শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরের নয়াবন্দর-শংকপুর সড়ক উদ্বোধন করলেন পরিকল্পনামন্ত্রী জগন্নাথপুরে পরিকল্পনামন্ত্রী-ক্ষমতায় আসতে না পেরে একটি মহল গুজব ছড়াচ্ছে মিরপুর ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান শেরীন শপথ নেবেন ২৫ নভেম্বর দক্ষিণ সুরমার একাধিক মামলার আসামি গ্রেফতার সাহাবাদের যুগে শিশুদের শিক্ষায় অধিক গুরুত্ব দেওয়া হতো জগন্নাথপুরের সন্তান অতিরিক্ত সচিব শিশির রায় কে ফুলেল শ্রদ্ধায় চীরবিদায় সিলেটে হিরন মাহমুদ নিপু আটক তারেক জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে জগন্নাথপুরে ছাত্রদলের এতিমদের মধ্যে খাদ্য বিতরণ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত সসীমের অসহায়ত্ব -মোহাম্মদ হরমুজ আলী তারেক জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে জগন্নাথপুরে বিএনপির দোয়া মাহফিল

নিজ হাতে থানাহাজত বানিয়ে নিজেই হলেন প্রথম বন্দি

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
  • ১৩৫ Time View

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::অনেক দৌড়ঝাঁপ করে রাজধানীর পূবাইলে নিজের জমির ওপর নির্মাণ করা ভবনটি থানার জন্য ভাড়া দেন ফরিদপুরের আবদুর রশিদ। নিজ হাতে থানার হাজতখানা তৈরি করেন তিনি। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস তাকেই প্রথম আসামি হয়ে ওই হাজতখানায় বন্দি হতে হলো।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিডিও কনফারেন্সে সদ্য উদ্বোধন করা গাজীপুর মেট্রোপলিটনের (জিএমপি) আওতাভুক্ত আটটি থানার একটি হচ্ছে পূবাইল থানা।

গত রোববার থানা উদ্বোধনের দ্বিতীয় দিনে ভবনটির সামনে দেয়ালে রং করার সময় ৩৩ হাজার ভোল্টেজের তারে জড়িয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান লক্ষ্মীপুরের রংমিস্ত্রি জাহাঙ্গীর।

এ ঘটনায় নিহত জাহাঙ্গীরের চাচা মো. মমিন বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। যার এক নম্বর আসামি হলেন থানা ভবন মালিক আবদুর রশিদ ও দুই নম্বর আসামি তার কেয়ারটেকার উজ্জ্বল।

মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালে নিহত জাহাঙ্গীরের চাচা মমিনের সঙ্গে আপসে বিষয়টি মীমাংসা করার সময় পুলিশ আবদুর রশিদকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়ে দেয়। মামলার ২ নম্বর আসামি উজ্জ্বল পলাতক রয়েছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, গত রোববার থানা উদ্বোধনের দ্বিতীয় দিনে ভবনটির সামনে দেয়ালে রং করার সময় ৩৩ হাজার ভোল্টেজের তারে জড়িয়ে বিদ্যুৎস্পর্শ হয়ে মারা যান লক্ষ্মীপুরের রংমিস্ত্রি জাহাঙ্গীর।

এ ঘটনায় নিহত জাহাঙ্গীরের চাচা মো. মমিন বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। যার এক নম্বর আসামি হলেন থানা ভবন মালিক আবদুর রশিদ ও দুই নম্বর আসামি তার কেয়ারটেকার উজ্জ্বল।

থানা ভবনটি নির্মাণে গাফিলতি, নিয়মনীতি অমান্য করা, ঝুঁকিপূর্ণ ৩৩ হাজার ভোল্ট বৈদ্যুতিক তারের নিচে এবং পল্লীবিদ্যুৎ সাবস্টেশনঘেঁষে স্থানীয় বিদ্যুৎ অফিস ও এলাকাবাসীর বাধা-নিষেধ তোয়াক্কা না করার অভিযোগে থানা ভবনের খোদ মালিক আবদুর রশিদের বিরুদ্ধে পূবাইল মেট্রোপলিটন থানার প্রথম মামলাটি দায়ের হয়।

এ মামলাটি একটি বিরল ঘটনার জন্ম দিয়েছে। কারণ অক্লান্ত পরিশ্রম করে যে জমির মালিক থানা ভবনটি নির্মাণ করেছেন সেই মালিকই হলের থানায় নথিভুক্ত হওয়া প্রথম মামলার আসামি।

কিছুদিন আগেও যিনি তালটিয়ার চেয়ারম্যানবাড়ি রোডের তার ভবনে থানা কার্যক্রম চালুর জন্য অনেক দৌড়ঝাঁপ করেন ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের পেছনে। একপর্যায়ে ভবনটি ভাড়া দিতে রাজি করাতেও সফল হন তিনি। কিন্তু নিজ হাতে তৈরি করা থানাহাজতে তাকেই প্রথম আসামি হয়ে ঢুকতে হলো। বর্তমানে তাকে জেলহাজতে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

পূবাইল থানা ওসি নাজমুল হক ভুঁইয়া জানান, ভবন মালিক আবদুর রশিদ হাসপাতালে নিহত জাহাঙ্গীরের চাচার সঙ্গে আপস বিষয়টি মীমাংসা করার সময় তাকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এ থানার প্রথম মামলা এটি এবং ভবন মালিক মামলার ১ নম্বর আসামি।

সুত্র-যুগান্তর

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24