সোমবার, ২৬ অগাস্ট ২০১৯, ০৪:৩৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে বিদ্যালয় সমূহে পরিচ্ছিন্ন রাখতে ডাষ্টবিন বিতরণ শুরু জগন্নাথপুরে কমিউনিটি পুলিশিং সভায় পুলিশ সুপার- সুনামগঞ্জের শান্তি শৃঙ্খলা নিশ্চিতে কাজ করতে চাই বিশ্বনাথে পাইপগানসহ গ্রেফতার-১ মাহী বি চৌধুরীকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ ভিডিও কেলেঙ্কারি : জামালপুরে নতুন ডিসি নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জগন্নাথপুরে সৈয়দপুর গ্রামবাসীর উদ্যোগে সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের নির্বাচন সম্পন্ন:সভাপতি পঙ্কজ দে,সেক্রেটারী মহিম জগন্নাথপুরে নৌকাবাইচ:এবার সোনার নৌকা,সোনার বৈঠা জিতল কুতুব উদ্দিন তরী জগন্নাথপুরে সড়ক সংস্কার-অবৈধ যান অপসারণের দাবীতে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি মালিক,শ্রমিক নেতারদের জগন্নাথপুরে এনজিও সংস্থা আশা’র উদ্যোগে তিনদিন ব্যাপি ফিজিওথেরাপী চিকিৎসা ক্যাম্প শুরু

রাধারমণের জমিতেই হবে একাডেমি

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১০ নভেম্বর, ২০১৭
  • ৩৪ Time View

অমিত দেব ::
রাজবৈদ্য চক্রপানি দত্তের অধস্তন পুরুষেরা শ্রীহট্টের প্রাচীন সামন্ত বংশ। ১৮৩৩ সালে এই বংশের প্রভাকর দত্তের দ্বাদশ পুরুষে জগন্নাথপুর থানার কেশবপুর গ্রামে দেশের লোক সংষ্কৃতির উজ্জ্বল নক্ষত্র গীতিকবি রাধারমণ দত্তের জন্ম। ১৮৯১ সালের ১০ নভেম্বর ২৬ কার্তিক ৮৩ বছরে বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। রাধারমণের পিতা রাধামাধব পরম প-িত ও অশেষ গুণের অধিকারী ছিলেন। পিতার সংগীত ও সাহিত্য সাধনা রাধারমণকে প্রভাবিত করে। কালক্রমে তিনি একজন স্বভাবকবি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। তিনি ছিলেন একাধারে গীতিকার, সুরকার, ও শিল্পী। বিভিন্ন সংগ্রাহকদের মতে, রাধারমণে গানের সংখ্যা তিন হাজারেরও উপরে। রাধারমণের জন্মদিনকে ঘিরে জগন্নাথপুর রাধারমণ স্মৃতি পরিষদ, উপজেলা প্রশাসন ও শিল্পকলা একাডেমীর যৌথ উদ্যোগে নানা আয়োজন করা হয়েছে। কেশবপুর রাধারমণ সমাজকল্যাণ সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলাম।

‘তোমরা কুঞ্জ সাজাও গো, আজ আমার প্রাণনাথ আসিতে পারে/ কিংবা জবা কুসুম সন্ধ্যামালী আনরে তুলিয়া মনোরঙ্গে সাজাও কুঞ্জ সব সখি মিলিয়া, মুর্শিদ বলি নৌকা ছাড়ো তুফান দেখি ভয় করিও না, মুর্শিদ নামে ভাসালে তরী অকূলে ডুবিবে না / দেখলাম দেশের এই দুর্দশা, ঘরে ঘরে চুরের বাসা’ এমন গান শুনলেই বুঝা যাবে রাধারমণ দত্তের সংগীত বিচিত্র বিষয়ে পরিপূর্ণ। প্রার্থনা তো ছিলই, আত্মতত্ত্ব, দেহতত্ত্ব এবং পরমাত্মা বিষয়ক সঙ্গীত ছাড়াও তাঁর স্বদেশ প্রেমেরও অনেক গান রয়েছে। তবে সবচেয়ে আকর্ষণীয় এবং ব্যতিক্রম হচ্ছে ধামাইল গান। রাধারমণের গানে শব্দ প্রয়োগের ক্ষেত্রে সাম্প্রদায়িকতা ছিলা না। আল্লাহ্- ঈশ্বরে যেমন তিনি পার্থক্য দেখেন নি তেমনি গুরু এবং মুর্শিদ শব্দের পার্থক্য দেখান নি। তাঁর গানের সুরে ভূবন মাতোয়ারা হলেও রাধারমন দত্তের নিজের ভূ-সম্পতি অর্পিত হওয়ায় রাধারমণ গবেষক ও ভক্তদের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাসুম বিল্লাহ্ জানিয়েছেন, ‘রাধারমণের স্মৃতি রক্ষার্থে একাডেমী নির্মাণের যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সেটি তাঁর (রাধারমণের) জমিতেই হবে এবং এটি নিস্কন্ঠক জমি। তাঁর সম্পদ খুঁজে বের করার চেষ্টা হচ্ছে। রাধারমণ একাডেমী নির্মাণের বিষয়টিও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।’
জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলাম রাধারমণ দত্তসহ সুনামগঞ্জের লোককবিদের অসাধারণ সৃষ্টিকর্মের জন্য সুনামগঞ্জ জেলাকে সংস্কৃতির রাজধানী হিসাবে ঘোষণার যোগ্য বলে মনে করেন। তিনি জানান, মরমি সাধক রাধারমণ, হাসনরাজা, শাহ্ আব্দুল করিম ও দূর্ব্বীণ শাহ্’এর সৃষ্টি কর্মকে বিকশিত করার জন্য এবং লোকসংস্কৃতি কেন্দ্রীক পর্যটক আকর্ষণের জন্য ৪ প্রখ্যাত লোককবির নামেই আলাদা-আলাদা একাডেমী নির্মাণের উদ্যোগ রয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24