বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৯:২৩ অপরাহ্ন

অধ্যক্ষকে পানিতে নিক্ষেপ: ছাত্রলীগের আরো পাঁচজন গ্রেফতার

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৫৯ Time View

রাজশাহী সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষকে লাঞ্ছিত করার পর পানিতে ফেলে দেওয়ার ঘটনায় ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত নেতা সৌরভসহ পাঁচ আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (সদর) গোলাম রুহুল কুদ্দুস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) ও চন্দ্রিমা থানা পুলিশ গতকাল সোমবার (১৮ নভেম্বর) দিবাগত রাতে পুঠিয়ার বেলপুকুর ও সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুল এলাকা থেকে আসামিদের গ্রেপ্তার করে বলে জানান তিনি।

গ্রেপ্তাররা হলেন ঘটনার মূলহোতা ও মামলার প্রধান আসামি রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের কম্পিউটার টেকনোলজি বিভাগের ছাত্র কামাল হোসেন সৌরভ (২৪)। তিনি নাটোর জেলার গুরুদাসপুর থানার চঁচকোড় বাজার এলাকার বজলুর রহমানের ছেলে।

মামলার দুই নম্বর আসামি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ইলেক্ট্রনিক্স বিভাগের ছাত্র মুরাদ হোসেন (১৯)। তিনি রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার ইউসুফপুর গ্রামের মাহাতাব আলীর ছেলে।

তিন নম্বর আসামি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের পাওয়ার টেকনোলজি বিভাগের ছাত্র সাব্বির আহম্মেদ শান্ত (২২)। তিনি পাবনার সদর থানার দাপুনিয়া এলাকার রইচ শেখের ছেলে।

মামলার চার নম্বর আসামি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ইলেকট্রোমেডিক্যাল বিভাগের ছাত্র সালমান ওরফে টনি (২২)। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ বাজার এলাকার শামিমুল ইসলামের ছেলে।

এ ছাড়া সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুল থেকে অপর এজাহারনামীয় আসামি রায়হানুল ইসলাম হাসিবকে (২১) গ্রেপ্তার করা হয়। হাসিব মহানগরীর ভদ্রা এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (সদর) গোলাম রুহুল কুদ্দুস বলেন, এই নিয়ে এখন পর্যন্ত কলেজ অধ্যক্ষের দায়ের করা মামলায় মোট ১৪ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হলো। এর ভেতর এজাহারে নামোল্লেখ করা আট আসামির মধ্যে সদ্য গ্রেপ্তার পাঁচজন রয়েছেন।

গ্রেপ্তারদের দুপুরের মধ্যেই ওই মামলায় আদালতে পাঠানো হবে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ আদালতে সাতদিনের রিমান্ড চাইবে বলেও পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান।

গত ২ নভেম্বর দুপুর ১টা ৩৫ মিনিটের দিকে রাজশাহী সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ অধ্যক্ষ ফরিদ উদ্দিনকে লাঞ্ছিত করেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। পরে তাঁকে পলিটেকনিকের ভেতরেই পুকুরের মধ্যে ফেলে দেওয়া হয়। এ সময় ইনস্টিটিউটের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা গিয়ে অধ্যক্ষকে পুকুর থেকে টেনে তোলেন।

ওই ঘটনায় অধ্যক্ষ ফরিদ উদ্দিন বাদী হয়ে গতরাতে মূল অভিযুক্ত রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন সৌরভসহ সাতজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতপরিচয় আরো ৫০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। নগরীর চন্দ্রিমা থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24