রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০৯:২৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সুনামগঞ্জে বিতর্কিতদের আওয়ামী লীগে স্হান না দিতে তৃণমূল নেতাদের দাবি প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী পরীক্ষা:জগন্নাথপুরে প্রথম দিনে অনুপস্থিত ২৬০ যুক্তরাজ্য বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটিকে জগন্নাথপুর বিএনপির অভিনন্দন পেঁয়াজ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করলেন কাদের সিদ্দিকী ‘ব্রিটিশ বাংলাদেশী হুজহু’র প্রকাশনা ও এওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানের বারোতম আসর বর্ণাঢ্য আয়োজনে সম্পন্ন পেঁয়াজ খাওয়া বন্ধ করে দিয়েছি:প্রধানমন্ত্রী জগন্নাথপুর পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড আ.লীগের কমিটি গঠন জগন্নাথপুরে অগ্নিকাণ্ডে নি:স্ব ৮ পরিবার আশ্রয় নিলেন স্কুলে.মানবেতর জীবন যাপন মিশর থেকে কার্গো বিমানে পেঁয়াজ আসছে মঙ্গলবার যুক্তরাজ্যে বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি

পরিবেশ বিপর্যয়ে হাওরবাসীর দুর্বিষহ জীবন যাপন

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ১৯ এপ্রিল, ২০১৭
  • ৪৯ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি::মারাত্বক পরিবেশ বিপর্যয়ে পড়ছেন হাওর অঞ্চলের মানুষ। অতিবিষ্টি ও অকাল বন্যায় একমাত্র বোরো ফসল হারানোর পর অ্যামোনিয়া গ্যাসে আক্রান্ত হয়ে বিষক্রিয়ায় হাওরের মৎস্য সম্পদ ধ্বংস হয়ে যাওয়ার পর এসব মাছ খেয়ে হাওর অঞ্চলের মানুষ নানা রোগবালাইয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। পরিবেশ বিপর্যয়ে পড়ে হাওরবাসী এখন দুর্বিষহ জীবনযাপন করছেন। পচা ধান পানি দূষণ ও মরা মাছের দুগন্ধে মারাত্বক পরিবেশ বিপর্যয়ে পড়েছেন হাওরবাসী।
সুনামগঞ্জের অন্যতম বৃহৎ হাওর জগন্নাথপুরের নলুয়ার হাওর ঘুরে হাওর অঞ্চলের মানুষের সাথে কথা বলে জানা গেছে, চৈত্র মাসে আকস্মিক অতিবিষ্টি ও অকাল বন্যায় জগন্নাথপুরের নলুয়ার হাওরসহ ছোটবড় ১৫টি হাওরের ফসল তলিয়ে যাওয়ার পর কৃষক পরিবারে হাহাকার দেখা দেয়। কৃষকদের আশা ছিল হাওরের মাছ ধরে হয়তো তাদের জীবিকা নির্বাহ হতে পারে। কিন্তু নতুন বছরের প্রথম দিনেই কাল বৈশাখী ঝড় হাওরবাসীর সেই স্বপ্নও ভেঙ্গে দিয়েছে।
জগন্নাথপুর উপজেলার হাওর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের সাধারন সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান বলেন,
একমাত্র বোরো ফসলের ওপর নির্ভর নলুয়ার হাওরের ১৫ গ্রামের কৃষক। ফসল গেলে কৃষকরা হাওরের মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করে বেঁচে থাকার চেষ্ঠা করেন। এবার হাওরর সব মাছ মরে যাওয়ায় হাওর অঞ্চলের মানুষ কীভাবে খেয়ে বাঁচবেন চিন্তায় আছেন। এছাড়াও পানিতে দুগন্ধের সৃষ্টি হওয়ায় হাওরপাড়ের মানুষ বিপাকে পড়েছেন।
চিলাউড়া হলদিপু ইউনিয়নের বেতাউকা গ্রামের কৃষক আব্দুল মজিদ বলেন, আধা কাচা বোরো ফসল পচে বিষক্রিয়ার সৃষ্টি হওয়ায় হাওরের সব মাছ মরে গেছে। কোন কিছু না বুঝেই হাওর অঞ্চলের মানুষ এসব মাছ খেয়ে ডায়েরিয়াসহ নানা রোগ ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়েছেন।
হাওর অধ্যুষিত চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়নের বেড়ি গ্রামের বাসিন্দা শিক্ষক ফররুখ আহমদ বলেন, হাওরের মানুষ নানা সংগ্রাম করে জীবন যাপন করলেও এবার হাওরবাসীকে কঠিন সমস্যায় ফেলে দিয়েছে। বর্ষা মৌসুমে হাওরের পানি পান করে অনেক মানুষ দৈনন্দিন জীবনের প্রয়োজন সারেন। বর্তমানে পানিতে দুগন্ধের সৃষ্টি হওয়ায় বাড়ি ঘরে থাকা দুঃসহ হয়ে উঠেছে।


চিলাউড়া-হলদিপু্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আরশ মিয়া জানান,হাওর অঞ্চলের মানুষদেরকে বাঁচাতে হলে বিকল্প কর্মসংস্থান ও রেশনের ব্যবস্থা করা দরকার। তাঁর মতে সরকার প্রদত্ত ১৫টাকা কেজি দরে চাল বিক্রয় কার্যক্রম ইউনিয়ন পর্যায়ে ওয়ার্ড ভিত্তিক না দিলে তার সুফল পাওয়া যাবে না। তিনি জানান, হাওর অঞ্চলের পানি দুষনে রোগব্যাধি মারাত্বকভাবে বাড়তে শুরু করেছে। তার জানামতে গত তিনদিনে কমপক্ষে ২০/২৫জন ডায়রিয়ার রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুম বিল্লাহ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এমোনিয়ায় পচন ধরা মাছ না খাওয়ার জন্য আমরা উপজেলায় মাইকিং করে জানিয়েছি। তিনি বলেন, ওই মাছে ক্ষতিকারণ উপাদান মানুষের স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে। তাই আমারা সচেতনতা সৃষ্টিতে পদক্ষেপ নিয়েছি। তিনি বলেন, প্রশাসনের পক্ষ থেকে পানি দুষনমুক্ত করতে চুনা দেয়া হচ্ছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ শামস উদ্দিন আহমদ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন,বোরো জমিতে বিভিন্ন রকম সার প্রয়োগ করা হয়ে থাকে। এসব জমির ধান এবার পাকার আগেই তলিয়ে গিয়ে পচন ধরায় পানিতে প্রয়জন সৃষ্টি হয়েছে। যে কারণে বিষাক্ত হয়ে মাছ গুলো মরে গেছে। এসব বিষাক্ত মাছ খেলে পেটেরপীড়াসহ নানা রোগ বালাই হতে পারে। তাই মাঠ পর্যায়ে স্বাস্থ্য কর্মীদেরকে বলা হয়েছে মানুষকে এসব মাছ না খেতে নিরুৎসাহী করতে। তিনি জানান, সাম্প্রতিক কালবৈশাখী ঝড়ের পর বিষক্রিয়ায় হাওরের সব মাছ মরে পচে যাওয়ায় এ উপজেলায়ও কিছু ডায়েরীয়াসহ পেটেরপীড়ার রোগী বেড়েছে। তবে তা আশংকাজনকহারে নয়। আমরা ইউনিয়ন ভিত্তিক মেডিকেল টিম গঠন করে রেখেছি। তিনি বলেন, হাওর অঞ্চলে এখন মারাত্বক পরিবেশ বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। তা থেকে রক্ষা পেতে সবাইকে সর্তকতার সহিত চলতে হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24