মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:৪৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
রাধারমন দত্ত এ দেশের লোক সংস্কৃতির ভান্ডার কে সমৃদ্ধ করেছেন: জেলা প্রশাসক ‘আওয়ামী লীগে দুঃসময়ের কর্মী চাই, বসন্তের কোকিল না’ জগন্নাথপুরে মূল্য তালিকা না থাকায় ভ্রাম‌্যমান আদাতের অভিযানে জরিমানা আদায় ঈদে মীলাদুন্নবী (সা:) উপলক্ষে জগন্নাথপুরে র‌্যালি ও আলোচনাসভা জগন্নাথপুরে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত সুনামগঞ্জে নৌকাডুবিতে প্রহরীর মৃত্যু দেখে নিন যে স্থানে জন্মগ্রহণ করেছিলেন মহানবী (সা.) বাবরি মসজিদ ধ্বংসকারী সেই বলবীর সিং এখন মুসলিম! রাধারমণের মৃত্যুবার্ষিকীতে ‘ক্লোজআপ ওয়ান’র সেরা প্রতিযোগি সালমা জগন্নাথপুর আসছেন সোমবার সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় সিলেটের নুরুল নিহত

সুনামগঞ্জে মেডিকেল কলেজ হবে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৫
  • ৫০ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক-সুনামগঞ্জ জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সদস্যদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কথা বলেছেন। এসময় প্রধানমন্ত্রী সুনামগঞ্জে একটি মেডিকেল কলেজ স্থাপনের বিষয়ে ইতিবাচক মন্তব্য করেছেন। প্রধানমন্ত্রী জেলার সার্বিক উন্নয়ন কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন এবং সংশ্লিষ্টরা তাঁকে সকল বিষয়ে অবহিত করেছেন।
সোমবার বেলা সাড়ে ১১ টা থেকে প্রায় ২ টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এই ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়। একই সঙ্গে মানিকগঞ্জ জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সঙ্গেও ভিডিও কনফারেনেন্সে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। এসময় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকা- সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার অফিস, হবিগঞ্জ, মাদারীপুর ও মুন্সিগঞ্জ জেলা কনফারেন্সে যুক্ত ছিল।
সচিবালয়ে মন্ত্রী পরিষদের বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীা জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সদস্যদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কথা বলেন। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম, জেলা পরিষদ প্রশাসক ব্যারিষ্টার এম এনামুল কবির ইমন, পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ, সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আয়ুব বখ্ত জগলুল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দেবজিৎ সিংহ, সিভিল সার্জন আব্দুল হাকিম, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী ইকবাল আহমদ, দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদ চেয়ারমান ইদ্রিস আলী বীরপ্রতীক, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুলতান আহমদ প্রমুখ কথা বলেন।
জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম ২ মিনিটের বক্তব্যে সুনামগঞ্জের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, পর্যটন সম্ভাবনা, ইতিহাস-ঐতিহ্য এবং লোক কবিদের প্রায় ৬০ হাজার গান রচনার কথা জানিয়ে বলেন,‘সুনামগঞ্জ খাদ্য উদ্বৃত্বের জেলা, বোরো ধান হলেই এখানকার মানুষ ধনী’। তিনি সুরমা সেতু নির্মাণের ফলে এখানকার যোগাযোগ চিত্র বদলে যাবার কথা প্রধানমন্ত্রীকে জানান।
সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদ প্রশাসক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবীর ইমন বলেন,‘সুনামগঞ্জে সুরমা নদীর উপর সেতু নির্মাণ, পাওয়ার গ্রীড স্টেশন স্থাপন করে প্রধানমন্ত্রী সুনামগঞ্জবাসীর স্বপ্নপূরণ করেছেন। মেডিকেল কলেজ, বিশ^বিদ্যালয়, নার্সিং ইনষ্টিউট স্থাপন এখানকার মানুষের দাবি রয়েছে এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা এই প্রত্যাশা পূরণ করবেন বলেই বিশ^াস করেন সুনামগঞ্জবাসী’।
পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ জেলার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির কথা প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়ে বলেন,‘সুনামগঞ্জের সকল স্তরের মানুষকে নিয়ে ভবিষ্যতেও আইন-শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ সচেষ্ট থাকবে এবং কোন ধরণের নাশকতামূলক কর্মকা- হতে দেওয়া হবে না’।
সুনামগঞ্জ পৌর মেয়র আয়ুব বখ্ত জগলুল প্রায় ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে সুনামগঞ্জ পৌরবাসীর জন্য সড়ক ও ড্রেণেজের কাজ হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন,‘পৌরবাসীর জীবন-মানের উন্নয়ন ঘটেছে, পৌরসভায় একটি আধুনিক কাছাবাজার হয়েছে। বিনোদনের জন্য একটি মিনিপার্ক এবং সুরমা নদী সংলগ্ন এলাকায় দৃষ্টিনন্দন রিভারভিউ এবং ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান জানাতে বিভিন্ন সড়ক ও চত্বরের নামকরণ হয়েছে এবং চত্বরের উন্নয়ন হয়েছে। পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে আধুনিক ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট হচ্ছে। একই সঙ্গে সুরমা সেতু এবং সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কে ১৩ টি সেতু নির্মাণ হওয়ায় জেলাবাসী আনন্দিত হয়েছেন’। তিনি জেলায় মেডিকেল কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয় স্থাপন এবং সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়ককে মহাসড়কে উন্নয়নের আবদার জানান প্রধানমন্ত্রীর কাছে।
দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী বীরপ্রতীক শিলাবৃষ্টিতে হাওরের ফসলের ক্ষয়ক্ষতির বিষয় প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেন এবং নদী ভাঙনের বিষয়টি এবং দোয়ারায় সুরমা নদীর উপর সেতু নির্মাণের গুরত্বের কথা প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেন।
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম সজ্জন রাজনীতিক গুণী মানুষ এমএ মান্নান এমপিকে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা জানান এবং ভবিষ্যতে এমএ মান্নানকে পূর্ণমন্ত্রী করার প্রত্যাশার কথাও প্রধানমন্ত্রীকে জানান।
সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল হাকিম স্বাস্থ্যব্যবস্থার নানা উন্নয়ন চিত্র প্রধানমন্ত্রীকে তুলে ধরেন। এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী ইকবাল আহমদ গ্রামীণ সড়ক অবকাঠামোসহ এলজিইডির বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেন।
প্রধানমন্ত্রী সকলের বক্তব্য শুনে সুনামগঞ্জে মেডিকেল কলেজ স্থাপনের বিষয়ে ইতিবাচক মন্তব্য করেন এবং সুনামগঞ্জে বেসরকারী উদ্যোগে একটি বিশ^বিদ্যালয় স্থাপন করা যেতে পারে বলে মন্তব্য করেন। ভিডিও কনফারেন্স চলাকালে অন্যান্যদের সঙ্গে সুনামগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান প্রধানমন্ত্রীর পাশে বসা ছিলেন। উল্লেথ্য এর আগে একাধিকবার অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান বিভিন্ন সভায়সুনামগঞ্জে মেডিকেল কলেজ স্থাপনের কথা বলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24