বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
মানবতাবিরোধী অপরাধ:টিপু সুলতানের ফাঁসি আদেশ চালকদের প্রতি ইসলামের নির্দেশনা জগন্নাথপুরে সংগ্রামী সেই মেয়েটির পরিবারে উপজেলা পরিষদের সেলাই মেশিন প্রদান জগন্নাথপুরে মোটরযান ও ভোক্তা আইনে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা সৌদিতে নির্যাতিতা জগন্নাথপুরের কিশোরীকে দেশে ফেরাতে পরিকল্পনামন্ত্রীর ডিও লেটার কলকলিয়া ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলন সম্পন্ন হলেও কমিটি হয়নি আইসিজেতে গাম্বিয়ার আইনমন্ত্রী-মিয়ানমারের গণহত্যা কোনোভাবেই গ্রহণ করা যায় না জগন্নাথপুরে মানবাধিকার দিবসে র‌্যালি ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত সিলেটে মাকে হত্যা করল পাষান্ড ছেলে ঘৃনার বদলে অমুসলিমদের মধ্যে ১০ হাজার কোরআন বিতরণ করবে নরওয়ের মুসলিমরা

সাংসদদের তোপের মুখে অর্থমন্ত্রী

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ১৯ জুন, ২০১৭
  • ৪১ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: bgbf২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে নিয়ে সাংসদদের তোপের মুখে পড়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। আজ সোমবার জাতীয় সংসদে বাজেটের উপর আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকার দলীয় এমপিরা কড়া অর্থমন্ত্রীর সমলোচনা করেন। এমপি শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, আপনার দায়িত্ব বাজেট পেশ করা। এই সংসদের ৩৫০ জন জনগণের প্রতিনিধি ঠিক করবেন জনগণের কল্যাণে কোনটা থাকবে, কোনটা থাকবে না। আপনি একগুঁয়েমি সিস্টেম বন্ধ করেন, কথা কম বলেন। আপনার বয়স হয়ে গেছে, কখন কি বলে ফেলেন ঠিক থাকে না। মাহবুব উল হানিফ বলেন, বাজেট নিয়ে সারা দেশে আলোচনার ঝড় চলছে। আগামী বাজেট কার্যকর হবে জুলাইয়ে। তখন বর্ষা শুরু হবে। সেপ্টেম্বরে বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ায় গেলে অক্টোবরে নির্বাচনের তফসিল। এবারই নির্বাচনমুখী বাজেট করা উচিত ছিল। বলা যায়, অর্থমন্ত্রী এবার নির্বাচনবিরোধী বাজেট করেছেন। হানিফ আরও বলেন, অর্থমন্ত্রী কী কারণে, কার স্বার্থে ব্যাংক হিসাবে আবগারি শুল্ক করেছেন, জানা নেই। হলমার্কের চার হাজার কোটি টাকা দুর্নীতির পর তিনি বলেছিলেন, এ টাকা কিছু নয়। তাহলে কেন সামান্য টাকার জন্য সারা দেশে মানুষের মধ্যে আক্ষেপ তৈরি করলেন। সাবেক তথ্যমন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ বলেন, বাজেট নিয়ে অর্থমন্ত্রী জনগণকে বিভ্রান্ত করছেন। আগামী নির্বাচনে আল্লাহ অর্থমন্ত্রীকে সুযোগ দেবে কি না জানি না। কিন্তু যাদের আওয়ামী লীগ মনোনয়ন দেবে, তারা যাতে নির্বাচন করতে পারে সেটা খেয়াল করতে হবে। আবগারি শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, এমনিতে সুদ কম। এর ওপর শুল্ক বাড়ালে তা হবে মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা। আবুল কালাম বলেন, ঋণখেলাপিদের বিশাল লিস্ট দিছেন। কই, তাদের তো ধরতে পারেন না। ব্যাংকের টাকা পাচার বন্ধ করতে পারছেন না। আর নিম্নমধ্যবিত্তের ওপর কর চাপিয়ে দিচ্ছেন। উল্লেখ্য, গত ১লা জুন প্রস্তাবিত বাজেট সংসদে দেওয়ার পর ব্যাংক হিসাবে বাড়তি আবগারি শুল্ক, সঞ্চয়পত্রে সুদের হার, সারচার্জসহ বেশ কয়েকটি বিষয় নিয়ে সরকারি ও বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা সমালোচনা করে আসছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24