মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:২৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে মোটরযান ও ভোক্তা আইনে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা সৌদিতে নির্যাতিতা জগন্নাথপুরের কিশোরীকে দেশে ফেরাতে পরিকল্পনামন্ত্রীর ডিও লেটার কলকলিয়া ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলন সম্পন্ন হলেও কমিটি হয়নি আইসিজেতে গাম্বিয়ার আইনমন্ত্রী-মিয়ানমারের গণহত্যা কোনোভাবেই গ্রহণ করা যায় না জগন্নাথপুরে মানবাধিকার দিবসে র‌্যালি ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত সিলেটে মাকে হত্যা করল পাষান্ড ছেলে ঘৃনার বদলে অমুসলিমদের মধ্যে ১০ হাজার কোরআন বিতরণ করবে নরওয়ের মুসলিমরা জগন্নাথপুরে ফুটবল এসোসিয়েশনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন উপলক্ষে প্রস্তুতিসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে পারাপারের সময় খেলা নৌকা থেকে পড়ে মৃগী রোগির মৃত্যু জগন্নাথপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহতের স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত

সাকিব -রিয়াদ জুটির বাংলাদেশ ইতিহাস গড়েছে

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ১০ জুন, ২০১৭
  • ৪২ Time View

ক্রীড়া প্রতিবেদক-

কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন বাংলাদেশের জন্য বড় লক্ষীমন্ত মাঠ। ইতিহাস গড়তেই যেনো এই মাঠে নামে টাইগাররা। শুক্রবারও আরেক মহাকাব্য রচিত হলো কার্ডিফে। নিউজিল্যান্ডকে ৫ উইকেটে হারালো বাংলাদেশ।

এতোটুকু বললে আসলে কিছুই বলা হলো না। ভাবুন ৩৩ রানেই নেই বাংলাদেশের টপওর্ডারের ৪ ব্যাটসম্যান। এদের মধ্যে ইনফর্ম তামিমও রয়েছেন। এরপর উইকেটে এসে কী জুটিটাই না গড়লেন সাকিব আল হাসান আর মহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ২২৪ রানের এক অবিশ্বাস্য জুটি গড়ে প্রায় হারতে বসা ম্যাচে বাংলাদেশকে জয় এনে দিলেন সাকিব ও রিয়াদ।

সাকিব ১১৪ রান করে জয় থেকে ৯ রান দূরে বাংলাদেশকে রেখে আউট হন। তবে মাহমুদউল্লাহ জয়ে বন্দরে পৌছানোর সময়ও অপরাজিত ছিলেন ১০২ রান করে।

জুন মাসটিও বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য বিশেষ কিছু। প্রথম জুনের গল্পটি একযুগ আগের। সালটা ছিল ২০০৫, তারিখ ১৮! রান ছিল ২৪৯! পরের জুনটি ২০১৭, তারিখ ৯! মাঝে ১২টি জুনে বদলেছে অনেককিছুই। টাইগার ক্রিকেটের সাফল্যের ঊর্ধ্বগামী মানচিত্রটাও। আর এই বারো পার্বণে রান বেড়েছে মাত্র ১৬টি বেশি, ২৬৫! দুটিই কার্ডিফে। প্রথম জুনের রানটি অস্ট্রেলিয়ার, পরেরটি তাসমানিয়া সাগরপাড়ে তাদের প্রতিবেশী নিউজিল্যান্ডের। সেই দুটি টপকেই ইতিহাস গড়েছে একটি দল। যার নামটি বাংলাদেশ।

টাইম মেশিনে চড়ে একটু পেছন থেকে ঘুরে আসা যাক। সোফিয়া গার্ডেন্সে ২০০৫ সালের প্রতিপক্ষ ছিল সেসময়ের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। পরাক্রমশালী রিকি পন্টিংয়ের দলকে ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ২৪৯ রানে আটকে রাখে মাশরাফি-রফিকদের বোলিং আক্রমণ।

পরে মোহাম্মদ আশরাফুলের ১১ চারে সাজানো ১০১ বলে ১০০! পাঁচে নামা অধিনায়ক হাবিবুল বাশারের ৪৭, আর আফতাবের অপরাজিত ২১ রানের পিঠে ভর করে ৪ বল ও ৫ উইকেট হাতে রেখেই পাওয়া অবিস্মরণীয় সেই জয়।

সেই ম্যাচের পর এবারই প্রথম কার্ডিফে খেলতে গেছে বাংলাদেশ। মাশরাফি এবার অধিনায়ক। প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়ার প্রতিবেশী নিউজিল্যান্ড। বিশ্বচ্যাম্পিয়ন নয়, গত ওয়ানডে বিশ্বকাপের রানার্সআপ। তবে পরাক্রমশালী তো নয়ই। এইতো কদিন আগেই আয়ারল্যান্ডের মাটিতে কিউইদের হারিয়ে দেয়া গেছে। গত কয়েক বছরে ব্ল্যাক ক্যাপসদের বিপক্ষেই জয়ের অনেকগুলো নজীর আছে টাইগারদের।

সেখানে নিউজিল্যান্ডকে ২৬৫ রানে আটকে রেখে ইতিহাসের পুনরাবৃত্তির মঞ্চ প্রস্তুত করেই রেখেছিল মাশরাফির দল। এই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শুরুর ম্যাচেই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩০০ পেরোনো সংগ্রহ গড়েছিল যে বাংলাদেশ, তাদের কাছে ২৬৬ তো আশা করাই যায়।

কিন্তু ম্যাচে বাংলাদেশ ব্যাটিংয়ে নামার কিছুপরই চক্ষু চড়কগাছ। ১২ রানেই তিন উইকেট নেই, ত্রিশের কোটায় আরো একটি। টপঅর্ডার উধাও। দর্শকরা নড়েচড়ে বসার আগেই গেল-গেল রব।

সেখান থেকেই রচিত হল ফিরে আসার এক মহাকাব্যিক ইতিহাস। সাকিব-মাহমুদউল্লাহর রেকর্ড জুটিতে সব ছত্রখান। আরেকটি কার্ডিফ বধ, আরেকটি জুনে, এবারও ৫ উইকেটের জয়। আর বাংলাদেশের ওয়ানডে ইতিহাসের সর্বোচ্চ জুটিটি থামল ২২৪ রানে। সাকিব ফিরেছেন ১১৪তে, মাহমুদউল্লাহ অপরাজিত ১০২ রানে।

কার্ডিফে দুই জুনের মাঝে মিল থাকল অনেক কিছুতেই। সেই ম্যাচের প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসে ছিল ২টি ফিফটি, শুক্রবার নিউজিল্যান্ড ইনিংসেও থাকল দুটি। ওই ম্যাচে চারে নামা ডেমিয়েন মার্টিন করেছিলেন ফিফটি (৭৭), এই ম্যাচে চারে নেমে রস টেইলর করলেন ৬৩! বাংলাদেশের হয়ে সেঞ্চুরি ছিল একটি, এবার অবশ্য দুটি। দুই জয়ই ৫ উইকেটে। তবে সবচেয়ে বড় মিলটা থাকল একটি শব্দে, জয়ী- লাল-সবুজের পতাকা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24