রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ১১:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে মাদ্রাসা ছাত্র সাব্বিরের হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল জগন্নাথপুরে পৃথক দুই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় এখনও মামলা হয়নি সাংবাদিকতার উজ্জ্বল পরিম-লে কামকামুর রাজ্জাক রুনু এক স্বপ্নচারী পুরুষ শেখ রাসেলের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে জগন্নাথপুরে আ.লীগের আলোচনাসভা জগন্নাথপুরে শ্রমিকলীগের কমিটি বিলুপ্ত জগন্নাথপুরের তিন রাজনীতিবীদ জেলা আ,লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মনোনীত হলেন জগন্নাথপুরে দুইপক্ষের বিরোধে বলি হলো মাদ্রাসার ছাত্র সাব্বির জগন্নাথপুরে ছিনতাইকৃত গ্রামীণফোনের রিচার্জ কার্ড-অর্থসহ ডাকাত গ্রেফতার জগন্নাথপুরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে শিশু নিহত জগন্নাথপুরে অটোচালককে হত‌্যা করে লাশ ডোবায় ফেলে দিল দুবৃর্ত্তরা

বাহুবল ট্রাজেডি-নিহত চার শিশুর মায়েদের মুখে ভাত তুলে দিলেন এমপি কেয়া

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬
  • ৫৯ Time View

স্টাফ রিপোর্টার:: হবিগঞ্জের সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী বাহুবলে নিহত চার শিশুর মায়ের মুখে ভাত মুখে তুলে দিলেন। সোমবার দুপুরে তিনি নিহতদের বাড়িতে ছুঁটে যান। এসময় তিনি শোকার্ত মায়েদের মুখে ভাত তুলে দিয়ে একসাথে তাদের সাথে দুপুরের খাবার খান।

এসময় কেয়া চৌধুরী শোকার্ত মায়েদের এবং স্বজনদের শান্তনা প্রদান করেন। এমপি কেয়া চৌধুরীকে কাছে পেয়েও শোকার্ত স্বজনরা আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন।

এ ব্যাপারে আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী বলেন, ১০ দিন পর সুন্দ্রাটিকি গ্রামের নিহত শিশু শুভ, মনির, তাজেল, ইসমাঈলদের মায়েরা – ভাত মুখে নিলেন। আমার অনুরোধে, তারা একসাথে বসে দুপুরের খাবার খেয়েছেন।

কেয়া চৌধুরী বলেন, আমি নিহতের বাড়িতে প্রতিনিয়তই যাচ্ছি। সোমবারও গিয়েছি। আমি চাচ্ছি নিহতের স্বজনদের মানসিক অবস্থার উন্নতি হোক। তিনি জানান স্বস্তি বোধ করছেন এই ভেবে যে কিছুটা হলেও শোকার্ত মায়েরা স্বাভাবিক জীবনের দিকে ফিরছেন। তিনি জানান শুধু নিহত ৪ শিশুর মায়েদের মনটা হালকা করার জন্য। তাদের মনে একটু ভালো বোধ সৃষ্টি করার জন্য তিনি নিয়মিত সময় দিচ্ছেন।

এমপি কেয়া চৌধুরী বলেন, সুন্দ্রাটিকি গ্রামের ওই চার শিশু হত্যাকান্ডে জড়িতদের বিচার জাতীয় দাবিতে পরিণত হয়েছে। আমি ও আমরা নজরদারি রাখছি এই হত্যাকান্ডের মাধ্যমে বা এই ঘটনাকে পুঁজি করে যাতে কেউ সরকারকে বিব্রত করতে না পারে।

প্রসঙ্গত, গত ১২ ফেব্র“য়ারি সন্ধ্যায় নিখোঁজ হয় সুন্দ্রাটিকি গ্রামের ওয়াহিদ মিয়ার ছেলে সুন্দ্রাটিকি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র জাকারিয়া শুভ (৮), আবদাল মিয়ার ছেলে প্রথম শ্রেণির ছাত্র মনির মিয়া (৭), আব্দুল আজিজের ছেলে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র তাজেল মিয়া (১০) ও আব্দুল কাদিরের ছেলে সুন্দ্রাটিকি আনোয়ারুল উলুম ইসলামিয়া মাদরাসার নুরানি প্রথম শ্রেণির ছাত্র ইসমাইল মিয়া (১০)। তারা একে অপরের চাচাতো ভাই।

নিখোঁজের পাঁচ দিন পর ১৭ ফেব্র“য়ারি সকালে সুন্দ্রাটিকি গ্রাম থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে একটি ক্ষেত থেকে মাটিচাপা অবস্থায় ওই চার শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়।

হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে সুন্দ্রাটিকি গ্রামের বাসিন্দা আবদুল আলী (৬০), তার ছেলে জুয়েল (২০), রুবেল (১৮), একই গ্রামের বাসিন্দা আরজু (৪০), বশির (২৪) ও সালেহ আহমদ নামে ছয় জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24