়ে ৫ শিক্ষকের বিরুদ্ধে অবৈধ পদোন্নতির অভিযোগ

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭
  • ৪৭ Time View

আবু হানিফ চৌধুরী, দিরাই
দিরাইয়ে পৃথক পাঁচটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ জন শিক্ষক এর বিরুদ্ধে অবৈধ ভাবে পদোন্নতি নেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে। এরা হলেন উপজেলার সাদিরপুর স্কুলের শিক্ষক হাবিবুর রহমান, পানগাঁও স্কুলের শিক্ষক অপূর্ব কুমার দাস, ধনপুর চন্ডিপুর স্কুলের শিক্ষক মো. ফুরকান আলী, নোয়ারচর স্কুলের শিক্ষক হিরেন্দ্র কুমার রায়, ডাইয়ারগাঁও স্কুলের শিক্ষক বলরাম দাস।
এদিকে, আজ শুক্রবার বিকেল ৩টায় সুনামগঞ্জের সহকারি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (এডিপিও) মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন পূর্ণাঙ্গ তদন্তে দিরাই আসছেন বলে জানা গেছে। কিছুদিন আগে সুনামগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হযরত আলী অবৈধ পদোন্নতির বিষয়ে তদন্ত করার দায়িত্ব দেন সহকারি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেনকে। কিন্তু রহস্য জনক কারণে তখন তদন্ত করলেও প্রতিবেদন দেয়া হয়নি বলে সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা যায়।
তবে এডিপিও মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলছেন, অভিযোগ পাইছি, কিছু দিন আগে বিষয়টি তদন্তে আমাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল, আমি তদন্ত শুরু করেছিলাম, পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করতে পারি নাই, তখন অভিযুক্ত শিক্ষকদের কাগজপত্র দিতে বলছিলাম কিন্তু তারা সেগুলো দেয় নাই। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে বলছি পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করতে দিরাই আসছি। তাদেরকে কাগজ পত্র নিয়ে হাজির হওয়ার জন্যে।
উপজেলা শিক্ষা অফিসের দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, নিয়োগকালীন সময় এসব শিক্ষকদের ৫ জনের বয়স ১৮ বছরের কম ছিল। এর মধ্যে হাবিবুর রহমানের বয়স ১৪ বছর ১১ মাস ২৯ দিন, বলরাম দাসের বয়স ১৫ বছর ৬ মাস
৯ দিন, হিরেন্দ্র কুমার রায় এর বয়স ১৫ বছর ১১ মাস, অপূর্ব কুমার দাসের বয়স ১৬ বছর ২ মাস ২৫ দিন, ফুরকান আলীর বয়স ১৭ বছর ৭ মাস ৯ দিন। উপ-পরিচালক প্রশাসন আনন্দ চন্দ্র বিশ্বাস, স্বাক্ষরিত বাধ্যতামূলক প্রাথমিক শিক্ষা বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষণ ইউনিট, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, শিক্ষাভবন, ঢাকা থেকে ০৫/০২/২০০৮ ইং তারিখে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে প্রেরিত পত্রের সাথে সংযুক্ত এসব শিক্ষকদের চাকুরী সংক্রান্ত তথ্যাবলী থেকে জানা যায়, সহকারি শিক্ষক অপূর্ব কুমার দাস এর জন্ম তারিখ ১০-১০-১৯৭৪ ও চাকুরীতে যোগদানের তারিখ- ০৫-০১-১৯৯১। হাবিবুর রহমানের জন্ম তারিখ ০২-০১-১৯৭৫ ও যোগদানের তারিখ ০১-০১-১৯৯০। হিরেন্দ্র কুমার রায় এর জন্ম তারিখ ০১-০২-১৯৫৮ ও যোগদানের তারিখ ০১-০১-১৯৭৪। বলরাম দাসের জন্ম তারিখ ০১-০৭-১৯৭৪ ও যোগদানের তারিখ ১০-০১-১৯৯০। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা জানান, দিরাইয়ের অধিকাংশ স্কুলই রেজিষ্ট্রেশন হয়েছে ১৯৯৪-৯৫ সালে। কিন্তু এর আগেই সরকার পরিপত্র জারি করে যে, ০১-০৭-১৯৯২ ইং তারিখের পর বে-সরকারি স্কুলে নিয়োগ পেতে হলে সরকারি শিক্ষক নিয়োগের যে যোগ্যতা নির্ধারণ করা আছে তা প্রযোজ্য হবে। যে কারণে এসব শিক্ষকরা নিয়োগপত্র/যোগদানপত্র পরিবর্তন করতে পারেননি। নীতিমালা অনুসারে সহকারি শিক্ষক পদে, নিয়োগকালীন সময় আবেদনকারীর বয়স ১৮ বছরের কম হলে প্রধান শিক্ষক হিসেবে পদোন্নতির কোন সুযোগ নেই। তা ছাড়াও এসএসসি,এইচএসসি ও ¯œাতক বা সমমানের পরীক্ষার মধ্যে অন্তত যে কোন একটিতে দ্বিতীয় বিভাগ থাকতে হবে।
অভিযোগ রয়েছে, তৎকালীন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার স্বাক্ষর জাল করে প্রধান শিক্ষকের উচ্চতর স্কেল অনুমোদন করিয়ে আনেন, বাধ্যতামুলক প্রাথমিক শিক্ষা বাস্তবায়ন ও পরীক্ষন ইউনিট শিক্ষা ভবন ঢাকা থেকে। এতে উপজেলা শিক্ষা কমিটির কোন প্রত্যয়ন নেই। তবে অভিযুক্ত শিক্ষক অপুর্ব কুমার দাস দাবি করছেন, উপজেলা শিক্ষা কমিটি ও জেলা কমিটির অনুমোদন নিয়ে চাকুরীর নীতিমালা যথাযথভাবে পূরণ করেই ৫ জন শিক্ষক পদোন্নতি পেয়েছেন, জালিয়াতির অভিযোগ সঠিক নয়, তদন্তের বিষয়টি আমি জানি না, আমাদেরকে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে।
তবে অভিযুক্ত শিক্ষক অপুর্ব কুমার দাস দাবী করছেন, উপজেলা শিক্ষা কমিটি ও জেলা কমিটির অনুমোদন নিয়ে চাকুরীর নীতিমালা যথাযথভাবে পূরণ করেই ৫ জন শিক্ষক পদোন্নতি পেয়েছেন, জালিয়াতির অভিযোগ সঠিক নয়, তদন্তের বিষয়টি আমি জানি না, আমাদেরকে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে।
উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুর রাজ্জাক বলেন, ২০১৩ সালের নীতিমালা অনুসারে যে সকল যোগ্যতা থাকার প্রয়োজন ওদের ক্ষেত্রে অনেক ত্রুটি আছে। ত্রুটি থাকলেও উনারা কিভাবে করে নিয়ে আসছেন তা আমার জানা নেই।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24