1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:০০ পূর্বাহ্ন

সড়কের পানি নিষ্কাশনের কাজ করলেন জগন্নাথপুরের তরুণ মেম্বার মাহবুব

  • Update Time : রবিবার, ১ আগস্ট, ২০২১
  • ৯০০ Time View

বিশেষ প্রতিনিঘি::

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের শ্রীরামসি পয়েন্ট থেকে নয়াবন্দর  বাজার  সড়কে পানি নিষ্কাশন না হওয়ায় সড়ক জুড়ে পানি জমে চলাচলের দুর্ভোগ সৃষ্টি হয়।বিষয়টি নজরে আসায় নিজই কোদাল নিয়ে পানি নিস্কাশন কাজে লেগে পড়েন মীরপুর ইউনিয়ন পরিষদের ২ নং ওয়ার্ড সদস্য শ্রীরামসি গ্রামের তরুণ সমাজকর্মী মাহবুব হোসেন। শনিবার ভাঙ্গাচোরা  সড়কে ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মাহবুব হোসেন কে নিজেই কাজ করতে দেখে এগিয়ে আসেন আরও কয়েকজন তরুণ। সকাল ১০ টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত তাঁরা সড়কের বিভিন্ন জায়গায় জমে থাকা পানি নিষ্কাশনের সুবিধা করে দেন। এবং সড়কের গর্তগুলো নিজেদের উদ্যাগে ইটের খোয়া ও বালু ফেলে ভরাট করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, স্হানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের আওতাধীন এ সড়কের দুরত্ব ৬ কিলোমিটার।  শ্রীরামসি এলাকার এক কিলোমিটার অংশ জুড়ে ছোট ছোট গর্ত ও পানি জমে থেকে যান চলাচল ও পাঁয়ে হেঁটে চলাচলের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়। বিষয়টি শ্রীরামসির বাসিন্দা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মেহবুব হোসেনের নজরে এলে শনিবার তিনি  নিজে কোদাল দিয়ে কাজ শুরু করেন। ঘন্টাব্যাপী একা কাজ করার পর তাকে কাজ করতে দেখে এগিয়ে আসেন গ্রামের আরও কয়েকজন তরুণ। তাদের দিনব্যাপী প্রচেষ্টায় সড়কে জমে থাকা পানি নিষ্কাশনের সুবিধা হয়। ভরাট হয় ১০ টি গর্ত।
ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মাহবুব হোসেন জানান, শুক্রবার সড়কের পাশ দিয়ে হেঁটে শ্রীরামসি বাজারে যাওয়ার পথে একটি অটোরিকশা সড়কের পাশে   দাঁড়িয়ে থাকা আমার ওয়ার্ডের একজন প্রবীণ ব্যক্তিকে সড়কে জমে থাকা ময়লা পানি দিয়ে ভিজিয়ে পাঞ্জাবি, পায়জমা নষ্ট করে দিয়ে চলে যায়। তিনি মনঃক্ষুণ্ন হয়ে ফিরে যান বাড়িতে। ঘটনাটি দুর থেকে দেখে আমরা খুব কষ্ট লাগে।তাই নিজেই সড়কের পানি নিষ্কাশনের কাজ শুরু করি। পরে আমার সাথে ওয়ার্ডের আরও কয়েকজন তরুণ কাজে যোগদিলে আমরা আনন্দমনে কাজগুলো করি।
শ্রীরামসি গ্রামের তরুণ তানভীর আলম পিয়াস বলেন, আমাদের জনপ্রতিনিধি কে নিজে কাজ করতে দেখে আমরা গর্ববোধ করি।পরে তাঁর সাথে নিজেরাও কাজে যোগদেই।
স্হানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপজেলা প্রকৌশলী গোলাম সারোয়ার বলেন, সড়কের যে অংশ গর্ত হয়েছে। সেগুলো আমরা সংস্কারের উদ্যাগ নেব। প্রাথমিকভাবে একজন জনপ্রতিনিধি নিজে যে সড়কের পানি নিষ্কাশনের  করছেন তা প্রশংসার দাবি রাখে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১
Design & Developed By ThemesBazar.Com
%d bloggers like this: