জগন্নাথপুরের প্রবাসি খুন-লাশ তুলে ময়না তদন্তের নির্দেশ আদালতের

স্টাফ রিপোর্টার::
জগন্নাথপুরের যুক্তরাজ্য প্রবাসী আব্দুল গফুরের মাটি চাপা দেওয়া মৃতদেহ উত্তোলন করে ময়না তদন্তের জন্য আদেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার জগন্নাথপুরের আমল গ্রহণকারী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক এই নির্দেশ দেন। আদালতের চিঠি বৃহস্পতিবার বিকালেই সিলেটের জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে পৌঁছে দিয়েছে পুলিশ।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জগন্নাথপুর থানার সাব ইন্সপেক্টর হাবিবুর রহমান জানান, যেহেতু আব্দুল গফুরকে সিলেটের জৈন্তাপুরে উপজেলার পল্লীতে খুন করে মাটি চাপা দেওয়া হয়েছে। সিলেটের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মরদেহ উত্তোলন করতে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করতে হবে।
এসআই হাবিবুর রহমান বললেন,‘আদালতের চিঠি সিলেটের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট স্যারের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ পেলেই আমরা মরদেহ উত্তোলন করে ছুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠাব।’
প্রসঙ্গত. জগন্নাথপুর পৌরসভার জগন্নাথপুর গ্রামের মৃত মদরিছ আলীর ছেলে আব্দুল গফুর ২০১৭ সালের ৮ মে দেশে ফিরেন। ৯ মে সিলেটের একটি আবাসিক হোটেল থেকে তিনি নিখোঁজ হন। অনেক খোঁজাখুঁজির পর নিহতের ভাগিনা লালা মিয়া দেড় বছর পর গত ২৬ অক্টোবর জগন্নাথপুর থানায় এ বিষয়ে (নিখোঁজ উল্লেখ করে) একটি জিডি করেন (জিডি নম্বর ১০২১)। এই জিডির তদন্তকালে পুলিশ জৈন্তাপুর সাইট্রাস গবেষণা কেন্দ্রের অফিস সহায়ক জগন্নাথপুরের ব্রাহ্মণগাঁও গ্রামের মৃত মর্তুজ আলীর ছেলে আবুল কালাম আজাদ, তার জামাতা জৈন্তাপুর দারুস সুন্নাহ্ দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক কুমিল্লার হোমনা উপজেলার দত্তেরকান্দি গ্রামের মৃত আব্দুল গফুরের ছেলে আনোয়ার হোসেন ও জৈন্তাপুর উপজেলার নিজপাট মোকামটিলা গ্রামের মো. ইদ্রিছ আলীর ছেলে মো. জুনাব আলীকে গ্রেপ্তার করে। গত মঙ্গলবার গ্রেপ্তারকৃতদের জগন্নাথপুরের আমল গ্রহণকারী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করলে ৩ জনকেই জেল হাজতে পাঠান আদালত। পুলিশ ৩ জনকেই জিজ্ঞাাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করেছে। রিমান্ড প্রার্থনার শুনানী আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত হয়নি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» আবু খালেদ চৌধুরীর ১৬তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

» জগন্নাথপুরে নবগঠিত পৌর যুবলীগের একাংশের আনন্দ মিছিল

» হবিগঞ্জে স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ, স্বামী গ্রেফতার

» জগন্নাথপুরে পৌর যুবলীগের কমিটি প্রত্যাখান করে ঝাড়ু মিছিল

» জগন্নাথপুরে ‘অপহরণের অভিযোগ সত্য নয়, প্রেমের টানে পালিয়েছিল তরুণী’

» বেরাতে এসে নদীতে ডুবে প্রাণ গেলো এসএসসি শিক্ষার্থীর

» বাস-মাহেন্দ্রের সংঘর্ষে কলেজছাত্রীসহ নিহত ৬

» নিউজিল্যান্ডে যেভাবে ইসলাম এসেছে

» জগন্নাথপুরে কলেজ শিক্ষক সমিতির কমিটি গঠন, আহবায়ক মতিন, সদস্য সচিব আব্দুর রহমান

» নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

জগন্নাথপুরের প্রবাসি খুন-লাশ তুলে ময়না তদন্তের নির্দেশ আদালতের

স্টাফ রিপোর্টার::
জগন্নাথপুরের যুক্তরাজ্য প্রবাসী আব্দুল গফুরের মাটি চাপা দেওয়া মৃতদেহ উত্তোলন করে ময়না তদন্তের জন্য আদেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার জগন্নাথপুরের আমল গ্রহণকারী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক এই নির্দেশ দেন। আদালতের চিঠি বৃহস্পতিবার বিকালেই সিলেটের জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে পৌঁছে দিয়েছে পুলিশ।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জগন্নাথপুর থানার সাব ইন্সপেক্টর হাবিবুর রহমান জানান, যেহেতু আব্দুল গফুরকে সিলেটের জৈন্তাপুরে উপজেলার পল্লীতে খুন করে মাটি চাপা দেওয়া হয়েছে। সিলেটের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মরদেহ উত্তোলন করতে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করতে হবে।
এসআই হাবিবুর রহমান বললেন,‘আদালতের চিঠি সিলেটের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট স্যারের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ পেলেই আমরা মরদেহ উত্তোলন করে ছুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠাব।’
প্রসঙ্গত. জগন্নাথপুর পৌরসভার জগন্নাথপুর গ্রামের মৃত মদরিছ আলীর ছেলে আব্দুল গফুর ২০১৭ সালের ৮ মে দেশে ফিরেন। ৯ মে সিলেটের একটি আবাসিক হোটেল থেকে তিনি নিখোঁজ হন। অনেক খোঁজাখুঁজির পর নিহতের ভাগিনা লালা মিয়া দেড় বছর পর গত ২৬ অক্টোবর জগন্নাথপুর থানায় এ বিষয়ে (নিখোঁজ উল্লেখ করে) একটি জিডি করেন (জিডি নম্বর ১০২১)। এই জিডির তদন্তকালে পুলিশ জৈন্তাপুর সাইট্রাস গবেষণা কেন্দ্রের অফিস সহায়ক জগন্নাথপুরের ব্রাহ্মণগাঁও গ্রামের মৃত মর্তুজ আলীর ছেলে আবুল কালাম আজাদ, তার জামাতা জৈন্তাপুর দারুস সুন্নাহ্ দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক কুমিল্লার হোমনা উপজেলার দত্তেরকান্দি গ্রামের মৃত আব্দুল গফুরের ছেলে আনোয়ার হোসেন ও জৈন্তাপুর উপজেলার নিজপাট মোকামটিলা গ্রামের মো. ইদ্রিছ আলীর ছেলে মো. জুনাব আলীকে গ্রেপ্তার করে। গত মঙ্গলবার গ্রেপ্তারকৃতদের জগন্নাথপুরের আমল গ্রহণকারী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করলে ৩ জনকেই জেল হাজতে পাঠান আদালত। পুলিশ ৩ জনকেই জিজ্ঞাাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করেছে। রিমান্ড প্রার্থনার শুনানী আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত হয়নি।

© 2018 জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

error: ভাই, কপি করা বন্ধ আছে।