মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৬:৫৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে ফুটবল এসোসিয়েশনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন উপলক্ষে প্রস্তুতিসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে পারাপারের সময় খেলা নৌকা থেকে পড়ে মৃগী রোগির মৃত্যু জগন্নাথপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহতের স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ও বেগম রোকেয়া দিবস পালন, ৫ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান জগন্নাথপুরে মুক্ত দিবস পালিত জগন্নাথপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত দুই যুবকের জানাজায় শোকাহত মানুষের ঢল জগন্নাথপুরে আইনশৃংঙ্খলা সভায়-আনন্দ সরকারের হত্যাকারিদের গ্রেফতারের দাবি জগন্নাথপুরে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ও বেগম রোকেয়া দিবস পালন, ৫ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান জগন্নাথপুরে দুর্নীতি বিরোধী দিবসে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত ১৭ ডিসেম্বর থেকে হাওরের বাঁধ নির্মাণ কাজ শুরু

ফাইনালের স্বপ্নভঙ্গ, ভারতের কাছে হারল টাইগাররা

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন, ২০১৭
  • ৩৩ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: উৎসবের প্রস্তুতি ছিল। ছিল স্বপ্নময় দিনের প্রতিশ্রুতি। হাতছানি দিয়ে ডাকছিল আইসিসির ইভেন্টের প্রথম ফাইনাল। কিন্তু ব্যাটসম্যানরা তালগোল পাকিয়ে ফেলায় সেই স্বপ্ন অনেকটাই মলিন হয়ে যায়। মাঝারি মানের পুঁজি নিয়ে বোলারদের যেই রকম পারফরম্যান্স উপহার দেয়ার দরকার ছিল তার ছিঁটেফোটাও লক্ষ্য করা যায়নি। ফলাফল যা হবাই তা-ই হলো। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে বাংলাদেশকে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে ভারত।

বাংলাদেশের পুজিঁ ২৬৪; ভারতের বিশ্বসেরা ব্যাটিং লাইনের বিপক্ষে একটু কমই। ফাইনালে যাওয়ার জন্য বোলারদের দিকে তাকিয়ে ছিল বাংলাদেশ। কম পুঁজি নিয়ে মোস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, রুবেল হোসেনরা বল হাতে জ্বলে উঠতে পারেননি। অন্যদিকে রোহিত শর্মা ও অধিনায়ক বিরাট কোহলির ব্যাটে ভর করে অনায়াস জয় তুলে নেয় টিম ইন্ডিয়া।

বৃহস্পতিবার বার্মিংহামে এজবাস্টনে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৬৪ রানে আটকে যায় বাংলাদেশের ইনিংস। ২৬৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নামে ভারত। রোহিত শর্মাম ও শিখর ধাওয়ান মিলে দারুণ জুটি গড়ে বাংলাদেশের কাছ থেকে ম্যাচ বের করে নেন। তবে ভারতের রান ১০০-তে পৌঁছার আগেই ধাওয়ানকে আউট করে বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তি ফেরান মাশরাফি।

২৬৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই সাবলীল ছিলেন রোহিত ও ধাওয়ান। এই দুজন একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে বাংলাদেশি বোলারদের এলোমেলা করে দেন। মাশরাফির করা ১৫তম ওভারের চতুর্থ বলে মিড অফে মোসাদ্দেকের হাতে ধাওয়ান ক্যাচ দিয়ে ফিরলে স্বস্তি ফিরে আসে বাংলাদেশ শিবিরে। অবশ্য তারপরও চালকের আসনেই থাকে টিম ইন্ডিয়া।

ধাওয়ানের বিদায়ের পর ব্যাট করতে নামেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। দ্বিতীয় উইকেটে রোহিত শর্মার সঙ্গে ১৭৮ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দলকে এনে দেন কাঙ্খিত জয়। রোহিত শর্মা তুলে নেন ক্যারিয়ারের ১১তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি। শেষ পর্যন্ত ১২৩ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। বিরাট কোহলি মাত্র ৪ রানের জন্য সেঞ্চুরি বঞ্চিত হন’; অপরাজিত থাকেন ৯৬ রানে।

এর আগে ব্যাটিংয়ে নামা বাংলাদেশ মাঝপথের ধসে ২২৯ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলে। অষ্টম উইকেটে মাশরাফি ও তাসকিনের মধ্যকার ৩০ বলে ৩৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে লড়াই করার পুঁজি পায় বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের হয়ে ওপেনার তামিম ইকবাল ৮২ বলে ৭টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ৭০ রানের দারুণ ইনিংস খেলেন। মুশফিক ৮৫ বলে করেন ৬১ রান। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ২১, সাব্বির রহমান ১৯, মোসাদ্দেক ১৫ এবং মাশরাফি করেন ২৫ বলে ৩০ রান।

ভারতের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন ভুবনেশ্বর কুমার, জসপ্রিত বুমরাহ ও কেদার যাদব। রবীন্দ্র জাদেজা নেন একটি উইকেট।

১২৯ বলে ১২৩ রানের ইনিংস খেলা ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন।

শিরোপা ধরে রাখার মিশনে আগামী রোববার টুর্নামেন্টের ফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামবেন কোহলিরা।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহীম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন, তাসকিন আহদে, মাশরাফি বিন মুর্তজা, রুবেল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান

ভারতীয় একাদশ: রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, বিরাট কোহলি, যুবরাজ সিং, এমএস ধোনি, কেদার যাদব, হার্দিক পান্ডিয়া, রবীন্দ্র জাদেজা, ভুবনেশ্বর কুমার, রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও জসপ্রিত বুমরাহ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24