বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ১২:২৯ পূর্বাহ্ন

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদলির নতুন নীতিমালা চুড়ান্ত,খুলছে শিক্ষক বদলীর বন্ধ দরজা্

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ১৮ মার্চ, ২০১৫
  • ১৯৪ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক- সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদলির নতুন নীতিমালা চলতি সপ্তাহে জারি করা হতে পারে, যার ফলে ঢাকা ছাড়া অন্য সব সিটি করপোরেশন, পৌরসভা এবং সদর উপজেলায় শিক্ষকদের বদলির বন্ধ দরজা খুলবে।
সোমবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জ্ঞানেন্দ্র নাথ বিশ্বাস শিক্ষক বদলির নীতিমালা চূড়ান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।তিনি বলেন, “নতুন নীতিমালায় শিক্ষকদের সিটি করপোরেশন ও পৌরসভা এলাকায় বদলির বিষয়টি শিথিল করা হচ্ছে।”দেশে বর্তমানে ১১টি সিটি করপোরেশন এবং তিনশর বেশি পৌরসভা রয়েছে। আর ৫৯ হাজার ৭৭৩টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক আছেন তিন লাখ এক হাজার ১৯৪ জন।
২০১১ সালের ১৯ জুলাই প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারি করা শিক্ষক বদলির নীতিমালা অনুযায়ী সিটি করপোরেশন, পৌরসভা ও কোনো সদর উপজেলার বাইরে কর্মরত শিক্ষকরা ওইসব এলাকায় বদলি হতে পারেন না।
নতুন নীতিমালা জারির ফলে সাড়ে তিন বছরের বেশি সময় পর সেই বাধা কেটে যাবে।
‘সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদলির নীতিমালায় বলা হয়েছে, সহকারী শিক্ষক হিসাবে চাকরির মেয়াদ ন্যূনতম দুই বছর পূর্ণ হলে এবং পদ শূন্য থাকলে আন্তঃউপজেলা/থানা, আন্তঃজেলা ও আন্তঃসিটি করপোরেশন এবং আন্তঃবিভাগ বদলি করা যাবে।
অর্থাৎ, নীতিমালা জারির পর সিটি করপোরেশন ও পৌরসভা এলাকার শিক্ষকরা অন্য সিটি করপোরেশন ও পৌরসভা এলাকায় বিদ্যালয়ে বদলির সুযোগ পাবেন।
তবে ঢাকা সিটি করপোরেশনের বাইরের কোনো সিটি করপোরেশনে কর্মরত শিক্ষকরা ঢাকায় বদলি হতে পারবেন না বলে খসড়ায় উল্লেখ রয়েছে।
খসড়া অনুযায়ী, বাইরের সিটি করপোরেশন থেকে অন্য সিটি করপোরেশনে কোনো শিক্ষক বদলি হওয়ার এক বছরের আগে তাকে অন্য কোথাও বদলি করা যাবে না।
এছাড়া কোনো শিক্ষকের নিয়োগপত্রে উল্লিখিত স্থায়ী ঠিকানা পৌরসভা, জেলা সদর, সিটি করপোরেশেন হওয়া সত্ত্বেও যাদের এসব এলাকায় পদায়ন করা হয়নি, চাকরির মেয়াদ দুই বছর না হলেও পদ শূন্য থাকা সাপেক্ষে তাদের স্থায়ী ঠিকানায় বদলি করা যাবে।
কোনো শিক্ষক আগ্রহী হলে তাকে সিটি করপোরেশন এলাকার আওতাধীন বিদ্যালয় থেকে সংশ্লিষ্ট সিটি করপোরেশন এলাকার বাইরে অন্য যে কোনো উপজেলা/থানায় বদলি করা যাবে।
তবে পরবর্তীতে তারা আর সিটি করপোরেশন এলাকায় ‘সাধারণভাবে’ ফিরতে পারবেন না।
প্রশাসনিক কারণে বদলি (পানিশমেন্ট পোস্টিং) হওয়া কোনো শিক্ষক এক বছরের মধ্যে পুনঃবদলির আবেদন করতে পারবেন; আগে এই সময় ছিল দুই বছর। প্রশাসনিক কারণে মন্ত্রণালয় যে কোনো শিক্ষককে যে কোনো সময় যে কোনো বিদ্যালয়ে সংযুক্তি দিতে পারবে উল্লেখ করে খসড়ায় বলা হয়েছে, এক্ষেত্রে প্রয়োজন হলে মন্ত্রণালয় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মতামত নিতে পারবে।নীতিমালায় শিক্ষকদের সংযুক্তির মেয়াদ এক বছর নির্ধারণ করা হলেও ‘বিশেষ’ প্রয়োজনে এই মেয়াদ বাড়ানো যাবে।এছাড়া সদ্য জাতীয়করণ করা বিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষকের নামে দায়ের করা মামলায় আদালতের বদলি স্থগিত রাখার আদেশ থাকলে তিনি বদলির জন্য বিবেচিত হবেন না।
দুর্গম এলাকার একই বিদ্যালয়ে ১০ বছর কর্মরতরা পদ শূন্য থাকা সাপেক্ষে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে একই উপজেলায় অন্য বিদ্যালয়ে বদলির সুযোগ পাবেন বলেও খসড়া নীতিমালায় বলা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24