শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
অফিসার্স ক্লাব থেকে রানীগঞ্জের তহশীলদারসহ ৪ জুয়াড়ি গ্রেফতার আজানের মর্মবানী জগন্নাথপুরে ২২তম ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন সম্পন্ন জগন্নাথপুরে সেই সড়কে ২৩ কোটি টাকার টেন্ডার সম্পন্ন, নতুন বছরের শুরুতেই কাজ শুরু হতে পারে জগন্নাথপুরে ১৫ দিন পর অবশেষে ধান কেনা শুরু জগন্নাথপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে দুর্বৃত্তরা হত্যা করল স্টুডিও’র মালিক আনন্দকে সিলেট জেলা আ’লীগের নেতৃত্বে লুৎফুর-নাসির, মহানগরে মাসুক-জাকির প্রতিবন্ধীদের জন্য প্রতিটি উপজেলায় সহায়তা কেন্দ্র: প্রধানমন্ত্রী জগন্নাথপুর পৌরশহরে স্টুডিও দোকানদারের মরদেহ পাওয়া গেছে হিন্দুরাষ্ট্রের পথে ভারত: সংসদে বিজেপি নেতা

জগন্নাথপুরে ফসলরক্ষা বেড়িবাঁধ কেটে দেওয়ার শঙ্কায় কৃষকরা

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৫ এপ্রিল, ২০১৮
  • ১৩১ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে ফসলরক্ষা বেড়িবাঁধ কেটে দেওয়ার শঙ্কায় ভোগচ্ছেন নলুয়া হাওরের কৃষকরা।
হাওর বাচাঁও সুনামগঞ্জ বাচাঁও আন্দোলনের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির উদ্যোগে বুধবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ রোডস্থ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম’র প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত আলোচনাসভা এমন শঙ্কার কথা জানালেন নলুয়া হাওরপারের দাসনাগাও গ্রামের কৃষক মুক্তিযোদ্ধা নির্মল দাস।
মুক্তিযোদ্ধা নির্মল দাস জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, উপজেলার মইয়ার হাওরের ধান কাটা ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। ১০/১২ দিনের মধ্যেই পুরো হাওরের ফসল ঘরে তোলার হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। এ হাওরের বোরো ধান কাটা যখন শেষ হবে তখনই জেলার অন্যতম হাওর জগন্নাথপুরের সর্ববৃহৎ নলুয়া হাওরের ধান কাটার ধুম পড়বে। আর ওই সময় মাছ শিকারের জন্য দূর্বৃত্তরা মইয়ার হাওরের বাঁধ কেটে দিতে পারে। কারন অনেক বছর ধরেই এ অবস্থায় বিরাজ করে আসছে। তিনি জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, মইয়ার হাওরের বাঁধ কেটে দেওয়া হলে নলুয়া হাওরের ফসলপানিতে দ্রুত তলিয়ে যাবে। এরকম পূর্বেও অনেক বছর হয়েছে। নলুয়া হাওরের এখনও ৭৫ ভাগ ফসল কাচাঁ-আধা পাকা রয়েছে। বৈশাখ মাসের প্রথম সপ্তাহেই নলুয়া বোরো ধান কাটার ধুম পড়বে বলে তিনি জানিয়েছেন।
নলুয়া হাওরের কৃষক নেতা সাইদুর রহমান জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, হাওরের কিছু অংশে অর্থাৎ উচু এলাকায় বোরো ধান কাটা শুরু হয়েছে। সপ্তাহের মধ্যে পুরো হাওরের ধান কাটার উৎসব শুরু হবে। তিনি জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, নলুয়া হাওরের কৃষকরা যখন পুরোদমে ফসল ঘরে তোলায় ব্যস্ত হয়ে উঠবেন তখন আমাদের পাশের মইয়ার হাওরে ধান কাটা শেষ হয়ে যাবে। ওই সময় দূর্বৃত্তরা হাওরের মাছ ধরার জন্য বাঁধের কেটে দেয়। তাই ফসলরক্ষায় প্রশাসনকে এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।
হাওর বাচাঁও সুনামগঞ্জ বাচাঁও আন্দোলনের জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির আহবায়ক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এ রকম অভিযোগ অনেকদিন ধরেই শুনা যাচ্ছে। হাওর সুরক্ষায় সকল ধরনের পদক্ষেপ গ্রহনের জন্য আমরা প্রশাসনের নিকট লিখিতভাবে জানাবো।
জগন্নাথপুরের ইউএনও মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, হাওরের ফসলরক্ষায় প্রতিটি বেড়িবাঁধে পাহারাদার নিয়োগ করা হয়েছে। হাওরের কোন ধরনের নাশকতা বরদাশত করা হবে না। ফসলরক্ষায় আমরা প্রস্তুুত রয়েছি।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শওকত ওসমান মজুমদার জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এ বছর নলুয়াসহ উপজেলার সব ক’টি হাওরের ২২ হাজার ৫শত হেক্টর বোরো ফসল চাষাবাদ করা হয়েছে। এরই মধ্যে হাওরের উচু এলাকায় ধান কাটা শুরু করেছেন কৃষকরা। আশা করছি মাসখানের মধ্যেই কৃষকরা তাদের কর্ষ্ঠাজিত ফসল গোলায় তোলতে পারবেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24