জগন্নাথপুরে গনধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়ের, জেল হাজতে দুইজন

স্টাফ রিপোর্টার :: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে তরুনী
গণধর্ষণের ঘটনায় বুধবার দিবাগত রাতে চারজনকে আসামী করে জগন্নাথপুর থানায়
মামলা দায়ের করা হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ওই তরুনীর বাবা চেরাগ আলী বাদী হয়ে
এ মামলা দায়ের করেন।
বৃহস্পতিবার ধর্ষনের ঘটনায় গ্রেফতারকৃত দুইজনকে সুনামগঞ্জ জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন হবিনগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার পুরুষউত্তমপুর গ্রামের বশির মিয়ার ছেলে বাসচালক আইনুল হক (২৬) ও উপজেলার
পাটলী ইউনিয়নের আসামপুর গ্রামের মৃত কাঁচা মিয়ার ছেলে বুরহান উদ্দিন
(৩৪)। আইনুল হক পৌরশহরের ইড়কছই এলাকায় ও বুরহান উদ্দিন জগন্নাথপুর এলাকায় বসবাস করছিল।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, বিশ্বনাথ উপজেলার ফেনারগাঁও গ্রামের চেরাগ আলীর মেয়ে (১৫) মায়ের সাথে রাগ করে বাড়ি থেকে মঙ্গলবার দুপুরে বের হয়ে মিনিবাসে উঠে জগন্নাথপুর উপজেলা সদরে নামে। পরে রিকশায় চড়ে সুনামগঞ্জ বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় যায়। সেখানে দীর্ঘক্ষন একটি দোকানের সামনে বসে থাকতে দেখে দোকান মালিক মেয়েটির বাড়ি কোথায় জানতে চাইলে মেয়েটি রাগ করে বাড়ি থেকে বের হয়ে এসেছে বলে জানায়। পরে দোকান মালিক মেয়েটির মাকে ফোন দিলে তিনি মেয়েটিকে গাড়িতে তুলে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়ার অনুরোধ করেন। এসময় দোকানে থাকা মিনিবাস চালক আইনুল হক মেয়েটিকে বিশ্বনাথের গাড়িতে তুলে দেয়ার কথা বলে মেয়েটিকে নিয়ে যায়। মিনিবাস চালক মেয়েটিকে গাড়িতে তুলে না দিয়ে বাসষ্ট্যান্ডের ম্যানেজার বুরহান উদ্দিনের জগন্নাথপুর এলাকার জিতু
মিয়ার কলোনীর ভাড়া বাসায় নিয়ে সারা রাত জোরপূর্বক মেয়েটিকে তাদের আরো দুই
সহযোগীসহ চারজন মিলে ধর্ষন করেন। পরিদন বুধবার সকালে মেয়েটি জগন্নাথপুর থানায় এসে পুলিশকে বিষয়টি জানায়। এ ঘটনায় মেয়ের বাবা বাদী হয়ে গ্রেফতারকৃত দুইজনসহ অজ্ঞাতনামা আরও দুইজনকে আসামী করে চারজনের বিরুদ্ধে
থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
জগন্নাথপুর থানার ওসি (তদন্ত) নব গোপাল দাশ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, গণঘধর্ষনের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে চারকে আসামী করে। ইতিমধ্যে মূলহোতাসহ দুইজনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। অপর দুইজনকে ধরতে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রয়েছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ক্ষমা চাইলেই সব কিছু মাফ হয়ে যাবে না: জামায়াত প্রসঙ্গে ড. কামাল

» সড়কে থ্রি-হুইলারের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৫

» জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের ৪৯ সংসদ সদস্য শপথ দিলেন

» ফসলরক্ষা বাঁধের উপর ঘাস ও গাছ লাগাতে হবে -পানিসম্পদ সচিব

» সুনামগঞ্জে মেলায় অবৈধ লটারি আটক ৯,অতঃপর মুচলেকায় মুক্ত

» জগন্নাথপুরে তালামীযের উদ্যোগে ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত

» বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতা ২২ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত

» জগন্নাথপুরে পাইপগান-গুলি উদ্ধার, গাঁজাসহ নারী আটক

» তামিল সঙ্গীত পরিচালকের ইসলাম গ্রহণ, সমর্থন পরিবারের

» জগন্নাথপুরের পাটলীতে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

জগন্নাথপুরে গনধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়ের, জেল হাজতে দুইজন

স্টাফ রিপোর্টার :: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে তরুনী
গণধর্ষণের ঘটনায় বুধবার দিবাগত রাতে চারজনকে আসামী করে জগন্নাথপুর থানায়
মামলা দায়ের করা হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ওই তরুনীর বাবা চেরাগ আলী বাদী হয়ে
এ মামলা দায়ের করেন।
বৃহস্পতিবার ধর্ষনের ঘটনায় গ্রেফতারকৃত দুইজনকে সুনামগঞ্জ জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন হবিনগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার পুরুষউত্তমপুর গ্রামের বশির মিয়ার ছেলে বাসচালক আইনুল হক (২৬) ও উপজেলার
পাটলী ইউনিয়নের আসামপুর গ্রামের মৃত কাঁচা মিয়ার ছেলে বুরহান উদ্দিন
(৩৪)। আইনুল হক পৌরশহরের ইড়কছই এলাকায় ও বুরহান উদ্দিন জগন্নাথপুর এলাকায় বসবাস করছিল।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, বিশ্বনাথ উপজেলার ফেনারগাঁও গ্রামের চেরাগ আলীর মেয়ে (১৫) মায়ের সাথে রাগ করে বাড়ি থেকে মঙ্গলবার দুপুরে বের হয়ে মিনিবাসে উঠে জগন্নাথপুর উপজেলা সদরে নামে। পরে রিকশায় চড়ে সুনামগঞ্জ বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় যায়। সেখানে দীর্ঘক্ষন একটি দোকানের সামনে বসে থাকতে দেখে দোকান মালিক মেয়েটির বাড়ি কোথায় জানতে চাইলে মেয়েটি রাগ করে বাড়ি থেকে বের হয়ে এসেছে বলে জানায়। পরে দোকান মালিক মেয়েটির মাকে ফোন দিলে তিনি মেয়েটিকে গাড়িতে তুলে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়ার অনুরোধ করেন। এসময় দোকানে থাকা মিনিবাস চালক আইনুল হক মেয়েটিকে বিশ্বনাথের গাড়িতে তুলে দেয়ার কথা বলে মেয়েটিকে নিয়ে যায়। মিনিবাস চালক মেয়েটিকে গাড়িতে তুলে না দিয়ে বাসষ্ট্যান্ডের ম্যানেজার বুরহান উদ্দিনের জগন্নাথপুর এলাকার জিতু
মিয়ার কলোনীর ভাড়া বাসায় নিয়ে সারা রাত জোরপূর্বক মেয়েটিকে তাদের আরো দুই
সহযোগীসহ চারজন মিলে ধর্ষন করেন। পরিদন বুধবার সকালে মেয়েটি জগন্নাথপুর থানায় এসে পুলিশকে বিষয়টি জানায়। এ ঘটনায় মেয়ের বাবা বাদী হয়ে গ্রেফতারকৃত দুইজনসহ অজ্ঞাতনামা আরও দুইজনকে আসামী করে চারজনের বিরুদ্ধে
থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
জগন্নাথপুর থানার ওসি (তদন্ত) নব গোপাল দাশ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, গণঘধর্ষনের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে চারকে আসামী করে। ইতিমধ্যে মূলহোতাসহ দুইজনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। অপর দুইজনকে ধরতে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রয়েছেন।

© 2018 জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

error: ভাই, কপি করা বন্ধ আছে।