রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ০২:২৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
আজ কলকলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সন্মেলন ভারমুক্ত না নতুন নেতৃত্ব? কাশফুলের শাদা যন্ত্রণা ||আব্দুল মতিন জগন্নাথপুরের মিরপুরে ডাকাত আতঙ্ক, রাত জেগে দলবেঁধে পাহারা চলছে কলকলিয়া ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলনে রোববার পরিকল্পনামন্ত্রী প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন ৫ বছর পর কাল কলকলিয়া ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলন: বিতর্কিত নেতৃত্ব চান না নেতাকর্মীরা তুরস্ক থেকে এসেছে দুই হাজার ৫০০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ রাজধানীতে দুই বাসে আগুন সৌদিতে জগন্নাথপুরের কিশোরীকে আটককে রেখে অমানবিক নির্যাতন চলছে, মেয়েকে ফিরে পেতে মায়ের আহাজারি জগন্নাথপুরে আমনের বাম্পার ফলন হলেও, ন্যায্য দাম নিয়ে সংশয়ে কৃষকরা জগন্নাথপুরে আনন্দ হত্যাকাণ্ডের রহস্য অজানা, নেই গ্রেফতার

অাব্দুর রহিমস্যারের প্রয়াণ:এক কীর্তিমান বাতিওয়ালার নৈঃশব্দ মহাপ্রস্থান

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
  • ১৫২ Time View

অধ্যক্ষ মো.অাব্দুল মতিন

মৃত্যুর অমোঘ নিয়তির কাছে অামরা সবাই অসহায়। জীবনের সবজ্বালা -যন্ত্রণা,প্রাপ্তি- অপ্রাপ্তির অবসান ঘটায় মৃত্যু। তাই মৃত্যুর নিয়তিকে পাল্টানো কোন মানুষের পক্ষে সম্ভব নয়। পবিত্র কোরঅানে বলাহয়েছে,”অাল্লাহ সকলকে তার নির্দিষ্ট সময়ে মৃত্যুদান করেন। তাঁর হুকুম ব্যতীত কেউই মৃত্যুবরণ করতে পারেনা “। পবিত্র হাদিসে বলা হয়েছে,”মৃত্যু মুসলমানের নিকট উপঢৌকন সদৃশ। মৃতব্যক্তি দিগকে সর্বদা স্মরণ করো,তাঁদের গুণকীর্তন করো এবং তাঁদের সম্বন্ধে মন্দ বাক্য বলোনা “। মাইকেল মধু সুদন দত্ত ঠিকই বলেছেন,”জম্মিলে মরিতে হবে অমর কে কোথা কবে? চিরস্থির কবে নীর হায়রে জীবন নদে”?
তবুও প্রিয় জন হারানোর শোক কলিজায় স্থান করে নেয়;ক্ষত সৃষ্টি করে।জগন্নাথপুর পৌরসভার হবিবপুর গ্রামের এডভোকেট জিয়াউর রহিম শাহীন ভাইয়ের ২৩ সেপ্টেম্বর ফেসবুক স্ট্যাটাস হঠাৎ চোখে পড়ল ”রাব্বে কারিম । রাত তিনটা বেজে ৪৪ মি । কলিজার টুকরা আব্বা অসুস্থ । তিনি আই.সি. ইউ তে । একমাত্র আমিই জেগে আছি-বসে আছি ভিজিটর রুমে । তোমার করুনা চাই সকল রোগির জন্যই । দোয়া চাই সকলের ” । বুঝতে পারলাম উনার অাব্বা খুুুবই অসুস্থ। পত্রিকান্তরে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানলাম গতকাল ২৫সেপ্টেম্বর তিনি ৮৫ বছর বয়সে নাফেরার দেশে চলে গেছেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)। দেখলাম দলমত নির্বিশেষে জগন্নাথপুর উপজেলার সবাই তাঁর মৃত্যুতে শোকাহত হয়েছেন। সাবেক ছাত্র-ছাত্রীদের শোক দেখে চোখে অশ্রু এল। ‘জীবনে চরম না পাওয়ার মধ্যে ও শিক্ষকতা পেশায় হয়তো ভুল করিনাই’ মনেমনে ভাবলাম। অামার সেই প্রিয় ডকট্রিনটি ” If you plan for a year, sow a seed, If you plan for a decade,plant a plant.If you plan for a century, teach the people”বার বার মনে পড়ল।
সক্রেটিস মৃত্যুরঅাগে বলেছিলেন, ‘…এটা আমার কাছে পরিষ্কার যে, এখন মরলে এবং সব যত্নআত্তি থেকে মুক্ত হলে, আমার জন্য ভালো হবে … কিন্তু এখন যাওয়ার সময় হয়েছে, আমার মৃত্যুর সময় হয়েছে … আপনারা বেঁচে থাকবেন। কিন্তু আমি, নাকি আপনারা কে যে ভালো জায়গায় থাকবেন, সেটা ঈশ্বর বাদে কেউ জানেন না। ( “I to die, and you to live. Which of these two is better only God knows.”)। কিছু রেখে গেলে অার লিখে গেলেইতো মানুষ অমর থাকে। শ্রদ্ধেয় মরহুম অাব্দুর রহিম স্যারকে নিয়ে কিছু লিখবো মনস্থির করলাম। এডভোকেট জিয়াউর রহিম শাহীন ভাইকে শত শোকের মাঝেও খুঁজে বের করলাম। গভীরশোক;সমবেদনা জানালাম এবং স্যারের সম্পর্কে কিছু তথ্য দিতে অনুরোধ করলাম। জানালেন,মরহুম অাব্দুর রহিম ১৯৩৫ সালে জন্ম গ্রহণ করেন। দিরাই উপজেলার হোসেনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতার মাধ্যমে তাঁর শিক্ষকতা জীবন শুরু। জগন্নাথপুরের চিলাউড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ও তিনি শিক্ষকতা করেন। সর্বশেষ জগন্নাথপুর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে চাকুরী থেকে অবসর নেন। দীর্ঘ দিন তিনি দক্ষ ও সুশিক্ষক হিসেবে সহস্র ঘরের শিক্ষার্থীদের সহজাত গুণাবলী এবং সম্ভাব্য শক্তির পরিমাপ করেই প্রতিটি শিক্ষার্থীকে সংবেদশীল মননিয়ে সাহায্য করেছেন : সুযোগের সুবাতাসে শিশুচারাকে নতুন অাশার পল্লবে করেছেন প্রাণবন্ত; সম্ভাবনার উন্মুখতায় করেছেন মুকুলিত। অবসর সময়েও শিক্ষা,শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কল্যাণে ছিলেন নিবেদিত। তাঁর নিজ গ্রামের অাব্দুল তাহিদ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এসএমসির সভাপতি ছিলেন দীর্ঘদিন।হবিবপুর ফাজিল মাদ্রাসার পরিচালনায়;অাব্দুস ছোবহান উচ্চবিদ্যালয়ের প্রতিষ্টাতা সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন এবং হবিবপুর শাহজালাল জামে মসজিদের তিনি অামৃত্যু মোতোয়াল্লী হিসেবে সততা,সুনাম ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি জগন্নাথপুর উপজেলা শিক্ষক সমিতির প্রায় ২০ বছর সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন।উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন কয়েকবার। একজন বর্ণাঢ্য জীবনের অালোর বাতিওয়ালা মরহুম অাব্দুর রহিম মাস্টারের প্রথমসন্তান মো.লুলু মিয়া যুক্তরাজ্যে বসবাস কারী স্নাতক ডিগ্রিধারী, ২য় সন্তান মোছা. রাহেনা অাক্তার শিক্ষক পত্নী বর্তমানে যুক্তরাজ্যে বসবাস কারী, ৩য় সন্তান এডভোকেট জিয়াউর রহিম শাহীন সকল মহলে পরিচিত রাজনৈতক ব্যক্তিত্ব, শিক্ষানুরাগী,বাগ্মী,লেখক,সাপ্তাহিক সুরমা এক্সপ্রেস পত্রিকার সম্পাদক এবং কিছুদিন পিতার অাদর্শে হবিবপুর মাদ্রাসায় প্রভাষক ছিলেন, ৪র্থ সন্তান অাজিজুর রহিম মিছবা হবিবপুর মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেছেন বর্তমানে যুক্তরাজ্যে বসবাসকারী, ৫ম সন্তান মোছা.নাজমিনা বেগম ঢাকায় একটি অভিজাত পরিবারের গৃহিনী,৬ষ্ঠ সন্তান মোছা.বিলকিস বেগম যুক্তরাজ্যে বসবাসকারী,৭ম সন্তান মোছা. ফাহমিদা বেগম ফেঞ্চুগঞ্জে শিক্ষকপত্নী,৮ম সন্তান মো. তাইফুর রহিম নাহিদ স্বরূপ চন্দ্র সরকারী উচ্চবিদ্যালয়ে খন্ডকালিন শিক্ষকতা করে বর্তমানে ব্যবসায়ী। বর্ণাঢ্য জীবনের অধিকারী অাব্দুর রহিম মাস্টার এর জীবন সত্যিই মুগ্ধ করে। তাঁকে স্মরণ ও শ্রদ্ধা জানিয়ে কিছু লিখতে যাওয়া সত্যিই অামার জীবনের জন্য একটি স্মরণীয় ঘটনা ; অামার জীবনের অংশ যা অন্যরা অনুসরণ করবে।
আলেকজান্ডার দ্য গ্রেট সমগ্র বিশ্বে দিগ্বিজয়ী বীর হিসেবে সমাদৃত। ৩২৩ খ্রিস্টপূর্ব জুন মাসে ব্যাবিলনে দ্ব্বিতীয় নেবুচাদনেজারের প্রাসাদে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুর আগে তাকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল একটি প্রশ্ন। সে প্রশ্নের উত্তর দিয়েই তিনি মৃত্যুবরণ করেন। প্রশ্নটি ছিল- “To whom do you leave your kingdom?” জবাবে তার উত্তর ছিল-“To the best and the strongest!”।
মরহুম অাব্দুর রহিম মাস্টার ও মৃত্যুর পূর্বে হয়তো বলে গেছেন “অামার জীবনে সেরা যা কিছু করেছি সব তোমাদের। কোন ব্যর্থতা ভুল হলে ক্ষমা করে দিও”। আলোচিত চিত্রকর্ম মোনালিসার স্রষ্টা লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চি এর উচ্চারনের মতো “ I have offended God and mankind because my work did not reach the quality it should have ”

হে মহান সৃষ্টিকর্তা, এই প্রবীণ শিক্ষক মরহুম অাব্দুর রহিম যে ভাবে অামৃত্যু অালো ছড়িয়ে গেছেন ঘরে ঘরে; সৎ ভাবে জীবন ও জীবিকার ভিড়ে অাপনাকে ও তিনি স্বরণ রেখেছেন ; অাপনি তাঁর প্রতিও সদয় হোন; তাঁর ইচ্ছার সর্বোচ্চ সুন্দর স্থানটি তাঁর জন্য অাপনি বরাদ্ধ করুন। তাঁর শোকাহত স্বজন ও সমব্যথীদের শোককে সান্ত্বনার শক্তি দিয়ে সাহায্য করুন (অামিন)।

লেখক: মো.অাব্দুল মতিন
প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ
শাহজালাল মহাবিদ্যালয়
জগন্নাথপুর,সুনামগঞ্জ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24