শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৮:১২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাস্টের রিসোর্স সেন্টারের কাজ পরিদর্শনে ট্রাস্টের প্রতিনিধিদল জগন্নাথপুরে একদিকে ১১ জন ডাক্তারের যোগদান জগন্নাথপুরে বেড়িবাঁধের ৩০ প্রকল্প অনুমোদন কাল কাজ শুরু হতে পারে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসে জগন্নাথপুরে প্রশাসনের উদ্যোগে শ্রদ্ধা নিবেদন ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে আ.লীগের উদ‌্যোগে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসে আলোচনাসভা ও শ্রদ্ধা নিবেদন দিরাইয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন মুসলিমবিদ্বেষী আইনের বিরুদ্ধে ভারতজুড়ে বিক্ষোভ আমি স্বাধীনতা বিরুধী পরিবারের সন্তান নই- চেয়ারম্যান আব্দুল হাশিম জগন্নাথপুরে বাংলা মিরর সম্পাদক আব্দুল করিম গনি সংবর্ধিত জগন্নাথপুরে তিনদিন ব্যাপি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন

জগন্নাথপুরে জালিয়াতির সনদধারী চাকুরিতে যোগদানে মরিয়া

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৮
  • ১৪৪ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জের প্রবাসী অধ্যুষিত জগন্নাথপুর উপজেলায় ভুয়া নাগরিক সনদধারী ১০ জন চাকুরিতে যোগদান করতে নতুন নাগরিক সনদের জন্য জনপ্রতিনিধিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। নিজেকে জগন্নাথপুরের স্থায়ী বাসিন্দা সাজাতে ভুয়া বায়নাপত্র সৃজন করে জমিক্রয় করেছেন দাবি করে নাগরিক সনদ নেয়ার চেষ্ঠা করছেন বলে শুনা যাচ্ছে।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর জগন্নাথপুর উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের যোগদানপত্র নেবার জন্য জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার অফিস থেকে চিঠি দেওয়া হয়। চিঠিতে জানানো হয় ১০ অক্টোবর জেলা শিক্ষা কর্মকর্তার অফিস থেকে এসে তাদের পদায়নের চিঠি নিতে হবে। এর মধ্যেই এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে গত ২৬ সেপ্টেম্বর অভিযোগ জানানো হয়, ভুয়া নাগরিক সনদধারী মিজানুর রহমান (রোল-৫৪২৩৮০৮) জগন্নাথপুরের বাসিন্দা নয়। অথচ তিনি বাড়ী কাঠাইলখাইড়, ইউনিয়ন আশারকান্দি, জগন্নাথপুর উল্লেখ করে চাকুরি নিয়েছেন। এছাড়া আব্দুল মজিদ (রোল-৫৪২৫২৯০), বাড়ী- কাঠাইলখাইড়, ইউনিয়ন আশারকান্দি, জগন্নাথপুর। আশিকুর রহমান (রোল নং-৫৪২৪৮২০) বাড়ী- ইসহাকপুর, জগন্নাথপুর পৌরসভা। সুমা আক্তার (রোল-৫৪২৪৩১৭), বাড়ী- পূর্ব ভবানীপুর, জগন্নাথপুর পৌরসভা। রুবি রানী দাশ (রোল ৫৪২৪৫৭৩) বাড়ী- জগন্নাথপুর, পৌরসভা জগন্নাথপুর, অর্ণিবান দাস (রোল ৫৪২৪৬২১) বাড়ী- করিমপুর, সিএ মার্কেট, জগন্নাথপুর পৌরসভা। লুৎফা তাহের (রোল- ৫৪২৩৯৮৫), বাড়ী- কেশবপুর, জগন্নাথপুর পৌরসভা। বিথী (রোল ৫৪২৩৮৫৯) বাড়ী- কলকলিয়া, ইউনিয়ন কলকলিয়া, জগন্নাথপুর। আখিঁ সরকার (রোল ৫৪২৪১৪১) বাড়ী- তাজপুর, ইউনিয়ন আশারকান্দি, জগন্নাথপুর। নাজমা আক্তার (রোল ৫৪২৪১৭৫) বাড়ী- কাঠাইলখাড়, আশারাকান্দি ইউনিয়ন, জগন্নাথপুর, দেখিয়ে চাকুরি নিয়েছেন। তাদের নিয়োগ বাতিলের আবেদন করা হলে সুনামগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তাদেরকে নতুন করে নাগরিক সনদ দেখানোর নির্দেশ দেন এরপর থেতে তাঁরা নিজেকে ওই উপজেলার স্থায়ী বাসিন্দা সাজাতে জমি ক্রয় করার ভুয়া বায়নাপত্র দেখিয়ে নাগরিক সনদ দেয়ার চেষ্ঠা করছেন।

আশারকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউ.পি) চেয়ারম্যান আবু ইমানি বললেন, গত ১২ জুলাই আব্দুল মজিদ নামের একজনের সনদ আমার ইউনিয়ন থেকে নেওয়া হয়েছে। এই নামে ইউনিয়নের কাঠাইলখাইড়ে শিক্ষক হিসাবে চাকুরি হয়েছে এমন কোন মানুষ নেই। ওই নাগরিক সনদ নেবার সময় আমি যুক্তরাজ্যে ছিলাম। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বকুল চন্দ্র দাস নাগরিক সনদ দিয়েছেন। তিনি (বকুল চন্দ্র দাস) জানিয়েছেন, আব্দুল মজিদ তাঁকে জন্মজনদ ও ভোটার আইডি দেখিয়েছেন। তিনি জানান, তাঁর ইউনিয়নের অন্য আরও তিন ভুয়া সনদধারীর মুড়ি বই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। ওই ৩ জনের নাগরিকত্ব তিনি চেয়ারম্যান হবার আগে নেওয়া হয়েছে বলে দাবী তাঁর। আশারকান্দি ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুস সালাম গত ২ অক্টোবর লিখিত প্রত্যয়ন পত্রে উল্লেখ করেন আশারকান্দি ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ভুয়া নাগরিকত্ব নিয়ে চাকুরি পাওয়া আব্দুল মজিদ, আঁকি সরকার, মিজানুর রহমান ও নাজমা আক্তার তাঁর ওয়ার্ডের বাসিন্দা নন। আশিকুর রহমান, সুমা আক্তার ও অর্ণিবার দাসকে জগন্নাথপুর পৌর এলাকার বাসিন্দা নয় উল্লেখ করে প্রত্যয়নপত্র দিয়েছেন জগন্নাথপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র শফিকুল হক।রুবি রানী দাশ জগন্নাথপুরের স্থায়ী বাসিন্দা না হলে আমার ওয়ার্ডে বসবাসরত এক আত্বীয়ের বাসায় বসবাস করে জমি ক্রয়করার বায়নাপত্র দেখাচ্ছেন বলে জানান স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন।
লুৎফা তাহের নামের আরও একজনের জগন্নাথপুর পৌরসভার নাগরিক সনদ নিয়ে চাকুরি হয়েছে। লুৎফা তাহের নিজের বাড়ী কেশবপুর উল্লেখ করলেও কেশবপুরের একাধিক বাসিন্দা জানিয়েছেন লুৎফার বাড়ী কেশবপুরে নয়।
বিথী নামের আরও একজনের কলকলিয়া ইউনিয়নের নাগরিক সনদ দিয়ে চাকুরি হয়েছে। তার বিরুদ্ধেও স্থানীয় নয় অভিযোগ করা হয়েছে।
কলকলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল হাসিম লন্ডনে থাকায় এবিষয়ে বক্তব্য জানা যায়নি। প্যানেল চেয়ারম্যান হাশিম মিয়া এবিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি।
অস্থানীয়দের নয়, স্থানীয়দের চাকুরি চাই এই দাবীতে সোচ্চার জগন্নাথপুরের নাগরিক সংগঠন জগন্নাথপুর উন্নয়ন কমিটির আহ্বায়ক সুদীপ ভট্টাচার্য জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে, আমরা শুনেছি কোন কোন স্থানীয় সরকার প্রতিনিধি প্রথম ভুয়া নাগরিক সনদ দিয়েছেন। পরে আবার প্রত্যয়ন দিয়ে বা মৌখিকভাবে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা তাঁর ইউনিয়ন বা পৌরসভার নাগরিক নয়। এখন আবার শুনা যাচ্ছে তাঁরা ভুয়া সনদধারীদের স্থায়ী নাগরিক সনদ দিচ্ছেন। এটি দুঃখজনক। তিনি জানান, দীর্ঘদিন ধরে জগন্নাথপুরে এমন জালিয়াতি চলছে। এ কারণে স্থানীয়রা চাকুরি প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র আব্দুল মনাফ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, প্রতিদিন নতুন করে নাগরিক সনদের জন্য তদবির চলছে। কেউ কেউ জমি ক্রয় করার পুরোনো বায়নাপত্র এনে দেখাচ্ছেন। আমরা তাদেরকে নতুন করে নাগরিক সনদ দেইনি।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা পঞ্চানন বালা বলেন, ভুয়া নাগরিক সনদ দিয়ে চাকুরি নিয়েছেন দাবী করে জগন্নাথপুরের ৭ জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ হয়েছে। আগামী তিনদিনের মধ্যেই এই অভিযোগের তদন্তের জন্য কমিটি হবে। তদন্ত করে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে ২৪ তারিখের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24