রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:৩৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
ভারতীয় মুসলিমদের পাশে থাকার আহবান ভারত থেকে ৯ পণ্য আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার বাংলাদেশের সমাজ মেরামতের দায়িত্ব আলেমদের জগন্নাথপুরে ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাস্টের রিসোর্স সেন্টারের কাজ পরিদর্শনে ট্রাস্টের প্রতিনিধিদল জগন্নাথপুরে একদিনে ১১ জন ডাক্তারের যোগদান জগন্নাথপুরে বেড়িবাঁধের ৩০ প্রকল্প অনুমোদন কাল কাজ শুরু হতে পারে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসে জগন্নাথপুরে প্রশাসনের উদ্যোগে শ্রদ্ধা নিবেদন ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে আ.লীগের উদ‌্যোগে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসে আলোচনাসভা ও শ্রদ্ধা নিবেদন দিরাইয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন মুসলিমবিদ্বেষী আইনের বিরুদ্ধে ভারতজুড়ে বিক্ষোভ

বাংলা সাহিত্যের কিংবদন্তী কথাশিল্পী হুমায়ূন আহমেদের প্রয়াণ দিবস আজ

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৯ জুলাই, ২০১৬
  • ১৩১ Time View

জগন্নাখপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক::
“বাবা জেগে উঠলেন, মা জাগলেন, ভাইবোনরা জাগল। বাবা আমার গায়ে হাত বুলাতে বুলাতে বললেন, জোছনার আলো ঘরের ভেন্টিলেটর দিয়ে মশারীর গায়ে পড়েছে। ভেন্টিলেটরটা ফুলের মত নকশা কাটা। কাজেই তোমার কাছে মনে হচ্ছে মশারীর ভেতর আলোর ফুল। ভয়ের কিছু নেই, হাত বাড়িয়ে ফুলটা ধর।

আমি হাত বাড়াতেই সেই আলোর ফুল আমার হাতে উঠে এল কিন্তু ধরা পড়ল না। বাকি রাতটা আমার নির্ঘুম কাটল। কতবার সেই ফুল ধরতে চেষ্ঠা করলাম – পারলাম না। সৌন্দর্যকে ধরতে না পারার বেদনায় কাটল আমার শৈশব, কৈশোর ও যৌবন। আমি জানি সম্ভব না, তবু এখনও চেষ্ঠা করে যাচ্ছি, যদি একবার জোছনার ফুল ধরতে পারি – মাত্র একবার। এই পৃথিবীর কাছে আমার এর চেয়ে বেশী কিছু চাইবার নেই।”

তিনি জোৎস্নাকে ভালবাসতেন। ভালবাসতেন ঝুম বর্ষাকে। এযুগের যান্ত্রিক তরুণরা হিমুর মত বৃষ্টিতে ভিজতে শিখেছিল। কিংবা ভরা জোৎস্নায় একা একা বেড়িয়ে পড়া শহরের পথে। তিনি ছিলেন একজন স্রষ্টা। হিমু, মিসির আলী, বাকের ভাই, মতি মিয়া কিংবা শহরের বাসাবাড়ির কাজের বুয়া জমিলার মা চরিত্রগুলোর স্রষ্টা। তিনি ‘জোৎস্না ও জননীর গল্প’, ‘মধ্যাহ্ন’ কিংবা ‘দেয়াল’-এর মত অসাধারণ সব উপন্যাসের স্রষ্টা। বাংলা সাহিত্যের সেই প্রবাদপুরুষ হুমায়ুন আহমেদের প্রায়াণ দিবস আজ।

বাংলা সাহিত্যের এই কিংবদন্তী কথাশিল্পী ও চলচ্চিত্র নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদ ১৯৪৮ সালে ১৩ নভেম্বর নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে নানার বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন একাধারে ঔপন্যাসিক, ছোটগল্পকার, নাট্যকার ও গীতিকার। আধুনিক বাংলা কল্পবিজ্ঞান সাহিত্যের পথিকৃৎ বলা হয় তাকে। নাটক ও চলচ্চিত্র পরিচালক হিসেবেও তিনি সমাদৃত। তার প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা তিন শতাধিক। বাংলা কথাসাহিত্যে তিনি সংলাপ প্রধান নতুন শৈলীর জনক। তার বেশ কিছু গ্রন্থ পৃথিবীর নানা ভাষায় অনূদিত হয়েছে, বেশ কিছু গ্রন্থ স্কুল-কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যসূচির অন্তর্ভুক্ত।

আমৃত্যু তিনি ছিলেন জনপ্রিয়তার তুঙ্গে। হুমায়ুন আহমেদের ‘কোথাও কেউ নেই’ নাটকটির কথা এখনও মানুষের মুখে মুখে ফিরে। নাটকের শেষ পর্ব প্রচারিত হচ্ছে। বাকের ভাই (আসাদুজ্জামান নূর)-এর ফাঁসি কার্যকর হয়েছে। ফজরের আযান বাজছে ব্যাকগ্রাউন্ডে। পৃথিবীতে বাকেরের আপনজন বলতে কেউ নেই। বাকেরের লাশ নিয়েও তাই কারো মাথা ব্যাথা নেই। শুধু মুনা নামে একটা পাগল মেয়ে আছে যে পাগল মাস্তান বাকেরকে ভালোবেসে ফেলেছিল। এর আগে সৃষ্টি হয়েছিল বাংলা নাটকের এক অনন্য ইতিহাস। নাটকের কল্পিত চরিত্র বাকের ভাইয়ের ফাঁসি বন্ধ করার জন্য ঢাকা শহরে মিছিল হয়েছিল। কিন্তু হুমায়ুন আহমেদ তার অবস্থান থেকে এতটুকুও সরেননি। এ থেকেই বোঝা যায়, তার জনপ্রিয়তা কোন পর্যায়ে ছিল।

লেখালেখি ও চলচ্চিত্রের নেশায় তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপনা ছেড়ে দিয়েছিলেন। হুমায়ূন আহমেদ নির্মিত চলচ্চিত্রগুলো তুমুল দর্শকপ্রিয়তা পায়। তার নির্মিত কয়েকটি চলচ্চিত্র হলো : ‘শ্রাবণ মেঘের দিন’, ‘দুই দুয়ারী’, ‘ঘেঁটুপুত্র কমলা’ ইত্যাদি। সংখ্যায় বেশি না হলেও তার রচিত অসাধারণ কিছু গান জনপ্রিয়তা লাভ করে।

নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ ১৯ জুলাই। ২০১১ সালে তার শরীরে ক্যানসার ধরা পড়ে। দেশ ও দেশের বাইরে অনেক চিকিৎসার পরেও ২০১২ সালের ১৯ জুলাই পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে অনন্তলোকে যাত্রা করেন হুমায়ুন আহমেদ। তার নিজের হাতে তৈরি নন্দনকানন নুহাশপল্লীর লিচুতলায় চিরনিদ্রায় শুয়ে আছেন তিনি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24