বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯, ০৮:৫২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:

প্রসঙ্গ-কলমে মাটি কাটে

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৭
  • ৭৯ Time View

মহি জামান, লন্ডন থেকে
ইন্ডিপেন্ডেট টিভির ‘তালাশ’ নামে ডকুমেন্টারী দেখার সৌভাগ্য হলো। প্রতিবেদনটি ছিল সুনামগঞ্জের হাওরের দুর্নীতি নিয়ে ।
‘কলমে মাটি কাটে’ নাম ব্যবহার করে প্রথমেই যেন প্রতিবেদনটির মধ্যে একটা সন্দেহের বীজ ঢুকিয়ে দেয়া হয়েছে। হাওরের দুর্নীতি নিয়ে প্রথম থেকে যারা সোচ্চার তাদের কোন বক্তব্য না নেওয়ার মধ্যেও রহস্যের গন্ধ পাওয়া যায়।
আন্দোলনকারীদের একজন নেতা বলেন, টিভির প্রতিবেদক ৬ দিন সুনামগঞ্জে উপস্থিত থাকলেও তাদের সাথে যোগাযোগ করার প্রয়োজন মনে করেন নি। টিভির স্থানীয় প্রতিনিধি পূর্ব থেকে যোগাযোগ রাখলেও কোন এক রহস্যজনক কারণে তিনি বা অন্যরা পরে আর যোগাযোগ করেন নি।
চিহ্নিত দুর্নীতিবাজদের আশীর্বাদপুষ্ট একটি মহল প্রথম থেকেই প্রতিবেদনকে অন্য খাতে প্রবাহিত করার জন্য তৎপর ছিল। প্রতিবেদন প্রকাশের পর তার কিছুটা প্রতিফলনও পাওয়া যায়।
‘কলমে মাটি কাটে’ একজন ঠিকাদারের শিখানো কথা দিয়ে শিরোনাম করার মধ্যেই তার গন্ধ পাওয়া যায়। প্রতিবেদন তৈরির শুরু থেকেই যেন এক পক্ষকে বাঁচানো ও আরেক পক্ষকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হয়েছে। ‘কলম’র ঘাড়ে সব দোষ চাপিয়ে দেবার চেষ্টা করা মানে কর্মকর্তাদের কারণেই দুর্যোগÑ এ কথাটাকে হাইলাইট করার চেষ্টা করা হয়েছে। একই সাথে ঠিকাদার ও পিআইসিদের অপরাধ আড়াল করার চেষ্টা হয়েছে বলে মনে হয়।
তালাশের এই প্রতিবেদনকে ঘিরে সম্প্রতি ফেসবুকে বিভিন্ন মন্তব্য দেখে এখন মনে হচ্ছে বাঁধ নির্মাণের সরকারের কোটি কোটি টাকা মনে হয় জনৈক সাংবাদিকের পকেটে গেছে ! এতো দিন শুনতাম কাকে কাকের মাংস খায় না। এই প্রবাদ মিথ্যা প্রমাণিত হয়ে গেছে মনে হয়। একদল তথাকথিত সাংবাদিকই সাংবাদিকদের গোষ্ঠী উদ্ধারে লেগেছেন। এতে তাদের ভাবমূর্তি কতটুকু উজ্জল হচ্ছে তাদেরই ভাবা উচিত। নাকি তারা কৌশলে আসল কাহিনি অন্য খাতে প্রবাহিত করতে দুর্নীতিবাজদের এজেন্ডা বাস্তবায়নে মাঠে নেমেছেন ?

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24