বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১০:২৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ প্রকাশের পর জগন্নাথপুরের সেই তিন বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের ভোগান্তি কমেছে

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯
  • ১৫১ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর-শিবগঞ্জ সড়কে যাতায়াত ভোগান্তির অবসান অবশেষে লাঘব হচ্ছে তিন বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের।
শনিবার থেকে সরাসরি যানবাহন চলাচল শুরু হয়েছে।
গত ২ ফেব্রুয়ারি জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম অনলাইন পত্রিকায়‘ জগন্নাথপুরে যাতায়াত ভোগান্তিতে তিন বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীরা শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর কর্তৃপক্ষের টনক নড়ে। পরীক্ষার্থীদের দুভোর্গ এড়াতে সড়কের ক্ষতিগ্রস্থ স্থানে মাটি ও বালির বস্তা ফেলে কাজ শুরু করে।
স্থানীয়রা জানান, জগন্নাথপুর শিবগঞ্জ সড়কের ঘোষগাঁও নামকস্থানে নলজুর নদীর ওপর নির্মিত সেতুর অ্যাপ্রোচ সংযোগ সড়কের প্রায় ৮ মাস পুর্বে স্থানীয় সরকারের অর্থায়নে ৯৬ লাখ টাকা ব্যয়ে কাজ শুরু করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স নুরুল ইসলাম ট্রের্ডাস। ফলে ওই সড়কে সরাসরি যানবাহন
চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সড়ক দিয়ে পাইলগাঁও ইউনিয়নের অরূন্যেদয় বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, পল্লী উচ্চ বিদ্যালয় ও বিএন উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের উপজেলা সদরের
পরীক্ষা কেন্দ্রে স্বল্প সময়ে ও কম টাকা খরচে আসার কথা থাকলেও সেতুর অ্যাপ্রোচে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় বিঘিœত হয় যাতায়াত। যে কারনে পরীক্ষার্থীরা বিকল্প সড়ক হিসেবে রানীগঞ্জ ইউনিয়ন হয়ে ঘুরে অতিরিক্ত সময় ও বাড়তি টাকা
ব্যয়ে সদরে এসে পরিক্ষায় দিতে হয়। পরীক্ষার্থীদের দুর্ভোগের বিষয়টি জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানতে পারে দ্রুত সরাসরি যান চলাচলের জন্য ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য স্থানীয় উপজেলা প্রকৌশলী কর্মকর্তা
গোলাম সারোয়ারকে নির্দেশ প্রদান করেন।
পাইলগাঁও ইউনিয়নের বিএন উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী মরিয়ম আক্তার তহুরা’জগন্নাথপুর টুয়োন্টিফোর ডটকমকে
বলেন, ঘোষগাঁও নামকস্থানে সেতুর সংযোগ সড়কে মাটি ও বালির বস্তা দিয়ে বিকল্প ব্যবস্থা নিয়ে সড়ক তৈরী করায় কম সময়ের মধ্যে পরীক্ষা
থেকে আজকে
আসতে করেছি। দূর্ভোগ কমেছে অনেকটা।
জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী কর্মকর্তা গোলাম সারোয়ার জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন,
এসএসসি পরীক্ষার্থীদের দুর্ভোগ লাঘবে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে সেতুর অ্যাপ্রোচ সংযোগ সড়কে মাটি এবং বালির বস্তা দিয়ে ছোট ছোট যান চলাচলের জন্য অস্থানীয়ভাবে রাস্তা তৈরী করে দেয়া হয়েছে। এখন থেকে যানচলাচল
অব্যাহত করছে। জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, পরীক্ষার্থীদের চলাফেরায় ভোগান্তি কমাতে স্থানীয় প্রকৌশলীকে ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশনা দেয়া হলে সংশ্লিষ্টরা পদক্ষেপ নেয়ায় সড়কের দূর্ভোগ
কমেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24