শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯, ০৪:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ জগন্নাথপুরের টমটম চালকের হত্যাকাণ্ড উন্মোচিত,ঘাতকের স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান জগন্নাথপুরে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় জন্মাষ্টমী উদযাপন জগন্নাথপুরে সরকারি গাছ কাটায় সেই যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ভারত-পাকিস্তান গুলি বিনিময় প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা ১৭ নভেম্বর টমটম গাড়ীর জন্য জগন্নাথপুরের এক চালককে রশিদপুরে নিয়ে খুন,গ্রেফতার-১ জেলা আ.লীগের গণমিছিল ৫ বছরেও শেষ হয়নি জগন্নাথপুরের ভবেরবাজার-গোয়ালাবাজার সড়কের কাজ,দুর্ভোগ লাখো মানুষের “জুম্মু কাশ্মীরে,গণতহ্যা শুরু করেছে মোদী সরকার”

নবীগঞ্জ উপজেলার সংবাদ

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ১৬ এপ্রিল, ২০১৮
  • ৫৬ Time View

নবীগঞ্জ পৌরসভায় নিয়োগ পরীক্ষায় অনিয়মের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও পৌরসভা কার্য্যালয় ঘেরাও
নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ)সংবাদদাতা:হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ পৌরসভার ৭টি পদে নিয়োগ পরীক্ষায় অনিয়ম, দূর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগে বিক্ষোভ মিছিল ও পৌরসভা কার্য্যালয় ঘেরাও করেছে নিয়োগ পরীক্ষায় বঞ্চিতরা। এ সময় উত্তেজিত আন্দোলনকারীরা পৌর মেয়রের কার্যালয়ের একটি গøাস ভাংচুর করেছে। আন্দোলনকারীদের ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটামের প্রেক্ষিতে ও স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপে পৌর কর্তৃপক্ষ ৩ দিনের ভিতর বিষয়টি তদন্ত পূর্বক মিমাংসা দেওয়ার আশ্বাসে তারা বাড়ি ফিরেন। আন্দোলনকারী ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে প্রকাশ, চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারী পত্রিকার মাধ্যমে ওই পৌরসভার সার্ভেয়ার, সহকারী এ্যাসেসর, সরকারী লাইসেন্স পরিদর্শক, হিসাব সহকারী, নি¤œমান সহকারী কাম-মুদ্রাক্ষরিক, ট্রাক চালক, অফিস সহায়ক ৭টি পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। এরই প্রেক্ষিতে ২৫ ফেব্রæয়ারী পর্যন্ত ৭ টি পদের বিপরীতে প্রায় ৩শ ৮৬ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেন। আবেদনকারীদের মধ্য থেকে বিভিন্ন অজুহাতে ১শত ৪২ জনের আবেদন বাতিল করে পৌর কর্তৃপক্ষ। অবশিষ্ট ২শ ৪৪ জনের লিখিত ও মৌখিত পরীক্ষায় অংশ গ্রহনের জন্য প্রবেশ পত্র দেয়া হয়। তবে ২০৩ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৩ এপ্রিল শুক্রবার সকাল ১০ টা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা নেয়া হয়। অভিযোগ উঠে, পৌর মেয়র আলহাজ্ব ছাবির আহমদ চৌধুরী’র চাচাতো ও মামাতো ভাইসহ ঘনিষ্ট ৭ জনকে পূর্বের ঘোষনা অনুযায়ী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এনিয়ে ওই দিনই আলোচনা সমালোনায় মূখর ছিল পৌর প্রাঙ্গঁন এবং চাকুরী বঞ্চিতদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। তারা কোন উপায় না পেয়ে গতকাল রবিবার বেলা ৩ টায় শহরের নতুন বাজার মোড়ে প্রতিবাদ সমাবেশ ও পৌরসভা ঘেরাও এর ডাক দেন। প্রথমে শহরের নতুন বাজার মোড় থেকে বিভিন্ন লেখা সম্বলিত প্লে-কার্ড নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে পৌরসভা কার্য্যালয় ঘেরাও করে চাকুরী বঞ্চিত বিক্ষোভকারীরা। এ সময় পৌর মেয়রের কার্য্যালয়ে তালা ঝুলানো থাকায় একটি গøাস ভাংচুর করে আন্দোলনকারীরা। এক পর্যায়ে আন্দোলনকারীরা নিয়োগ বাতিলের জন্য ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দেন। খবর পেয়ে তাৎক্ষনিকভাবে উপজেলা পরিষদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব সাইফুল জাহান চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ মিলু, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নির্মেলেন্দু দাশ রানাসহ আওয়ামলীলীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত হয়ে উত্তেজিত আন্দোলনকারীদের সাথে একমত পোষন করে বক্তব্য প্রদানকালে তারা বলেন, নিয়োগে অনিয়ম, স্বজনপ্রীতি, কারচুপি হলে কোন মুর্হুতেই মেনে নেওয়া যাবে না। এ সময় পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ এটিএম সালাম, কাউন্সিলর মোঃ আলা উদ্দিন, কাউন্সিলর প্রাণেশ দেবসহ পৌর কর্তৃপক্ষ উপস্থিত হয়ে উত্তেজিতদের শান্তনা দিয়ে তাদের উদ্যোশে বলেন, আগামী ৩ দিনের মধ্যে জরুরী সভার ডেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন। এ প্রেক্ষিতে আন্দোলনকারীরা ৩ দিনের মধ্যে অবৈধ নিয়োগ বাতিল না হলে বৃহত্তর আন্দোলনের কর্মসুচী ঘোষনা করা হবে বলে হুশিয়ার করে দেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারী কয়েকজন জানান, ওই নিয়োগ পরীক্ষায় নবীগঞ্জ জে কে হাই স্কুলের শিক্ষক রাজিব দাশ হিসাব সহকারী পদে লিখিত পরীক্ষায় পৌর মেয়র ছাবির আহমদ চৌধুরীর চাচাতো ভাই জুয়েল চৌধুরীর পাশে বসে তাকে সহযোগীতা করেন। কিন্তু অদৃশ্য কারনে মৌখিক পরীক্ষায় রাজিব দাশ অংশ গ্রহন করেননি। অবশেষে এ পদে চাকুরী হয়েছে পূর্ব থেকেই আলোচনায় আসা পৌর মেয়র এর চাচাতো ভাই জুয়েল চৌধুরীর। একই স্কুলের শিক্ষক অজয় মেয়র ছাবির আহমদ চৌধুরীর ঘনিষ্টজনের প্রক্সি দেয়।
নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারী ফায়জুর রহমান নিয়োগ কমিটিকে চ্যালেঞ্জ করে জানায়, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় সে শতভাগ উত্তর দিয়েছে এবং তা সঠিক হয়েছে। এরপরও সে অযোগ্য হয়েছে।
এ ছাড়া অযৌক্তিকভাবে প্রায় শতাধিক আবেদন বাতিল করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন আন্দোলনকারীরা।
এ ব্যাপারে নিয়োগ কমিটির সদস্য ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) আতাউল গণি ওসমানী বলেন, মৌখিক পরীক্ষা চলাকালিন সময়ে দুই ছাত্রের রোল নং কাটাকাটি হলে খোঁজ করে তাদেরকে না পাওয়ায় প্রক্সির সন্দেহ হয়। এবং পরে আরেকজন ছাত্র লিখিত পরীক্ষা ভালো হওয়া সত্তে¡ও সে মৌখিক পরীক্ষায় অংশ না নেয়ায় তাকেও প্রক্সি পরীক্ষা দিয়েছে বলে সন্দেহ রয়েছে।
নবীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে মঙ্গল শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত
নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ)সংবাদদাতা:নবীগঞ্জ উপজেলা প্রসানের উদ্যোগে বাংলা নববর্ষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ উপলক্ষে গত শনিবার সকাল ৮ টায় মঙ্গল শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হসানের সভপতিত্বে এবং পজীব কর্মকর্তা শাকিল আহমদের পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন,সহকারী কমিশনার ভুমি আতাউল গনি ওসমানী,উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারন সম্পাদক ও প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক উত্তম কুমার পাল হিমেল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমদ মিলু,মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাদেক হোসেন, উপজেলা পঃ পঃ কর্মকর্তা শাহাদাৎ হোসেন, উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি দিলারা বেগম, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি বিন্দু সুত্রধর,সাবেক সভাপতি আলী আমজাদ মিলন, শিক্ষক কাঞ্চন বনিক, আশফাক উজ্জামান চৌধুরী,যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম প্রমুখ।

নবীগঞ্জের আনন্দ নিকেতনের উদ্যোগে বাংলা নববর্ষ উদযাপন
নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ)সংবাদদাতা: নবীগঞ্জেআনন্দ নিকেতনের উদ্যোগে ও উপজেলা প্রশাসনের সহযোগীতায় উপজেলা পরিষদ মাঠে পৃথক অনুষ্টানেআয়োজন করা হয়। অনুষ্টানমালার মধ্যে ছিল,গান,নৃত্য,নাটক,একক অভিনয়,কবিতা আবৃত্তি। আননন্দ নিওেকতনের আহবায়ক উজ্বল দাশের পরিচালনায় অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডাঃ মুশফিক হোসেন চৌধুরী। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন,উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হাসান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী,উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজমা বেগম,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমদ মিলু,জেলা পরিষদ সদস্য এডভোকেট সুলতান মাহমুদ,মোঃ আব্দুল মালিক, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক লোকমান আহমদ খান, নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও মৈত্রী সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সংসদের সাধারন সম্পাদক উত্তম কুমার পাল হিমেল,পৌর সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি ইকবাল আহমদ বেলাল। এ সময় আনন্দ নিকেতনের সাবেক সভাপতি প্রনব দেব,সাবেক সভাপতি কাঞ্চন বনিক,সাবেক সাধারন সম্পাদক দিপংকর ভট্টচার্য্য দেবুল,রুহেল আহমদসহ সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হবিগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ডাঃ মুশফিক হোসেন চৌধুরী নবীগঞ্জে সুস্থ সংস্কৃতি চর্চ্চা নিরলসভাবে চালিয়ে যাওয়ার জন্য আর্থিক অনুদানের ঘোষনা প্রদান করেন। অনুষ্টানমালায় প্রচুর দর্শকশ্রোতার সমাগম ঘটে।

নবীগঞ্জে শিক্ষকদের সংগীত বিষয়ক প্রশিক্ষন অনুিষ্টত
নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ)সংবাদদাতা:: নবীগঞ্জ উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের আয়োজনে নবীগঞ্জ শিবপাশা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পিইডিপি ৩ এর আওতায়সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকদের ভিত্তিক ৬ দিন ব্যাপী সংগীত বিষয়ক প্রশিক্ষন ৩য় ব্যাচের সমাপনী অনুষ্টান গতকাল রবিবার অনুষ্টিত হয়। এতে অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক উত্তম কুমার পাল হিমেল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগী কোর্সের প্রশিক্ষক শিক্ষক নান্টু লাল দাস,শিক্ষক মিত্রা চৌধুরী,প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সহ সভাপতি গিয়াস উদ্দিন,শিক্ষক অমলেন্দু সুত্রধর প্রমুখ। এতে ৩০ জন প্রশিক্ষনার্থী প্রশিক্ষন গ্রহন করেন এবং মনোমুগ্ধকর সংগীত পরিবেশন করেন।

নবীগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী শাখা বরাক নদী ও শেরপুর রোডের ব্রীজ সংলগ্ন খালটির নিরব কান্না !
উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ নবীগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্দ্র ব্যস্ততম শেরপুর রোডের ১নং ব্রীজের নিচ দিয়ে খালটি শিবপাশা ঠাকুর পাড়ার ভিতর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে নোয়াপাড়া হয়ে শাখা বরাক নদীতে মিলিত হয়েছে। এক সময়ের ঐতিহ্যবাহী শাখা বরাক নদীটি কালের আবর্তে নদীর উভয় পাড় ভুমি দখলদারদের প্রতিযোগীতার কবলে পড়ে বর্তমানে এটি যেন একটি নালায় পরিনত হয়েছে। নবীগঞ্জ শহরের বিভিন্ন দিকেই প্রবাহিত হয়ে যাওয়া শাখা বরাক নদীটি চারদিকে তার নাব্যতা হারিয়ে এখন নিরব কান্না করছে। তা যেন দেখার কেই নেই। মানুষ বেচেঁ থাকার জন্য সুন্দর ও সুস্থ পরিবেশ তার একান্ত প্রয়োজন। আর নবীগঞ্জ শহরের সেই পরিবেশই এখন দস্তুর মত হুমকির মুখে। শেরপুর সড়ক থেকে শিবপাশার দিকে গিয়ে যে খালটি শাখা বরাক নদীতে মিলিত হয়েছে সেটির শেরপুর সড়কের প্রবেশ মুখে এক শ্রেনীর দখলদার চক্র এই খাল দখল করে ইট বালুর ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া আরো অনেক জায়গায় খাল দখল করে আর সরকারী পতিত জায়গা দখল করে অনেকেই বিভিন্ন ব্যবসা করে ফায়দা হাসিল করছে। এছাড়া বাকী জায়গায় ময়লা আবজ¦না ফেলে ভরাট ও খাল মাঠি দিয়ে ভরাট করে চলাচলের রান্তা তৈরী করছে। সাধারন মানুষ ভয়ে এসব কাজের প্রতিবাদ করতে পারছে না। অথচ উপজেলা প্রশাসনের সবোর্চ্চ কর্মকর্তা নির্বাহী অফিসার এবং সহকারী কমিশনার ভুমি মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে এসব অবৈধ দখল উচ্ছেদ করলে একদিকে পানি নিষ্কাসনের সুব্যবস্থা হবে অন্যদিকে প্রাকৃতিক পরিবেশকে ও সঠিকভাবে রক্ষা করা যাবে। যে শাখা বরাক নদী দিয়ে এক সময় ১০ থেকে ১২ বছর আগেও ৫শত মনের নৌকা ধান, ইট,বালু নিয়ে যাতায়াত করত কিন্তু বর্তমানে সেই খাল দিয়ে রাস্তার ও বসতবাড়ির বৃষ্টির পানি পর্যন্ত ঠিকভাবে নিষ্কাষিত হতে পারছে না। বর্তমানে এই খালে নবীগঞ্জ বাজারের সকল ময়লা আবর্জনা ফেলার স্থান হিসাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। খালের উপর জমেছে ময়লার স্তুপ যার ফলে ওসমানি রোড থেকে নতুন বাজার হয়ে ড্রেইনের পানি নিষ্কাষিত হতে পারে না। বর্ষাকালে বৃষ্টির পানি এই খাল দিয়ে বেরুতে না পারায় শিবপাশা এলাকার বাসাবাড়ির উঠানে ও রাস্তায় সব সময় পানি লেগে থাকে। তাই বর্ষাকালের এই করুন পরিস্থিতি থেকে মুক্তি পেতে এলাকাবাসী নবীগঞ্জ উপজেল নির্বাহীা অফিসার এবং সহকারী কমিশনার ভুমি কর্মকর্তার দৃষ্টি কামনা করছেন। নবীগঞ্জের এক সময়ের ঐতিহ্য শাখা বরাক নদীর চারদিকে অবৈধ দখল মুক্ত করতে এবং শহরের আশপাশের বিভিন্ন পাড়ার খাল ও নালা মুক্ত করে সঠিকভাবে খাল খনন রক্ষনাবেক্ষন কর্মসুচীর আওতায় কাজ করে পানি নিষ্কাষনের ব্যবস্থা করতে বিদেশী প্রকল্প জাইকাসহ অন্যান্য এনজিওর দৃষ্টি কামনা করছেন। এ ব্যাপারে নবীগঞ্জের সচেতন মহল, সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের লোকজন একত্রিত হয়ে অচিরেই পরিবেশ রক্ষা আন্দোলনের ডাক দেবেন বলে জানাগেছে ।

নবীগঞ্জ কানাইপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভা অনুষ্টিত
নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ নবীগঞ্জ পৌরসভার কানাইপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির এক জরুরী সভা শনিবার সকাল ১১ টায় বিদ্যালয় মিলানায়তনে অনুষ্টিত হয়। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি উত্তম কুমার পাল হিমেলের সভপতিত্বে এবং সদস্য সচিব প্রধান শিক্ষক প্রজেশ রায় এর পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন কমিটির সহ-সভাপতি কবির মিয়া,সাবেক সভাপতি আব্দুর রহিম,পৌর কাউন্সিলর প্রানেশ চন্দ্র দেব,প্রনয় কুমার পাল,শিক্ষিকা হাসনা খানম, মাধ্যমিক শিক্ষক রাজীব চন্দ্র দাশ,হোসনা বেগম,ফুলন্তী পাল,শিফা আক্তার প্রমূখ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24