বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:৪৮ পূর্বাহ্ন

লন্ডনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি অনুষ্ঠানে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান-বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে এতে প্রবাসীরাও অনন্য ভূমিকা পালন করছেন

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১২ জুলাই, ২০১৯
  • ১৯১ Time View

 

লন্ডন প্রতিনিধি :
বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি বলেছেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে আর প্রবাসীরাও এখানে অনন্য ভূমিকা পালন করছেন ।

প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা যেখানে দেশ ও দেশের মানুষের ভাগ্যন্নোয়নে বিরামহীন কাজ করে যাচ্ছেন, সেখানে প্রশাসনের শ্লথ গতির কারনে তা অনেক সময় কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌছতে সময় নিচ্ছে অনেক বেশি।
মন্ত্রী বলেন -আমি প্রেসকে সম্মান করি , ভয়ও পাই। প্রেসের মাধ্যমে প্রবাসীদের অনেক কথা জেনেছি।
দেশে প্রবাসীদের বাসাবাড়ি দখল, খাল, খেলারমাঠ দখলকারি ভূমিখেকোদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

 

 

 

বৃহস্পতিবার ( ১১ই জুলাই ২০১৯) পূর্ব লন্ডনের লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে বাংলা সংবাদ মাধ্যমের সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময়ে এই মন্তব্য করেন
লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এমদাদুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জোবায়ের ‘র পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মতবিনিময়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের ব জবাব দেন সজ্জন রাজনীতিক হিসেবে পরিচিত পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান।

 

 

 

এসময় তিনি বাংলাদেশের শিক্ষা, যোগাযোগ, চিকিৎসাসহ সামগ্রিক উন্নয়ন কর্মকান্ডের বিভিন্ন চিত্রও তুলে ধরেন উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে।

সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে সরাসরি লন্ডনে ফ্লাইট চালু, ব্রিটেনে তৈরী হওয়া মেধাবী বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত প্রজন্মকে দেশের কাজে লাগানো, নিজ এলাকাসহ বৃহত্তর সিলেটের উন্নয়ন কর্মকান্ডসহ অন্যান্য বিভিন্ন বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি ।

প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বের কথা তুলে ধরতে গিয়ে এসময় মন্ত্রী বলেন, ‘যত দ্রুত সম্ভব সার্বিক উন্নয়নের মাধ্যমে দেশকে কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌছাতে বিরামহীন কাজ করছেন প্রধান মন্ত্রী।
বাংলাদেশ আর আগের অবস্থানে নেই মন্তব্য করে পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, ‘এক সময় দরিদ্র ও ক্ষুধার্থ দেশ হিসেবে যে পরিচয় ছিলো বাংলাদেশের, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তা থেকে বেরিয়ে এসেছি আমরা।

মন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, শিক্ষা, খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্ণতা, সারা দেশের প্রতিটি গ্রামে বিদ্যুৎ সরবরাহ এখন বাংলাদেশে আর কল্পনা নয়, বাস্তবতা।

আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে জঙ্গি সন্ত্রাসের দিকে ইঙ্গিত করে পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, ‘আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির একটি অন্ধকার দিক নিয়ে আমাদের শঙ্কা ছিলো সবচেয়ে বেশি, সরকার এটি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে, যদিও নিয়ন্ত্রণে আনার পদ্ধতি সম্পর্কে অনেকেরই দ্বিমত বা সমালোচনা আছে। আর্টিজানের মত মানুষ জবাই করা ঘটনার পর কঠোর না হয়ে উপায় ছিলোনা সরকারের।

তিনি বলেন, ‘আইন শৃঙ্খলার এই ক্ষেত্রে সফলতা আমরা দেখছি।’ শিশু ধর্ষনের মত ঘটনা রোধে কঠোর আইন আসছে, এমনটি জানিয়ে এম এ মান্নান বলেন, ‘কোন বিষয় যখন আদালতে চলে যায়, তখন সরকারের আর কিছু করার থাকেনা। সরকার শুধু ঘটনার সাথে জড়িতদের আটক করে আদালতে সোপর্দ এবং প্রয়োজনে কঠোর আইন প্রণয়ন করতে পারে।’

শিক্ষার উন্নয়নে সরকারের নিরলস প্রচেষ্টার কথা জানিয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, ‘মাতৃভাষা শিক্ষাকে প্রাধান্য দিয়েই সরকার জাতিকে শিক্ষিত করতে চায়। এক্ষেত্রে উন্নত বিশ্বের অন্যান্য দেশের সাথে যৌথ সহযোগিতার ভিত্তিতে আধুনিক শিক্ষা কার্যক্রমের বিষয়টিও গুরুত্ব দেয়া হয়।’ এ বিষয়ে বহির্বিশ্বে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশীদের যেকোন পরামর্শ গুরুত্বের সাথে বিবেচনার আশ্বাস দেন পরিকল্পনা মন্ত্রী।

সিলেট থেকে সরাসরি বিমান ফ্লাইট আর কতদুর? এমন অপর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান কাজ চলছে।
তিনি আরো বলেন, ‘কাজের শ্লথ গতির কারনে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের তিরস্কারও করা হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘বিমান সিলেটে গিয়ে সরাসরি নামতে পারলে সিলেট থেকে সরাসরি উঠতে পারেনা কেন, এমনটি জানতে আমরা খোঁজ খবর নিয়েছি। আসলে সিলেট গিয়ে যখন নামে তখন জ্বালানি ফুরিয়ে যাওয়ার পথে থাকায় বিমানটি হাল্কা থাকে, এজন্য নামা সহজ হয়। কিন্তু উঠার সময় জ্বালানি ভর্তি থাকায় বিমানের ওজন থাকে বেশি। এই ওজন নিয়ে উড়তে গেলে যে রানওয়ের প্রয়োজন সেটি এখনও তৈরী হয়নি সিলেটে। তাছাড়া সিলেট থেকে জ্বালানি সংগ্রহের ব্যবস্থাও প্রয়োজন। একাজগুলো সম্পন্ন হলেই, সিলেট থেকে যুক্তরাজ্যের উদ্দেশ্যে সরাসরি উড়বে বিমান।’

জগন্নাথপুরে নিজ এলাকাসহ সিলেটের বিভিন্ন সড়কের বেহাল অবস্থার বিষয়েও প্রশ্নের সম্মুখিন হন পরিকল্পনা মন্ত্রী।

জানান, সিলেটে সড়ক উন্নয়নে সবচেয়ে বড় সমস্যা ঠিকাদার ও কাজের লোকের অভাব।
অন্য জেলা থেকে ঠিকাদার ও কাজের লোক এনে কাজ করাতে হয়। তবে কাজ চলছে, সড়কগুলোর এই অবস্থা থাকবেনা বলে সাংবাদিকদের আশ্বাস দেন মন্ত্রী। সিলেট বিমান বন্দর সড়কে পর্যাপ্ত লাইট না থাকায় রাতের বেলা তা অন্ধকার থাকে, এমন অভিযোগও শুনতে হয় পরিকল্পনা মন্ত্রীকে। উত্তরে তিনি সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হকের কথা টেনে বলেন, ‘মেয়রতো খুবই করিৎকর্মা মানুষ। নিশ্চয়ই এটি উনার নজরে পড়েনি। বিষয়টি মেয়রের নজরে নিয়ে আসবো আমি, সবধরনের সহযোগিতাও করবো তাঁকে।’

অবকাঠামোগত উন্নয়নের কথা বলতে গিয়ে এম এ মান্নান আরো বলেন, ‘ভারতের মত দেশে প্রতি স্কয়ার মাইলে যেখানে ৪০জন মানুষের বসবাস, সেখানে আমাদের দেশে বসবাস করে ১২শ জন। আমাদের জমির পরিমান খুবই সিমীত। এই সিমীত জমি অধিগ্রহন করে নতুন সড়ক করা খুবই কঠিন। যে সড়কগুলো আছে তাঁর রক্ষনাবেক্ষনেই এই মুহূর্তে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার।’

বিলেতে স্মাট কার্ড নিয়ে সাংবাদিক বাতিরুল হক সরদারের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন – সরকার প্রবাসীদের ব্যাপারে খুবই আন্তরিক । এ নিয়ে সরকারের বৃহৎ পরিকল্পনা রয়েছে ।

সিলেটে পাহাড় কেটে পরিবেশ নষ্ট, বাসাবাড়ি দখল ও জগন্নাথপুর সহ কয়েকটি উপজেলায় খাল, জলাশয়, নদী, খেলারমাঠ ভূমিখেকোরা দখল করছে ; সাংবাদিক শাহেদ রাহমান এর এ প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান- এ রকম কাজ যেই করুক না কেন আমার নজরে আসার সাথে সাথেই প্রশাসনকে নির্দেশ দেব সঠিকভাবেই কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণে ।

মতবিনিময় সভার সমাপনি বক্তব্যে লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে আসায় মন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান ক্লাব সভাপতি এমদাদুল হক চৌধুরী।
তিনি এসময় ব্রিটিশ-বাংলাদেশ কুটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছরপুর্তি ও লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের ২৫ বছরপুর্তি আনুষ্ঠানিক উদযাপনে মন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24