1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন

জার্মানিতে ১০০ বাড়ির মালিক এক বাংলাদেশি প্রবাসীর কথা

  • Update Time : শুক্রবার, ২ অক্টোবর, ২০২০
  • ২১১ Time View

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::

মাত্র ১৬ বছর বয়সে লেখাপড়ার পাশাপাশি হোটেলে কাজ শুরু করেন যুবরাজ তালুকদার। ২১ বছর বয়সে নিজের জমানো টাকা দিয়ে কেনেন প্রথম বাড়ি। এরপর আর পেছনে তাকাতে হয়নি। জার্মানিতে শতাধিক বাড়ির মালিক এই বাংলাদেশ-আবাসন খাতে এক সফল ব্যবসায়ী।

যুবরাজ তালুকদার, জার্মানির বন শহরের এই বাসিন্দা জার্মানির আবাসন খাতে এক পরিচিত মুখ। ১০০ টিরও বেশি বাড়ির মালিক তিনি। তবে বড় কোনো বিনিয়োগ নিয়ে এই খাতে ব্যবসা শুরু করেননি তালুকদার। নিজের সাম্রাজ্য গড়েছেন পুরোটাই নিজের চেষ্টায়, কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে। ১৯৯১ সালে আবাসন ব্যবসা শুরু করেন তিনি। এই বিষয়ে তালুকদার বলেন, ১৬ বছর বয়স থেকে লেখাপড়ার পাশাপাশি আমি হোটেলে কাজ করতাম। পরবর্তীতে ইঞ্জিনিয়ারিং খাতে চাকুরি করে যে বেতন পেয়েছিলাম সেগুলো আমার বাবাকে দিতে হয়নি। আমি সেগুলো সেভ করেছি। আব্বা কখনো বলেননি যে, আমার রোজগার থেকে তাকে খরচের টাকা দিতে হবে। টাকা জমা করে প্রথমে একটা বাড়ি নিলামে কিনি মাত্র সাড়ে ছয় হাজার ইউরো দিয়ে। মানে ১৯৯১ সালের তের হাজার মার্ক। সেই টাকা দিয়েই ব্যবসা শুরু করি।

পুরনো বাড়ি কিনে সংস্কার
আবাসন খাতে যুবরাজ তালুকদারের ব্যবসার ধরন কিছুটা ভিন্ন। তিনি মূলত পুরনো ঘরবাড়ি বিভিন্ন ব্যাংক, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে নিলামে কেনেন। কেনার পর সেগুলো সংস্কার করে ভাড়া দেন। তার কর্মী সংখ্যা ৬ জন। তিনি বলেন, সাধারণত ১৯৬০-১৯৭০ সালে বানানো, মানে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে বানানো বাড়িগুলো কিনি আমি। সেসব ভবনে টাইলস, বেসিন, কমোড, বিদ্যুতের লাইন এসব পুরনো থাকে। আপনি যদি কোনো কম্পানিকে দিয়ে এগুলো ঠিক করতে যান তাহলে উদাহরণস্বরূপ এক হাজার বর্গফুটের বাড়িতে নূন্যতম ৪০ হাজার ইউরো খরচ হবে। আর সেই কাজ আমি যদি কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে নিজে করি, তাহলে আমি অর্ধেক খরচে সেটা করতে পারবো।

কখনো কখনো দু’তিনশ বছরের পুরনো ঐতিহাসিক বাড়িও কেনেন যুবরাজ। সেগুলো অবশ্য সংস্কার করতে হয় বিশেষ কিছু নিয়ম মেনে। এ ধরনের বাড়ির বাইরের অংশের ডিজাইনে কোনো পরিবর্তন করা যায় না, তবে ভেতরটা নিজেদের মতো করে বদলে নেয়া যায়।

সৌজন্যে কালের কণ্ঠ

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Design & Developed By ThemesBazar.Com