শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:৫৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
মুসলিমবিদ্বেষী আইনের বিরুদ্ধে ভারতজুড়ে বিক্ষোভ আমি স্বাধীনতা বিরুধী পরিবারের সন্তান নই- চেয়ারম্যান আব্দুল হাশিম জগন্নাথপুরে বাংলা মিরর সম্পাদক আব্দুল করিম গনি সংবর্ধিত জগন্নাথপুরে তিনদিন ব্যাপি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন ব্রিটেনের নির্বাচনে আফসানার বড় জয়ে জগন্নাথপুরে উৎসবের আমেজ ব্রিটিশ পালার্মেন্টে ঝড় তুলবে বিজয়ী বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ৪ নারী এমপি ব্রিটেনের নির্বাচনে একটি আসনে বিশাল জয় পেয়েছেন জগন্নাথপুরের আফসানা বেগম অপরাধীদের প্রতি মহানবীর আচরণ যেমন ছিল সুদখোরদের ধরতে জেলা ও উপজেলায় মাঠে নামছে প্রশাসন জগন্নাথপুরে হাওরের জরিপ কাজ শেষ, কাজের তুলনায় বরাদ্দ কম, প্রকল্প কমিটি হয়নি একটিও

জগন্নাথপুরের কৃষকরা আউশ ধান কাটায় ব্যস্ত

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৮
  • ৮৫ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার হাওরগুলোতে আউশ ধান কাটার ধূম পড়েছে।
একদিকে আমন ধামের চারা রোপন অন্যদিকে আউশের পাকা ধান গোলায় তুলতে কৃষকরা ব্যস্ত সময় পার করছেন। গতকাল শনিবার উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের জামাইকাটা হাওর ঘুরে দেখা গেছে,সাত আট জন কৃষক মিলে জমিতে পাকা আউশ ধান কাটছেন পাশেই আরো তিন জন কৃষক আমন ধানের চারা রোপন করছেন।
এসময় কথা হয় হাসান ফাতেমাপুর গ্রামের কৃষক লাল মিয়ার সঙ্গে তিনি জানান,এবার তিনি তিন কেদার জমিতে আউশ ধান রোপন করেছিলেন।দুই কেদার জমির ধান কেটে ধান পেয়েছেন ৩০ মণ।
জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র জানায়,একটি পৌরসভা ও আটটি ইউনিয়নে এবার ৬৩৭২ একর জমিতে আউশের আবাদ করা হয়। তারমধ্যে জগন্নাথপুর পৌরসভার হাওরে ৫৮৩ একর। পাইলগাঁও ইউনিয়নে ৫৯৩ একর,আশারকান্দি ইউনিয়নে ৫৮৫ একর সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়নে ৬০৮ একর মীরপুর ইউনিয়নে ১১৬০ একর পাটলী ইউনিয়নে ১১০৯ রানীগঞ্জ ইউনিয়নে ৭২১ একর চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়নে ৭৫ একর কলকলিয়া ইউনিয়নে ৯৩৬ একর আবাদ হয়।
কলকলিয়া ইউনিয়নের কালিটেকী গ্রামের কৃষক সজল বৈদ্য জানান, তিনি সাত কেদার জমিতে আউশের আবাদ করে একশ মনের বেশী ধান পেয়েছেন। একন আমন রোপনের কাজ শুরু করেছেন।
জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্ভিদ সংরক্ষন কর্মকর্তা তপন চন্দ্র শীল বলেন, আউশ ধান কাটার ধূম চলছে জগন্নাথপুর উপজেলায়। উপজেলার কৃষকরা এখন ধান কাটা ও আমন রোপনে ব্যস্ত।
জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শওকত ওসমান মজুমদার প্রথম আলো কে বলেন,এ উপজেলার কৃষকরা একমাত্র বোরো চাষাবাদে মনোযোগী ছিল।গত দুই বছর অকাল বন্যায় বোরো ফসল তুলতে না পারায় কৃষকরা যখন হতশ হয়ে পড়েন তখন কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে আমরা আউশ চাষাবাদে কৃষকদের উৎসাহিত করি। গত দুই বছরে এউপজেলার কৃষকরা আউশ আবাদে মনোযোগী হওয়ায় এখন ভাল ফলন পাচ্ছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24