সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯, ১০:৪২ অপরাহ্ন

পরিবেশ ঝুঁকির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সরকার প্রস্তুত :পরিকল্পনামন্ত্রী

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::
  • Update Time : মঙ্গলবার, ৩০ জুলাই, ২০১৯
  • ৭০ Time View

উন্নয়ন সহযোগীরা কেউ না আসলেও পরিবেশ ঝুঁকির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সরকার প্রস্তুত আছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।
আজ   ঢাকার স্থানীয় এক হোটেলে আন্তর্জাতিক প্রকৃতি সংরক্ষণ বিষয়ক সংঘের ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অব কনজারবেশন অব ন্যাচার (আইইউসিএন) উন্নয়ন সহযোগীরা কেউ না আসলেও পরিবেশ ঝুঁকির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সরকার প্রস্তুত আছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।
আজ ঢাকার স্থানীয় এক হোটেলে আন্তর্জাতিক প্রকৃতি সংরক্ষণ বিষয়ক সংঘের ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অব কনজারবেশন অব ন্যাচার (আইইউসিএন) আয়োজনে টেকসই জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ সংক্রান্ত বাংলাদেশ প্লাটফর্মের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা তিনি এ কথা বলেন।
(আইইউসিএন)-এর বাংলাদেশ জাতীয় কমিটির চেয়ারপারসন হাসনা জসিম উদ্দিন মওদুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন নরওয়ের রাষ্ট্রদূত সিডসেল বিকাকেন, জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মুজিবুর রহমান হাওলাদার প্রমুখ।
এম. এ. মান্নান বলেন, আমাদের সরকার প্রধানের মূল বার্তা হলো আমাদের কাজ আমাদের করতে হবে। আমরা গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড করেছি নিজেদের অর্থায়নে এবং সেটা দিয়েই পরিবেশ ঝুঁকি মোকাবিলা করছি। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দারিদ্র্য নিরসন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ সরবরাহ, সড়ক যোগাযোগ উন্নয়ন ইত্যাদি কাজে বেশি নজর দিচ্ছি।
দেশের প্রকৃতি-পরিবেশ রক্ষার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, প্রকৃতিকে তার মতো থাকতে দিতে হবে, অহেতুক নাড়াচাড়া করা যাবে না। করলে বিপর্যয় নেমে আসবে। উন্নয়নের নামে ফসলি জমি নষ্ট, জলাশয় ভরাট, বনভূমি, পাহাড় কাটা ইত্যাদি করা যাবে না।আয়োজনে টেকসই জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ সংক্রান্ত বাংলাদেশ প্লাটফর্মের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা তিনি এ কথা বলেন।
(আইইউসিএন)-এর বাংলাদেশ জাতীয় কমিটির চেয়ারপারসন হাসনা জসিম উদ্দিন মওদুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন নরওয়ের রাষ্ট্রদূত সিডসেল বিকাকেন, জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মুজিবুর রহমান হাওলাদার প্রমুখ।
এম. এ. মান্নান বলেন, আমাদের সরকার প্রধানের মূল বার্তা হলো আমাদের কাজ আমাদের করতে হবে। আমরা গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড করেছি নিজেদের অর্থায়নে এবং সেটা দিয়েই পরিবেশ ঝুঁকি মোকাবিলা করছি। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দারিদ্র্য নিরসন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ সরবরাহ, সড়ক যোগাযোগ উন্নয়ন ইত্যাদি কাজে বেশি নজর দিচ্ছি।
দেশের প্রকৃতি-পরিবেশ রক্ষার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, প্রকৃতিকে তার মতো থাকতে দিতে হবে, অহেতুক নাড়াচাড়া করা যাবে না। করলে বিপর্যয় নেমে আসবে। উন্নয়নের নামে ফসলি জমি নষ্ট, জলাশয় ভরাট, বনভূমি, পাহাড় কাটা ইত্যাদি করা যাবে না।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24