রবিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৯, ১২:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরের পাটলীতে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা জগন্নাথপুরে গাছ কাটার ঘটনায় যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা হচ্ছে জগন্নাথপুরে শিকল দিয়ে তিনদিন বেঁধে রাখার পর রিকশাচালকের মৃত্যু:হত্যা মামলা দায়ের ভারত বিনা যুদ্ধেই হারাচ্ছে জঙ্গি বিমান, নিহত হচ্ছেন পাইলট ২০০৫ সালের সিরিজ বোমা হামলার বিচার অবশ্যই হবে: পরিকল্পনামন্ত্রী সাপের ছোবলে শিশুর মৃত‌্যু বণাঢ্য আয়োজনে জনপ্রিয় দৈনিক সুনামগঞ্জের খবরের বর্ষপূর্তি উদযাপন দৈনিক সুনামগঞ্জের খবরের এবার বর্ষসেরা প্রতিনিধি হলেন আশিক মিয়া বঙ্গবন্ধুকে ‘ফ্রেন্ড অব দ্য ওয়ার্ল্ড, হিসেবে আখ্যা দিল জাতিসংঘ জগন্নাথপুরে তিন লাখ টাকা মূল্যের সরকারি গাছ ‘কেটে’ নিলেন যুবলীগ নেতা।

ধর্ষণের সময় সবকিছু ভিডিও করেন বিল্লাল

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৬ মে, ২০১৭
  • ২৩ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: রেইনট্রি হোটেলে দুই তরুণীকে ধর্ষণের সময় সবকিছু ভিডিও করছিলেন মামলার মূল আসামি সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন। বিল্লালকে গ্রেপ্তারের পর রাতে কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে ব্রিফিংয়ের সময় একথা জানান র‌্যাব-১০-এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন মাতুব্বর। তিনি বলেন, নবাবপুরের ইব্রাহিম হোটেল থেকে বিল্লালকে গ্রেপ্তার করা হয়। সকালে সিলেট থেকে ঢাকায় এসে ওই হোটেলে উঠেছিলেন তিনি। সোমবার রাতে রহমতকে গুলশান থেকে গোয়েন্দা পুলিশ এবং বিল্লালকে নবাবপুর রোড থেকে র‌্যাব গ্রেপ্তার করে। এই মামলার আরেক আসামি নাঈম এখনো পলাতক আছেন।

ব্রিফিংয়ে লিখিত বক্তব্যে র‌্যাব বলেছে, ঘটনার দিন ২৮ মার্চ বিকেলে বিল্লাল গুলশান ২ থেকে সাফাতের এক বান্ধবী ও বনানীর ১১ নম্বর থেকে আরেক বান্ধবীকে নিয়ে হোটেল রেইনট্রিতে যান। এর আগে শাফাত ও নাঈম সেখানে যান। রাত আটটা থেকে সোয়া আটটার দিকে শাফাত তাকে ফোন করে বারিধারা থেকে তার দেহরক্ষী রহমতকে নিয়ে আসতে বলেন। এরপর তিনি অন্য একটি স্থান থেকে ধর্ষণের শিকার দুই ছাত্রীকে গাড়িতে তুলে রাত সাড়ে নয়টার দিকে আবার হোটেলে যান। আগে হোটেলে আসা দুই তরুণী তখন চলে যান। এরপর বিজয়নগর থেকে আরেক তরুণীকে নিয়ে হোটেলে আসেন। হোটেলের সুইমিংপুলে সবাইকে সাঁতার কাটতে দেখেন তিনি। ওই নারীদের একজন চিকিৎসক বন্ধুও ছিলেন। রাত চারটার দিকে শাফাত ও নাঈম দুই কক্ষে দুই নারীকে ধর্ষণ করেন। এ সময় বিল্লাল দুই কক্ষের মাঝের জায়গা থেকে সবকিছু ভিডিও করেন।

র‌্যাব কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন মাতুব্বর বলেন, মামলা হওয়ার পর বিল্লাল তার মুঠোফোন থেকে ভিডিওটি মুছে ফেলেন বলে জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24