মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৫:৫৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
আইসিজেতে গাম্বিয়ার আইনমন্ত্রী-মিয়ানমারের গণহত্যা কোনোভাবেই গ্রহণ করা যায় না জগন্নাথপুরে মানবাধিকার দিবসে র‌্যালি ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত সিলেটে মাকে হত্যা করল পাষান্ড ছেলে ঘৃনার বদলে অমুসলিমদের মধ্যে ১০ হাজার কোরআন বিতরণ করবে নরওয়ের মুসলিমরা জগন্নাথপুরে ফুটবল এসোসিয়েশনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন উপলক্ষে প্রস্তুতিসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে পারাপারের সময় খেলা নৌকা থেকে পড়ে মৃগী রোগির মৃত্যু জগন্নাথপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহতের স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ও বেগম রোকেয়া দিবস পালন, ৫ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান জগন্নাথপুরে মুক্ত দিবস পালিত জগন্নাথপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত দুই যুবকের জানাজায় শোকাহত মানুষের ঢল

জগন্নাথপুরে নলুয়া হাওরের কয়েকটি বাঁধের কাজ এখনও শুরু হয়নি, শঙ্কায় কৃষকরা

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০১৮
  • ৪২ Time View

আলী আহমদ ও গোবিন্দ দেব নলুয়া হাওর ঘুরে :: জগন্নাথপুরের নলুয়ার হাওরে ফসলরক্ষা কয়েকটি বেড়িবাঁধে এখনো কাজ শুরু হয়নি। ফলে কৃষকরা শঙ্কায় ভূগচ্ছেন।
শনিবার সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, নলুয়ার হাওরের বৈশার ভাঙা, শালিকা, ডুমাখালি, দাসনাগাঁও কুরেরপাড়, হালেয়া পতিত, ভূরাখালি রাখালগাছনহ বেশ কয়েকটি বেড়িবাঁধে একধলা মাটি পড়েনি। তবে ওই সব পিআইসি (প্রকল্প বাস্তবায়ক কমিটি) জানিয়েছেন তারা ওর্য়াড অডার (কাজের লিখিত অনুমতি) পাননি। তাই কাজ করতে পাড়ছেন না।

স্থানীয় কৃষকরা জানান, টানা তিন বছর ধরে ফসল ঘরে তুলতে পারেনি। গত বছর পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক নিন্মমানের বেড়িবাঁধ ভেঙে আধা-পাকা সফল পানিতে তলিয়ে যায়। ফসলহারি কৃষকরা নানা কষ্ঠে জীবন যাপন করছেন। এবারের বোরো ফসল অন্য বছরের তুলনায় দেরিতে আবাদ শুরু হয়েছে। হাওরের পানি দেরিতে নামার কারনে বোরো চাষাবাদে অব্যাহত হয়। এখনো কিছু কিছু স্থানে জলবদ্ধাতার কারনে চারা রোপন করতে বিলম্ব হচ্ছে।
ভুরাখালি গ্রামের কৃষক আকিক মিয়া, গত বছরের পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক নিন্মমানের বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে ফসলডুবির ঘটনা ঘটে। এবার ১০ হাল (১২০ কেদারা) জমিতে বোরো আবাদ করেছি এবার। এখনো হাওরের বেড়িবাঁধে মাটি পড়েনি। যে কারনে শঙ্খায় ভোগছি। দ্রুত বেড়িবাঁধ নির্মাণ করে হাওরের ফসলরক্ষার দাবী জানিয়েছেন তিনি।

দাসনাগাঁও বেড়িবাঁধের পিআইসির ( প্রকল্প বাস্তবায়ক কমিটি) সভাপতি স্থানীয় ইউপি সদস্য নান্টু দাস জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, বেড়িবাঁধের ওর্য়াক অর্ডার ( কাজের লিখিত অনুমতি) পায়নি। কৃষকদের কথা চিন্তা করে নিজের উদ্যোগে প্রায় এক লাখ টাকা খরছ করে বাঁধের কাজে। সরকারী কোন বরাদ্দ এখনো পাননি বলে তিনি জানান।

হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাচাঁও আন্দোলন কমিটির জগন্নাথপুর উপজেলা শাখার আহবায়ক সিরাজুল ইসলাম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এখনো হাওরের বেড়িবাঁধগুলোর কাজ শুরু হয়নি। এমতাবস্থায় নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বাঁধের কাজ সম্পন্ন হওয়া নিয়ে আশংকা দেখা দিয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে ফসলরক্ষা বাঁধের কাজ শেষ করার জন্য তিনি আহবান জানিয়েছেন।

জগন্নাথপুরের বেড়িবাঁেধর কাজের দায়িত্বরত সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের এসও ফয়জুল্লাহ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, যথাসময়ের মধ্যে বাঁধের কাজ শেষ হবে। সেলক্ষ্যে আমরা কাজ করছি।

জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এবার ফসলরক্ষা বাঁধ নির্মাণে প্রায় ৪ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এবছর ৮১টি সিআইসি (প্রকল্প বাস্তবায়ক কমিটি) গঠন করা হয়েছে।
তিনি জানান, যে সব বাঁধের ওর্য়াক অর্ডার হয়নি দ্রুত সময়ের মধ্যে সেই সব বাঁধের অর্ডার প্রদানের জন্য সংশিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে।

জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি অফিস সুত্র জানায়, উপজেলার নলুয়া, মইয়া, পিংলাসহ ছোট বড় ১৫টি হাওরের প্রায় ২৫ হাজার হেক্টর বোরো ফসলের চাষাবাদের আওতায় আনা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24