শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৮:৩৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে তিনদিন ব্যাপি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন ব্রিটেনের নির্বাচনে আফসানার বড় জয়ে জগন্নাথপুরে উৎসবের আমেজ ব্রিটিশ পালার্মেন্টে ঝড় তুলবে বিজয়ী বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ৪ নারী এমপি ব্রিটেনের নির্বাচনে একটি আসনে বিশাল জয় পেয়েছেন জগন্নাথপুরের আফসানা বেগম অপরাধীদের প্রতি মহানবীর আচরণ যেমন ছিল সুদখোরদের ধরতে জেলা ও উপজেলায় মাঠে নামছে প্রশাসন জগন্নাথপুরে হাওরের জরিপ কাজ শেষ, কাজের তুলনায় বরাদ্দ কম, প্রকল্প কমিটি হয়নি একটিও জগন্নাথপুরে ডিজিটাল বাংলাদেশ উপলক্ষ্যে র‌্যালি, চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ জগন্নাথপুরে শিশু সাব্বির হত্যার ঘটনার গ্রেফতার-১ এনটিভি ইউরোপের জগন্নাথপুর প্রতিনিধি নিয়োগ পেলেন আব্দুল হাই

কৃষিতে বরাদ্দ বেড়েছে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৭ জুন, ২০১৮
  • ২৯৩ Time View

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অব্যাহত রাখতে এবার কৃষি খাতে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে আগের বছরের চেয়ে ৩ হাজার ৫৯৫ কোটি টাকা বরাদ্দ বাড়িয়েছে সরকার।

আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে নতুন বছরের জন্য ১৩ হাজার ৯১০ কোটি টাকা বরাদ্দ প্রস্তাব করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। যা মোট বাজেটের ২ দশমিক ৯৯ শতাংশ। আগের বছরের সংশোধিত বাজেটে কৃষি খাতের বরাদ্দ ছিল ১০ হাজার ৩১৫ কোটি টাকা। যা ছিল মোট বাজেটের ২ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

কৃষিতে ভর্তুকি কমাতে দাতা সংস্থা ও দেশের কয়েকটি বিদেশী সাহায্য নির্ভর এনজিও চাপ দিলেও সরকার কৃষি উন্নয়ন ও কৃষকের স্বার্থে আমলে নেয়নি তা। ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে কৃষি খাতে বরাদ্দের পাশাপাশি ভর্তুকিও বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। বৈরী প্রকৃতি ও আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানী ও সারের ঊর্ধ্বমুখী মূল্য বিবেচনায় ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে ভর্তুকি ৯ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে। গত অর্থ বছরের সংশোধিত বাজেটে যা ছিল ৬ হাজার কোটি টাকা। এ বছর ৩ হাজার কোটি টাকা বাড়ানো হয়েছে। খাদ্য উৎপাদন বাড়াতে বাজেটে কৃষি খাতকে বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। খাদে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অব্যাহত ও সবার জন্য খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার এ খাতকে গুরুত্ব দিয়েছে।

বাজেট উপস্থাপনায় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, আবাদযোগ্য জমি ক্রমশ কমতে থাকা সত্ত্বেও আমাদের কৃষিবান্ধব নীতিকৌশল ও কর্মসূচি গ্রহণের ফলে কৃষিখাতের উৎপাদন বহুলাংশে বেড়েছে। কৃষি ভর্তুকি, সার-বীজসহ অন্যান্য কৃষি উপকরণ প্রণোদনা ও সহায়তা কার্ড, সেচ সুবিধা ও খামার যান্ত্রিকীকরণ, শস্য বহুমুখীকরণ ও বিপণন, কৃষি পুনর্বাসন সহায়তা ইত্যাদি সফল কার্যক্রমসমূহ আমরা প্রয়োজনীয় মাত্রায় অব্যাহত রাখবো। তবে প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে এক্ষেত্রে দক্ষতা আরো বাড়ানো হবে। ইতোমধ্যে মোবাইল ব্যাংকিং-এর মাধ্যমে নগদ আর্থিক সহায়তা সরাসরি কৃষকের নিকট পৌঁছানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে এবং কৃষি উপকরণ সহায়তা কার্ডধারী কৃষকগণের তালিকা হালনাগাদ করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24