শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯, ১২:৫২ অপরাহ্ন

সিলেটে আওয়ামীলীগের হ্যাট্রিক সাংগঠনিক মিছবাহ উদ্দিন সিরাজ সংবর্ধিত

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ২৮ অক্টোবর, ২০১৬
  • ৫২ Time View

সিলেট প্রতিনিধি:: আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনে তৃতীয়বারের মতো কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক পদে আসীন হওয়ায় হওয়ায় সিলেটের মিসবাহউদ্দিন সিরাজকে ‘সিলেটের চমক’ বলে অভিহিত করেছেন স্থানীয় নেতারা। মিসবাহউদ্দিন সিরাজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা থেকে সিলেট ফিরলে তাঁকে জেলা ও নগর আ.লীগের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সংবর্ধনায় বক্তারা তৃতীয়বারের মতো মিসবাহকে সংগঠনিক সম্পাদক পদে বহাল রাখায় কেন্দ্রের প্রতি সিলেটবাসীর পক্ষ থেকে কেন্দ্রকে অভিনন্দিত করা হয়।
পেশায় আইনজীবী মিসবাহউদ্দিন সিরাজ সিলেটের সরকারি কৌঁসুলির (পাবলিক প্রসিকিউটর) দায়িত্ব পালন করছেন আওয়ামী লীগ ক্ষমতাসীন হওয়ার পর থেকে। ছাত্রলীগ থেকে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হওয়া মিসবাহ সিলেট নগর আ.লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব থাকাকালে ২০০৯ সালে কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক পদে আসীন হন। তৃণমূল থেকে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে যাওয়া মিসবাহ ২০১২ সালে ও গত ২২ অক্টোবর শেষ হওয়া ২০ তম জাতীয় সম্মেলনে সাংগঠনিক সম্পাদক পদে বহাল থাকেন। টানা তিনবার একই পদে বহাল থাকাকে সিলেটের জন্য বড় চমক বলে অভিহিত করে স্থানীয় নেতারা মিসবাহকে সংবর্ধিত করেন।
দুপুরে সিলেট এমএজি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফুল দিয়ে মিসবাহকে বরণ করে শোভাযাত্রা করে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে সংবর্ধনা
দেওয়া হয়। এ সময় ‘সিলেটের চমক মিসবাহ ভাই’ বলে শ্লোগানও দেন নেতা-কর্মীরা। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিলেট জেলা পরিষদের প্রশাসক লুৎফুর রহমানের সভাপতিত্বে সংবর্ধনায় নগর আ.লীগের সভাপতি বদরউদ্দিন আহমদ কামরান, জেলার সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুারী, নগরের সাধারণ সম্পাদক আসাদউদ্দিন আহমদ, সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সুব্রত পুরকায়স্থসহ অঙ্গসংগঠনের নেতারা বক্তব্য দেন।
তৃতীয়বারের মতো সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পাওয়ায় দেওয়া সংবর্ধনার জবাবে মিসবাহউদ্দিন সিরাজ বক্তৃতায় বলেন, ‘আমাকে তৃণমূলের নেতৃত্ব থেকে কেন্দ্রের নেতৃত্বে বেছে নেওয়া হয়েছিল। কেন্দ্রে গিয়েও আমি তৃণমূলের সাংগঠনিক কাজে ব্যস্ত ছিলাম। যুদ্ধাপরাধের বিচার বিঘিœত করতে জামায়াত-বিএনপির নাশকতা মোকাবিলা করে প্রথমবার দলীয় প্রতীকে স্থানীয় নির্বাচনে আমার বড় ভূমিকা ছিল। দল এসব দিক বিবেচনা করে আমাকে তৃতীয়বারের মতো মনোনীত করেছে।’
সংবর্ধনা শেষে মিসবাহ বলেন, ‘টানা তিন মেয়াদ অতীতে সিলেটের কেউ এ পদে ছিলেন না বলে দলে এমন উৎফুল্ল ভাব। আমি মনে করি এটা আমার কর্মের পুরস্কার। সিলেট বিভাগে আওয়ামী লীগে কোন্দল ছিল। আমি গত দুই মেয়াদে কোন্দলের মূলোৎপাটন করে দলকে সাংগঠনিকভাবে দৃঢ় করেছি। এবার তৃতীয় মেয়াদে এসে দলকে আগামী নির্বাচনমুখী করার কাজ শুরু করবো।’
তাঁকে নিয়ে স্থানীয় নেতাদের ‘চমক’ বলে অভিহিত করা প্রসঙ্গে মিসবাহ বলেন, ‘সিলেটের জন্য চমক শুধু আমি একা নই। আমাদের শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এবার সর্বোচ্চ ফোরাম প্রেসিডিয়াম সদস্য হয়েছেন। সিলেট জেলায় এ রকম পদে আসীন আওয়ামী লীগের ইতিহাসে এবারই প্রথম। তাই সিলেটের জন্য চমক আমরা দুজনই।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24