1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১১:৫৫ অপরাহ্ন
Title :
দরিদ্র পরিবার কে সহায়তা করতে ১৫ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে ব্র্যাক বঞ্চিত গ্রামে ক্ষুদ্র প্রয়াস- আব্দুস সামাদ করোনাভাইরাস জগন্নাথপুরে ওমান প্রবাসীসহ দুইজনের নমুনা সংগ্রহ, এলাকায় আতঙ্ক জগন্নাথপুরে আমেরিকা প্রবাসির অর্থায়নে চাল ডাল বিতরণ জগন্নাথপুরে তরুন ব্যবসায়ী যুবলীগ নেতার উদ্যোগে অসহায়দের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার ওসি হারুনুর রশীদের উদ্যাগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করোনা বিষয়ে জগন্নাথপুরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রেসব্রিফিং: অকারণে ঘর থেকে বের হলে কঠোর ব্যবস্থা প্রশাসনের কঠোরতায় ঘরে ছিল হাওরবাসী জগন্নাথপুরে সংস্কারের নামে মাজার ভাঙচুরের অভিযোগ সুনামগঞ্জে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীর হৃদরোগে মৃত্যু

ভারতে ছয় মুসলিম প্রতিবেশী কে বাঁচিয়ে নিজে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন প্রেমকান্ত

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৬১ Time View

অনলাইন ডেস্ক –

দিল্লিতে হিন্দুত্ববাদী বিদ্বেষের উত্তাপে জন্ম নেওয়া আগুন থেকে মুসলিম প্রতিবেশীদের সুরক্ষা দিতে গিয়ে নিজেই মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন প্রেমকান্ত বাঘেল নামের এক ব্যক্তি। সহিংসতায় এখন পর্যন্ত ৩৪ জন মুসলিম প্রাণ হারিয়েছেন, আহত হয়েছেন প্রায় ২০০। তবে এরমধ্যেই প্রেমকান্ত মুসলিম প্রতিবেশীকে বাঁচাতে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন। প্রাণ বাঁচিয়েছেন ৬ জনের। তবে উগ্রবাদীদের সঙ্গে লড়াইয়ে মারাত্মক আহত হয়েছেন তিনি। এখন পাঞ্জা লড়ছেন মৃত্যুর সঙ্গ

দিল্লির শিববিহার এলাকায় থাকেন প্রেমকান্ত। তিনি জানান, দীর্ঘদিন ধরেই সেখানে হিন্দু-মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে সুসম্পর্ক রয়েছে। তবে সম্প্রতি দাঙ্গার সময় দুর্বৃত্তরা তার প্রতিবেশী মুসলিমদের বাড়িতে পেট্রোলবোমা দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঘর থেকে বেরিয়ে আসেন তিনি। জীবন বাজি রেখে ঝাঁপিয়ে পড়েন প্রতিবেশীদের প্রাণরক্ষায়। আগুনে জ্বলতে থাকা ঘরগুলো থেকে একে একে বের করে আনেন আটকে পড়া ব্যক্তিদের। এক বন্ধুর বয়স্ক মা’কে বাঁচাতে গিয়ে তিনিও অগ্নিদগ্ধ হন। তবে প্রেমকান্তকে বাঁচাতে প্রতিবেশীরা অ্যাম্বুলেন্সে খবর দিলেও পাওয়া যায়নি তা।

শরীরের ৭০ শতাংশ পুড়ে গেলেও সারা রাত নিজের বাড়িতেই যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছিলেন তিনি। স্বজনরা তাকে বাঁচানোর আশাও ছেড়ে দিয়েছিলেন। অবশেষে পরদিন সকালে কোনোরকমে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয় আহত প্রেমকান্তকে। তার চিকিৎসা চলছে, তবে জীবন এখনও সংকটাপন্ন। হাসপাতালে এমন সংকটাপন্ন অবস্থাতেও প্রেমকান্তের মনে স্বস্তি। তিনি খুশি যে বন্ধুর বয়স্ক মাকে বাঁচাতে পেরেছেন।সূত্র বাংলা টিবিউন

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Customized By BreakingNews