শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯, ১০:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ জগন্নাথপুরের টমটম চালকের হত্যাকাণ্ড উন্মোচিত,ঘাতকের স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান জগন্নাথপুরে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় জন্মাষ্টমী উদযাপন জগন্নাথপুরে সরকারি গাছ কাটায় সেই যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ভারত-পাকিস্তান গুলি বিনিময় প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা ১৭ নভেম্বর টমটম গাড়ীর জন্য জগন্নাথপুরের এক চালককে রশিদপুরে নিয়ে খুন,গ্রেফতার-১ জেলা আ.লীগের গণমিছিল ৫ বছরেও শেষ হয়নি জগন্নাথপুরের ভবেরবাজার-গোয়ালাবাজার সড়কের কাজ,দুর্ভোগ লাখো মানুষের “জুম্মু কাশ্মীরে,গণতহ্যা শুরু করেছে মোদী সরকার”

‘বহুতল ভবনগুলোর কাগজপত্র জমা দেয়ার নির্দেশ’

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ২৯ মার্চ, ২০১৯
  • ৭৩ Time View

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক:: রাজধানীর বনানী এফ আর টাওয়ারের আশেপাশে যে বিল্ডিংগুলো আছে, আগামী ১০ দিনের মধ্যে সেই সব বহুতল ভবনের ফায়ার এবং বিল্ডিং সেফটির কাগজপত্র জমা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম।শুক্রবার সকালে অগ্নিকাণ্ডস্থল পরিদর্শন করেন ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র আতিকুল ইসলাম।এসময় মেয়র বলেন এরই মধ্যে ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন করা হয়েছে। আমরা সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে রাজউকের সঙ্গে একসাথে কাজ করতে চাই। এসময় রাজউক চেয়ারম্যান আব্দুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন, বনানীর এফ আর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের পর কথা বলার আর সময় নেই। এখন সময় অ্যাকশনের। সব সংস্থাকে নিয়ে একত্রে কাজ করতে চাই। এই ভবনগুলো কীভাবে অনুমোদন পেয়েছে, ১৮ তলার অনুমোদন নিয়ে কীভাবে ২৩ তলা হলো সেগুলো আমরা দেখবো।এই অনিয়ম মেনে নেওয়া যেতে পারে না। এখন কথা বলার সময় নেই, অ্যাকশন নেওয়ার সময়।

অ্যাকশনের উদাহরণ দিতে গিয়ে আতিক বলেন, রাজধানীর ভবন মালিকদের আগামী ১০ দিনের মধ্যে সিটি করপোরেশনে তাদের ভবনের অনুমোদন, নকশা, ফায়ার সেফটি, বিল্ডিং সেফটির অনুমোদনের কাগজ জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছি। সেগুলো দেখে আমরা মূল্যায়ন করে সিদ্ধান্ত নেবো। এছাড়াও আমাদের ম্যাজিস্ট্রেট ভবনে ভবনে যাবেন। পরিস্থিতি দেখে প্রতিবেদন দেবেন আর সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ দুর্ঘটনার দায় এই ভবনের মালিক এবং অফিসগুলোর কর্তাব্যক্তিদের নিতে হবে জানিয়ে আতিক বলেন, আমাদের যেসব ভাই-বোন এসব অফিসে চাকরি করেন তাদের নিরাপত্তার দায়িত্ব অফিস মালিকদের, ভবন মালিকদের। তারা এই দায় এড়াতে পারেন না। আর আপনারা যারা চাকরি করেন, তাদের প্রতি অনুরোধ, অফিসে প্রবেশের আগে আপনারা দেখুন আপনার অফিসের বিল্ডিং সেফটি আছে কিনা, ফায়ার সেফটি আছে কিনা। যদি না থাকে তাহলে অফিসে প্রবেশ করবেন না।

এসময় গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেন, বিভিন্ন সংস্থায় এক শ্রেণীর অসাধু কর্মকর্তা কর্মচারী আছেন, অসাধু ব্যবসায়ী- ভবন মালিক আছেন। তাদের সবার যোগসাজশে এই অনিয়ম হয়। তবে এগুলো আর বরদাশত করা হবে না। প্রধানমন্ত্রীর কঠোর নিরর্দেশনা রয়েছে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার। এসব ব্যবস্থা আর তদন্ত এবং তদন্ত প্রতিবেদনে সীমাবদ্ধ থাকবে না।

এর আগে গতকাল পরিদর্শনে এসে বলেছিলেন, আপনারা দেখেছেন রানা প্লাজার দুর্ঘটনার পরে ঝুঁকিপূর্ণ ফ্যাক্টরি কিন্তু বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আমি আগামী কয়েকদিনের মধ্যে পত্রিকায় দেবো, বিল্ডিং মালিকদের নকশা দাখিল করতে হবে। যারা দাখিল করতে ব্যর্থ হবে, আমি নগরের মেয়র হিসেবে জিরো টলারেন্স নেবো।

তিনি আরও বলেন, বিল্ডিং তৈরি করে নীচে দেখা যাচ্ছে গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গা, এই জায়গাও বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। আমি অনুরোধ করবো নিজ নিজ দায়িত্বে গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করবেন। প্রত্যেকটা বিল্ডিংয়ে ফায়ার সেফটি কোড অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে হবে। এটা অতিসত্বর করতে হবে, কারণ আমরা আর কতো শিক্ষা নিবো? আমরা আর শিক্ষা নিতে চাই না। আমরা এখন বাস্তবায়ন করতে চাই।

এর আগে বনানীতে আগুনে পুড়ে যাওয়া এফ আর টাওয়ারের ভেতরে আহত বা মৃত আরও কেউ আছে কিনা জানতে সকাল থেকে তল্লাশি শুরু করেছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। শুক্রবার সকাল থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম তল্লাশি কাজ করছে। তারা পুড়ে যাওয়া এফ আর টাওয়ারের প্রতি তলায় তল্লাশি চালিয়ে দেখবে কেউ এখনও আটকে আছে কিনা, বা আর কোন মৃত দেহ পাওয়া যায় কিনা। এই ভবনের তিনটি লিফট আছে, বন্ধ থাকলে ভেঙে দেখা হবে ভেতরে কেউ আছে কিনা। এরপরই নিহতের সংখ্যা জানা যাবে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তারা।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে বনানীর ১৭ নম্বর রোডের ওই ভবনটির ৯ তলা থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। পরে এ আগুন ছড়িয়ে পড়ে পুরো ভবনে। এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত আগুনে ২৫ জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২৪ জনের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করেছে কর্তৃপক্ষ।

সুত্র-আমার বাংলা

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24