জগন্নাথপুরে ধানরক্ষা ১০টি ঝুঁকিপূর্ণ বাঁধের কাজ এখনও পিছিয়ে, উৎকণ্ঠায় কৃষকরা

বিশেষ প্রতিনিধি :
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে ধানরক্ষা রেড়িবাঁধের ৫০টি প্রকল্পের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ ১০টি প্রকল্পের কাজ এখনও শেষ হয়নি। ফলে কৃষকদের মধ্যে উদ্বেগ উৎকণ্ঠ বিরাজ করছি। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি বাঁধের কাজ সমাপ্তির সময়সীমা পার হওয়ার ৫ দিন অতিবাহিত হলেও মঙ্গলবার পর্যন্ত সস্পন্ন হয়নি বাঁধগুলোর কাজ। গতকাল হাওরের ফসলরক্ষা পর্ষবেক্ষণ উপজেলা কমিটি ও কৃষকদের নিয়ে কাজ করা সামাজিক সংগঠন হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলন সংগঠনের নেতারা জগন্নাথপুরের সর্ববৃহৎ নলুয়া হাওর সুরাইয়া বিবিয়ানা হাওরের ফসলরক্ষা বাঁধের কাজ পরিদর্শন করে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে ১০ টি প্রকল্প চিহ্নিত করে দ্রুত এসব প্রকল্পের কাজ ঝুঁকিমুক্ত করতে প্রকল্পের সভাপতিদের নির্দেশ দেন। ঝুঁকিপূর্ণ প্রকল্পগুলো হচ্ছে নলুয়ার হাওরে ৭,৮, ১০, ১১, ১৫,১৭,১৯ ২০,৪৭ ও ৫০ নম্বর প্রকল্পটি।
হাওরের ফসলরক্ষা পর্যবেক্ষন উপজেলা কমিটির সভাপতি জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম জন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, জগন্নাথপুর উপজেলায় এবার ৫০ টি প্রকল্পের মাধ্যমে হাওরের ফসলরক্ষাার কাজ চলছে। এসব প্রকল্পের মধ্যে ৪০টি প্রকল্পের কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। অবশিষ্ট ১০টি প্রকল্প নদী তীরবর্তী হওয়ায় ঝুঁকিপূর্ন রয়েছে। আমরা প্রকল্পের সভাপতিদের মাধ্যমে সেগুলো ঝুঁকিমুক্ত করতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আশা করছি ১৫ মার্চের মধ্যে শতভাগ কাজ শেষ হবে।
হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির যুগ্ম সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, নিয়ম অনুযায়ী ১৫ ডিসেম্বর থেকে কাজ শুরু করে ২৮ ফেরুয়ারি শেষ করার কথা। কিন্তু প্রতিবছর কাজ শুরু করতে বিলম্ব হয়। এবারো এক মাস পিছিয়ে কাজ শুরু করায় নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ হয়নি। ফলে আমরা চিন্তিত।
পানি উন্নয়ন বোর্ড জগন্নাথপুর উপজেলা কার্যালয় সূত্র জানায়, জগন্নাথপুর উপজেলায় এবার বোরো ফসলরক্ষা বেড়িবাঁধের আওতায় ৫০ টি প্রকল্পে ৫ কোটি ৪৭ লাখ টাকা ব্যায়ে ৩২ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ নির্মাণ, মেরামত ও সংস্কার করা হচ্ছে। এরমধ্যে নলুয়ার হাওরের ১০টি প্রকল্প ঝুঁকিতে রয়েছে। ওইসব প্রকল্পের কাজও শেষ হয়নি এখন পর্যন্ত।
৮ নং প্রকল্পের সভাপতি আবুল কয়েছ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আমার প্রকল্পের ঘাস লাগানো ব্যতিত সব কাজ শেষ হয়েছে। প্রকল্পের ২০০ মিটার অংশ খুব ঝুঁকিপূর্ণ। এ অংশে বাঁশ বস্তা প্রাক্কলনে না থাকায় অংশটি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। আমরা বার বার আবেদন করলেও পাউবো কোন পদক্ষেপ নেয়নি। একই হাওরের ১৫ নং প্রকল্পের আরেক সভাপতি চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের জুয়েল মিয়া বলেন,আমার প্রকল্পটি নদী তীরবর্তী হওয়ায় এমনিতেই ঝু্কপিূর্ণ। আমি প্রক্কলন অনুযায়ী কাজ শেষ করার চেষ্টা করছি। পানি উন্নয়ন বোর্ড পাউবো উপ সহকারী প্রকৌশলী হাসান গাজী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ২৮ ফেব্রুয়ারি কাজ শেষ না হওয়ায় আরো ১৫ দিন সময় বাড়ানো হয়েছে। আশা করছি বদ্ধিত সময়ের মধ্যে শতভাগ কাজ শেষ হবে। যেসব প্রকল্প ঝু্কপিূর্ণ রয়েছে সেগুলো ঝুঁকিমুক্ত করতে বাঁশ বস্তাসহ বিভিন্ন কাজ করে প্রাক্কলন অনুযায়ী টেকসই বাঁধ নির্মাণ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» আসসালামু আলাইকুম বলে পার্লামেন্টে বক্তব্য দিলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

» সুনামগঞ্জে ছুরিকাঘাতে আ.লীগ নেতা খুন, আটক-৩

» আ.লীগের দু’পক্ষের গোলগুলি, নিহত ২

» ওসির বিরুদ্ধে ৫ লাখ টাকা ঘুষ দাবী’র অভিয়োগ আ.লীগ প্রার্থীর

» জগন্নাথপুরে ছাত্রলীগের উদ্যোগে যুক্তরাজ্য আ.লীগ নেতাকে সংবর্ধনা

» বালাগঞ্জে নৌকার প্রার্থী মফুর নির্বাচিত

» নেদারল্যান্ডসে যাত্রীবাহী ট্রামে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ১

» রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে প্রিজাইডিং কর্মকর্তাসহ নিহত ৫

» জগন্নাথপুরে ‘বাঁধা’ দেয়ায় হাওরের সড়কের কাজ বন্ধ

» জগন্নাথপুরে সড়ক থেকে মাইক্রোবাস দোকানে, আহত ৩

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

জগন্নাথপুরে ধানরক্ষা ১০টি ঝুঁকিপূর্ণ বাঁধের কাজ এখনও পিছিয়ে, উৎকণ্ঠায় কৃষকরা

বিশেষ প্রতিনিধি :
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে ধানরক্ষা রেড়িবাঁধের ৫০টি প্রকল্পের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ ১০টি প্রকল্পের কাজ এখনও শেষ হয়নি। ফলে কৃষকদের মধ্যে উদ্বেগ উৎকণ্ঠ বিরাজ করছি। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি বাঁধের কাজ সমাপ্তির সময়সীমা পার হওয়ার ৫ দিন অতিবাহিত হলেও মঙ্গলবার পর্যন্ত সস্পন্ন হয়নি বাঁধগুলোর কাজ। গতকাল হাওরের ফসলরক্ষা পর্ষবেক্ষণ উপজেলা কমিটি ও কৃষকদের নিয়ে কাজ করা সামাজিক সংগঠন হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলন সংগঠনের নেতারা জগন্নাথপুরের সর্ববৃহৎ নলুয়া হাওর সুরাইয়া বিবিয়ানা হাওরের ফসলরক্ষা বাঁধের কাজ পরিদর্শন করে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে ১০ টি প্রকল্প চিহ্নিত করে দ্রুত এসব প্রকল্পের কাজ ঝুঁকিমুক্ত করতে প্রকল্পের সভাপতিদের নির্দেশ দেন। ঝুঁকিপূর্ণ প্রকল্পগুলো হচ্ছে নলুয়ার হাওরে ৭,৮, ১০, ১১, ১৫,১৭,১৯ ২০,৪৭ ও ৫০ নম্বর প্রকল্পটি।
হাওরের ফসলরক্ষা পর্যবেক্ষন উপজেলা কমিটির সভাপতি জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম জন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, জগন্নাথপুর উপজেলায় এবার ৫০ টি প্রকল্পের মাধ্যমে হাওরের ফসলরক্ষাার কাজ চলছে। এসব প্রকল্পের মধ্যে ৪০টি প্রকল্পের কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। অবশিষ্ট ১০টি প্রকল্প নদী তীরবর্তী হওয়ায় ঝুঁকিপূর্ন রয়েছে। আমরা প্রকল্পের সভাপতিদের মাধ্যমে সেগুলো ঝুঁকিমুক্ত করতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আশা করছি ১৫ মার্চের মধ্যে শতভাগ কাজ শেষ হবে।
হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির যুগ্ম সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, নিয়ম অনুযায়ী ১৫ ডিসেম্বর থেকে কাজ শুরু করে ২৮ ফেরুয়ারি শেষ করার কথা। কিন্তু প্রতিবছর কাজ শুরু করতে বিলম্ব হয়। এবারো এক মাস পিছিয়ে কাজ শুরু করায় নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ হয়নি। ফলে আমরা চিন্তিত।
পানি উন্নয়ন বোর্ড জগন্নাথপুর উপজেলা কার্যালয় সূত্র জানায়, জগন্নাথপুর উপজেলায় এবার বোরো ফসলরক্ষা বেড়িবাঁধের আওতায় ৫০ টি প্রকল্পে ৫ কোটি ৪৭ লাখ টাকা ব্যায়ে ৩২ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ নির্মাণ, মেরামত ও সংস্কার করা হচ্ছে। এরমধ্যে নলুয়ার হাওরের ১০টি প্রকল্প ঝুঁকিতে রয়েছে। ওইসব প্রকল্পের কাজও শেষ হয়নি এখন পর্যন্ত।
৮ নং প্রকল্পের সভাপতি আবুল কয়েছ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আমার প্রকল্পের ঘাস লাগানো ব্যতিত সব কাজ শেষ হয়েছে। প্রকল্পের ২০০ মিটার অংশ খুব ঝুঁকিপূর্ণ। এ অংশে বাঁশ বস্তা প্রাক্কলনে না থাকায় অংশটি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। আমরা বার বার আবেদন করলেও পাউবো কোন পদক্ষেপ নেয়নি। একই হাওরের ১৫ নং প্রকল্পের আরেক সভাপতি চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের জুয়েল মিয়া বলেন,আমার প্রকল্পটি নদী তীরবর্তী হওয়ায় এমনিতেই ঝু্কপিূর্ণ। আমি প্রক্কলন অনুযায়ী কাজ শেষ করার চেষ্টা করছি। পানি উন্নয়ন বোর্ড পাউবো উপ সহকারী প্রকৌশলী হাসান গাজী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ২৮ ফেব্রুয়ারি কাজ শেষ না হওয়ায় আরো ১৫ দিন সময় বাড়ানো হয়েছে। আশা করছি বদ্ধিত সময়ের মধ্যে শতভাগ কাজ শেষ হবে। যেসব প্রকল্প ঝু্কপিূর্ণ রয়েছে সেগুলো ঝুঁকিমুক্ত করতে বাঁশ বস্তাসহ বিভিন্ন কাজ করে প্রাক্কলন অনুযায়ী টেকসই বাঁধ নির্মাণ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

© 2018 জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত

সম্পাদক ॥ অমিত দেব, মোবাইল ॥ ০১৭১৬-৪৬৫৫৩৫,
ই-মেইল ॥ amit.prothomalo@gmail.com
বার্তা সম্পাদক ॥ আলী আহমদ, মোবাইল ॥ ০১৭১৮-২২২৯৭৫,
ই-মেইল ॥ ali.jagannathpur@gmail.com,
ওয়েবসাইট ॥ www.jagannathpur24.com, ই-মেইল ॥ jpur24@gmail.com

error: ভাই, কপি করা বন্ধ আছে।