মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৬:২৩ পূর্বাহ্ন

ভিক্ষুক মুক্ত হতে যাচ্ছে জগন্নাথপুরের পাটলী ইউনিয়ন

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৬ এপ্রিল, ২০১৫
  • ৯১ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক ::সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার পাটলী ইউনিয়নে শুরু হয়েছে ভিক্ষুক পূর্ণবাসন কার্যক্রম। ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজুল হক ইউনিয়নবাসীকে নিয়ে ভিক্ষুক পূর্নবাসনে গড়ে তুলেছেন সামাজিক আন্দোলন। ইউনিয়নবাসীর ব্যাপক সাড়া দিয়ে এ আন্দোলনকে এগিয়ে নিয়ে ইতিমধ্যে এ কার্যক্রমে সুফল পাওয়া গেছে। ভিক্ষাবৃত্তি ছেড়ে অনেকেই অন্যপেশায় ঘুরে দাঁড়ানোর সংকল্প করেছেন। ভিক্ষুক মুক্ত করার আন্দোলনকে বাস্তবে রূপ দিতে আগামী ১৮ এপ্রিল ইউনিয়নের বিশাল ভিক্ষুক জনগোষ্টিকে পূর্নবাস কার্যক্রম হিসেবে উপকরণ বিতরণ করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। স্থানীয় সংসদ সদস্য অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান এ কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন। ইতিমধ্যে ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে সভা করে ভিক্ষুকদের তালিকা প্রনয়ন করে সামজিক আন্দোলন গড়ে তোলা হয়েছে। গঠন করা হয়েছে ভিক্ষুক পূর্ণবাসন তহবিল। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে,২০১১ সালে যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিরাজুল হক পাটলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এরপর থেকে ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়নে রূপান্তরিত করতে উদ্যোগ গ্রহণ করেন। যোগাযোগ,স্বাস্থ্য নিরাপত্তা, শিক্ষাসহ সার্বিক উন্নয়নে নিরলস প্রচেষ্ঠা চালিয়ে ইউনিয়নে এগিয়ে নিতে কাজ শুরু করেন। ইতিমধ্যে স্কুলগুলোতে মিড ডে মিল ,স্কুল ব্যাগ বিতরণ,ইউনিয়নের চুরি ডাকাতি প্রতিরোধে পুলিশ বাহিনীকে সহায়তার পাশাপাশি প্রতিটি ওয়ার্ডে যুব সমাজকে দিয়ে ডিফেন্সপার্টি গঠন করে রাত দশটার পর থেকে ইউনিয়নের প্রবেশপথ সমূহে নিরাপত্তা চৌকি বসিয়ে প্রশংসনীয় হয়েছেন। প্রথমবারের মতো ইউনিয়নে স্টিক লাইট স্থাপন করতে যাচ্ছেন। চেয়ারম্যান সিরাজুল হক জানান, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ক্ষুদা দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার কাজ তাঁর ইউনিয়ন থেকে শুরু করার প্রয়াস নিয়ে তিনি কাজ শুরু করেছেন। বাঙ্গালি ভিক্ষুকের জাতি নয় এটা প্রমাণ করতে প্রথমেই তিনি পুরো ইউনিয়নকে ভিক্ষুক মুক্ত করার উদ্যোগ নেন গত বছর থেকে। শুরুতেই প্রতিটি ওয়ার্ডে নির্বাচিত পুরুষ ও নারী সদস্যদের সহায়তায় এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে ভিক্ষুকদের তালিকা প্রনয়ন করেন। প্রাথমিকভাবে পরীক্ষামূলক কয়েকজনকে ভিক্ষাবৃত্তি ছাড়ার জন্য উপকরণ প্রদান করেন। এতে সফলতা আসায় তিনি উৎসাহিত হন। যার প্রেক্ষিতে তালিকা অনুযায়ী সকল ভিক্ষুকদেরকে পূর্ণবাসনের পরিকল্পনা গ্রহন করেছেন। যার অংশ হিসেবে জনকে পূর্নবাসন করতে বিভিন্ন উপকরণ প্রদান করবেন। এছাড়াও যেসমস্ত ভিক্ষুক কাজ করার ক্ষমতা নেই তাদেরকে ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে খাদ্য ও বস্ত্র সহায়তা প্রদান করা হবে। সকল ভিক্ষুকদের জন্য রেশন কার্ডের আদলে কার্ড প্রদান করা হবে। এছাড়াও তিনি যুব সমাজকে কাজে লাগাতে ইউনিয়ণ আইর্টি সেন্টার উদ্বোধন ও ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ণ জায়গা সড়ক বাতি লাগানো ব্যবস্থা করেছেন। পাটলী ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজির হোসেন বলেন, ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের প্রশংসনীয় উদ্যোগে গোঠা ইউনিয়নবাসী আনন্দিত। ভিক্ষুকমুক্ত করার মাধ্যমে ইউনিয়নের সুনাম আরো বৃদ্ধিপাবে বলে তিনি আশাবাদী।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24