সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ০৫:৪৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
দ.সুনামগঞ্জে চুরির দায়ে ইউপি সদস্য আটক কেমন ইমাম চাই সুনামগঞ্জে বিতর্কিতদের আওয়ামী লীগে স্হান না দিতে তৃণমূল নেতাদের দাবি প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী পরীক্ষা:জগন্নাথপুরে প্রথম দিনে অনুপস্থিত ২৬০ যুক্তরাজ্য বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটিকে জগন্নাথপুর বিএনপির অভিনন্দন পেঁয়াজ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করলেন কাদের সিদ্দিকী ‘ব্রিটিশ বাংলাদেশী হুজহু’র প্রকাশনা ও এওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানের বারোতম আসর বর্ণাঢ্য আয়োজনে সম্পন্ন পেঁয়াজ খাওয়া বন্ধ করে দিয়েছি:প্রধানমন্ত্রী জগন্নাথপুর পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড আ.লীগের কমিটি গঠন জগন্নাথপুরে অগ্নিকাণ্ডে নি:স্ব ৮ পরিবার আশ্রয় নিলেন স্কুলে.মানবেতর জীবন যাপন

মাগফিরাত লাভের উপায়

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২ জুন, ২০১৮
  • ৮৭ Time View

মাও. মুহাম্মদ আকরামুল ইসলাম
পবিত্র কোরআনে আল্লাহতাআলা বলেছেন, ‘খুলেকাল ইনসানু জায়িফা’ (সুরা নেসা : ২৮) অর্থাৎ মানুষকে দুর্বল করে সৃষ্টি করা হয়েছে। এ থেকে বোঝা যায়, মানুষ যেহেতু দুর্বল, তাই মানুষের দ্বারা বিভিন্ন দুর্বলতা প্রকাশ পাবে, মানুষের দ্বারা বিভিন্ন ভুলত্রুটি সংঘটিত হবে, কিন্তু এতে নিরাশ হয়ে হাত গুটিয়ে বসে পড়ার কোনো কারণ নেই। কেননা পবিত্র কোরআনেই আল্লাহতাআলা ঘোষণা দিয়ে বলেছেন, ‘তোমরা আল্লাহতাআলার রহমত থেকে নিরাশ হয়ো না, কেননা নিশ্চয়ই আল্লাহ সব পাপ ক্ষমা করেন আর নিশ্চয় তিনি অতীব ক্ষমাশীল, পরম দয়াময়’ (সুরা আজ জুমার : ৫৩)।
এ আয়াত থেকে স্পষ্টভাবে প্রতীয়মান হয়, আল্লাহতাআলা মানুষকে কত বেশি ভালোবাসেন আর তিনি কতটা ক্ষমাশীল। তিনি মানুষকে শান্তি দিতে চান না, বরং ক্ষমা করতে চান আর তার গুণবাচক দুটি নাম গফুর ও গাফফারও এদিকেই ইঙ্গিত করে। তাই তিনি মানুষকে ক্ষমা করার জন্য বিভিন্ন পথ অবলম্বন ও ইবাদত-বন্দেগি করতে বলেছেন আর সেসব ইবাদত-বন্দেগির অন্যতম ইবাদত হলো রোজা। এই রোজাকে আল্লাহতাআলা মানুষের ক্ষমার একটি মাধ্যম বানিয়েছেন। আমাদের প্রিয় নবী (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি ইমানের চেতনায় সমৃদ্ধ হয়ে সওয়াব লাভের আশায় রমজানের রোজা রাখে তার অতীতের সব পাপ ক্ষমা করে দেওয়া হবে’ (বোখারি, কিতাবুস সওম, হাদিস নম্বর : ১৭৮০, ইসলামিক ফাউন্ডেশন)। একইভাবে মহানবী (সা.) আরও বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি ইমানের চেতনায় সমৃদ্ধ হয়ে এবং আত্মসংশোধনের উদ্দেশ্যে রমজান মাসে (তারাবি) নামাজের জন্য দ-ায়মান হয়, তার অতীতের পাপগুলো ক্ষমা করে দেওয়া হয়’ (বোখারি, সালাতুত তারাবি, হাদিস নম্বর : ১৮৮২, ইসলামিক ফাউন্ডেশন)। শুধু এতটুকুই নয়, বরং হাদিসে দেখতে পাই, রমজান মাসের দ্বিতীয় বা মধ্যম ১০ দিনকে বিশেষভাবে ক্ষমার জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে। যেভাবে আমরা হাদিসে দেখতে পাই মহানবী (সা.) বলেছেন, ‘আওসাতুহু মাগফিরাহ’ অর্থাৎ রমজানের মধ্যবর্তী ১০ দিন মাগফিরাত বা ক্ষমার দশক।
আমরা সৌভাগ্যবান, কেননা আল্লাহতাআলা আমাদের জীবনে আরেকটি রমজান দান করেছেন এবং ইতোমধ্যে আমরা এর রহমতের ১০টি দিন কাটিয়ে দিয়েছি আর এখন আমরা মাগফিরাতের দশক অতিবাহিত করছি। অতএব, আমাদের উচিত হবে, অতীতের ভুলত্রুটি ও পাপের জন্য অনুতপ্ত হওয়া এবং এর শক্তিকে কাজে লাগিয়ে আশায় বুক বেঁধে পূর্ণ ইমানের সঙ্গে রমজানের এই দিনগুলোকে পুণ্যকর্মের মাধ্যমে অতিবাহিত করা। তাই আল্লাহর প্রতি দৃঢ় বিশ^াস রেখে, আত্মসংশোধনের দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে সহিহ নিয়তে সব শর্ত পূরণ করে রোজা রাখতে হবে। অর্থাৎ আমাদের প্রিয় নবী (সা.) যেভাবে রোজা রাখার শিক্ষা দিয়েছেন, সেভাবে রোজা রাখতে হবে। যেমনÑ কোনো প্রকার অন্যায়, ঝগড়াবিবাদ, অশ্লীলতা ও অপকর্মে লিপ্ত হওয়া যাবে না এবং মিথ্যা বলা যাবে না। কেননা হাদিস শরিফে এসেছে, ‘যে ব্যক্তি মিথ্যা পরিত্যাগ করে না, তার ক্ষুধার্ত ও পিপাসার্ত থাকা আল্লাহর কাছে কোনো মূল্য রাখে না।’ হাদিসে আরও উল্লেখ আছেÑ রোজা ঢালস্বরূপ। রোজা পালনের সময় তোমাদের কেউ যেন অশ্লীলতায় লিপ্ত না হয় এবং ঝগড়াবিবাদ না করে। কেউ যদি তাকে গালি দেয় অথবা তার সঙ্গে ঝগড় করে, তা হলে সে যেন বলে আমি রোজাদার। এ ছাড়া রাতের বেলা তারাবিহ ও তাহাজ্জুদের নামাজ পড়তে হবে আর বেশি বেশি দোয়া করতে হবে এবং আল্লাহর দরবারে ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে। আমাদের বুঝতে হবে, রোজার প্রকৃত উদ্দেশ্য হলো, তাকওয়ার ক্ষেত্রে উন্নতি করা। আল্লাহতাআলা আমাদের প্রশিক্ষণের জন্য এ মাসটি দান করেছেন। এতে আমাদের নিজেদের তাকওয়ার মান উন্নত করতে হবে আর পরিণামে এই তাকওয়াই আমাদের পুণ্যের মানকে উন্নত করবে। এটি আমাদের স্থায়ী পুণ্যের ওপর প্রতিষ্ঠিত এবং আল্লাহর নৈকট্য দান করবে আর একই সঙ্গে অতীতের পাপও মোচন হবে।
কাজেই এই সময়কে আমাদের কাজে লাগাতে হবে আর আল্লাহতাআলার ক্ষমা ও মাগফিরাত লাভের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করতে হবে। তবেই আমাদের জন্য এই বরকত ও কল্যাণময় মাস রমজান সার্থক হবে।
লেখক: ইসলামি গবেষক
(সংকলিত)

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24