শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
সুদখোরদের ধরতে জেলা ও উপজেলায় মাঠে নামছে প্রশাসন জগন্নাথপুরে হাওরের জরিপ কাজ শেষ, কাজের তুলনায় বরাদ্দ কম, প্রকল্প কমিটি হয়নি একটিও জগন্নাথপুরে ডিজিটাল বাংলাদেশ উপলক্ষ্যে র‌্যালি, চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ জগন্নাথপুরে শিশু সাব্বির হত্যার ঘটনার গ্রেফতার-১ এনটিভি ইউরোপের জগন্নাথপুর প্রতিনিধি নিয়োগ পেলেন আব্দুল হাই আইসিটি লানিং প্রশিক্ষণে থাইল্যান্ড যাচ্ছেন পরিচালক প্রতাপ চৌধুরী ওয়াজ মাহফিল যেন কারো কষ্টের কারণ না হয় জগন্নাথপুরে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার বাসুদেব মন্দিরে শ্রী অদ্বৈত গীতা সংঘের উদ্যাগে অষ্টপ্রহর ব্যাপী নাম সংকীর্তন শুরু এক সপ্তাহে জগন্নাথপুরের চার যুবকের মৃত্যুতে উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা

জগন্নাথপুরে জামায়াতে প্রতিষ্ঠান শাহজালাল জামেয়া মাদ্রাসা এমপিওভূক্ত হওয়ায় ক্ষোভ ও হতাশা

স্টাফ রিপোর্টার
  • Update Time : রবিবার, ২৭ অক্টোবর, ২০১৯
  • ১০৭ Time View

স্টাফ রিপোর্টার –
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার পাটলী ইউনিয়নের সাচায়ানি গ্রামে প্রতিষ্ঠিত জামায়াত ইসলামির ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত শাহজালাল জামেয়া দ্বীনিয়া মাদ্রাসা এমপিওভূক্ত হওয়ায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। অনেক গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান এমপিওভূক্ত হয়নি কিন্তু জামায়াত ইসলামি নিয়ন্ত্রিত এ প্রতিষ্ঠানটি এমপিওভূক্ত হওয়ায় অনেকেই হতবাক। এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ক্ষোব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন সচেতন মহল। প্রশ্ন উঠেছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের এমন উদাসীনতা নিয়ে। এক দিন আওয়ামী লীগ কে এর মূল্য দিতে হবে বলেও অনেকে মন্তব্য করেছেন। এনিয়ে
জগন্নাথপুর উপজেলা যুবলীগের সহ সভাপতি শিক্ষক সাইফুল ইসলাম রিপন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে যা লিখেছেন তা তুলে ধরা হল-
আওয়ামী লীগ যখন দেশের রাষ্ট্র ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত এবং তার মহৎ উদ্যোগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহ এমপিও ভুক্ত হয় তখন সাধুবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাতেই হয়। কিন্তু স্বাধীনতা বিরোধী জামাত-শিবিরের সার্বিক পৃষ্ঠপোষকতা ও নিয়ন্ত্রণে পরিচালিত তাদের লক্ষ্য উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের প্রতিষ্ঠান ” শাহজালাল জামেয়া দ্বীনিয়া মাদ্রাসা” যখন সেই সাথে এমপিও ভুক্ত হয়; মনোকষ্ট হয়! মনে জাগে বড় ভয়। প্রশ্ন জাগে যে-সরকার চালায় কে? এদেশে আওয়ামী লীগ বা অন্যান্য দলের লোক সহজেই চেনা যায় কিন্তু জামাত-শিবিরের লোক চেনা বড় দায়। এদেরকে তখনই চেনা যায় যখন তাদের মতাদর্শী লোক থাকে ক্ষমতায় অথবা তখন চেনা যায় যখন রাজনৈতিক অঙ্গন থাকে টালমাটাল ধোঁয়াশায়।
দেশের কল্যাণে জামায়াত-শিবির প্রতিশ্রুতিশীল নয়, বরং দেশ বিরোধী কাজ করাই তাদের মূখ্য বিষয়।
অবশ্যই দেশের উন্নয়নে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য কাজ করবে সরকার কিন্তু কিছু কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে তা বন্ধ করা দরকার। আর সে রকম একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হলো শাহজালাল জামেয়া দ্বীনিয়া মাদ্রাসা; দেশ প্রেমিক নাগরিকের প্রত্যাশা যেখানে দুরাশা। এখানে মধুর চাষাবাদ না হয়ে যদি কদুর চাষাবাদও হতো তবুও মেনে নেওয়া যেতো; কিন্তু এখানে শিখন প্রশিক্ষণ যা-ই হয় সেটা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। এরা তাদেরি পদাঙ্কনুসারী যারা মহান মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী। তারা বিষাক্ত ছোবল দিয়েছিলো একাত্তরে; সুযোগ পেলেই দিচ্ছে ছোবল এবং দিবে ভবিষ্যতে। আফসোস! দল ক্ষমতায় গেলে চোখের জ্যোতি আর মস্তিষ্কের ক্ষমতা লোপ পায়। দল যখন ক্ষমতায় থাকে না তখন বুঝা যায় কোনটা বাপ হয়ে আগলায় আর কোনটা বিষাক্ত সাপ হয়ে কামড়ায়। কিন্তু সময়ের কাজ সময়ে না করলে যা হবার নয় তা-ই হয়ে যায়। রাজনীতি মানে শুধু ক্ষমতার মসনদে বসা নয়; নয় পত্ পত্ করে পতাকা উড়িয়ে চলা। কিংবা রাজনীতি নয় মুখে মুখে শুধু জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া; ভাগ-বাটোয়ারা করে খাওয়া। আদর্শিক রাজনীতি মানে মহান মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করেছিলো যারা; তাদের উত্তরাধিকার নির্বিশেষে তাদের বিরোধিতা করা। আদর্শিক রাজনীতি মানে গ্রীষ্ম-বর্ষা-শীতে বুকের শক্ত ভিতে জাতীয় সঙ্গীতে সুরের লহরীতে যুগ যুগান্তরে চেতনা ও মূল্যবোধ বয়ে নিয়ে চলা।
সাচায়ানি গ্রামের বাসিন্দা আওয়ামী লীগ নেতা মধু মিয়া বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার যখন ক্ষমতায় তখন জামায়াত ইসলামির প্রতিষ্ঠান এমপিওভূক্ত হয় জামায়াত নেতারা পুরস্কৃত হয়। ত্যাগী নেতাকর্মীদের দলে কোনঠাসা হতে হয় এর চেয়ে দুঃখজনক আর কি হতে পারে। মধুসহ এলকার আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পর্কে নেতাকর্মীরা এ মাদ্রাসা এমপিওভূক্ত হওয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করে ক্ষোভ ও হতাশা ব্যক্ত করেন।
এবিষয়ে এমপিওভূক্তির সাথে সম্পৃক্ত এক কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান এবার এমপিওভূক্তি হয়েছে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে।রাজনৈতিক বিবেচনায় নয় তাই হয়তো শাহজালাল জামেয়ার মতো প্রতিষ্ঠান এমপিওভূক্ত হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24